বাংলা নিউজ > ময়দান > LPL 2020: গ্রুপে শীর্ষে থেকেও ১ ম্যাচ হেরে বিদায়, IPL-এর নিয়মে সওয়াল প্রাক্তন KKR তারকার
LPL 2020: গ্রুপে শীর্ষে থেকেও ১ ম্যাচ হেরে বিদায়, IPL-এর নিয়মে সওয়াল ম্যাথিউজের। (ছবি সৌজন্য, টুইটার @LPLT20)
LPL 2020: গ্রুপে শীর্ষে থেকেও ১ ম্যাচ হেরে বিদায়, IPL-এর নিয়মে সওয়াল ম্যাথিউজের। (ছবি সৌজন্য, টুইটার @LPLT20)

LPL 2020: গ্রুপে শীর্ষে থেকেও ১ ম্যাচ হেরে বিদায়, IPL-এর নিয়মে সওয়াল প্রাক্তন KKR তারকার

  • আইপিএলের প্লে-অফের নিয়মের পক্ষে সওয়াল।

শুভব্রত মুখার্জি

এ যেন এক অদ্ভুত উলট পুরানের রাজত্বে বাস লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগে (এলপিএল)। চলতি প্রথমবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগ। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে থেকেই নানারকম বাধা বিপত্তির সম্মুখীন হতে হয়েছে। তৈরি হয়েছে একাধিক বিতর্ক। নাম প্রত্যাহার করেছেন একাধিক দেশি-বিদেশি তারকা ক্রিকেটার। প্রথম সেমিফাইনালের পরে জোর বিতর্ক দানা বেঁধেছে লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগে। কলম্বো কিংসকে হারিয়ে লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগের ফাইনালে উঠেছে গল গ্ল্যাডিয়েটর্স।

রবিবার প্রথম সেমিফাইনালে কিংসদের দু'উইকেটে হারিয়েছে গল।গ্রুপ পর্বে আটটি ম্যাচের ছ'টিতে জয়লাভ করে শীর্ষে থেকেই গ্রুপ পর্ব শেষ করেছিল কলম্বো। আর গ্রুপ লিগে আট ম্যাচে মাত্র দুটিতে জয় পেয়েছিল গল। নেট রানরেটের দৌলতে কোনওমতে সেমিফাইনালে পৌঁছেছিল তারা। সেমিফাইনালে জিতে এবার ফাইনালেও উঠেছে গল। আর টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গিয়েছে কলম্বো।

রবিবার লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগের প্রথম সেমিফাইনালে মুখোমুখি হয় কলম্বো কিংস এবং গল গ্ল্যাডিয়েটর্স। টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে রাসেলের কলম্বো কিংস। কিন্তু শুরু থেকেই একের পর এক উইকেট হারাতে থাকে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজের দল। ছ'বলে ১১ রান করে আউট হয়ে যান রাসেল। কলকাতা নাইট রাইডার্সের তারকা যখন আউট হন, তখন কলম্বোর হাতে ৫১ বল পড়েছিল। শেষপর্যন্ত ইংরেজ ড্যানিয়েল বেল-ড্রামন্ডের ৭০ রান (৫৩) এবং ইশুরু উডানার ১৯ রানের (১১ বল) সৌজন্যে নির্ধারিত ২০ ওভারে ন'উইকেটে ১৫০ রান তোলেন রাসেলরা।

ভালো বোলিং করলেও রান তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা জোড়া ধাক্কা খায় গল। তৃতীয় ওভারের মধ্যে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান দুই ওপেনার। তারপর কিছুটা খেলার হাল ধরেন ভানুকা রাজাপক্ষ এবং আজম খান। কিন্তু ষষ্ঠ ওভারের শেষ বলে আজম খান আউট হওয়ার পর আবার নড়বড় করতে শুরু করে গলের ইনিংস। কলম্বো নিয়মিত ব্যবধানে উইকেট নেওয়ার ফলে তুমুল উত্তেজক হয়ে ওঠে ম্যাচ। ১৬ তম ওভারে গলের স্কোর ছিল সাত উইকেটে ১১৬ রান। সেই অবস্থায় দলকে টানতে থাকেন ধনঞ্জয় লক্ষ্ণণ এবং মহম্মদ আমির। কিন্তু ১৯ ওভারের শেষ বলে আউট হয়ে যান পাকিস্তানি তারকা। শেষ ওভারে জয়ের জন্য ১৫ রান দরকার ছিল। আর প্রথম বলেই ধনঞ্জয়ের ক্যাচ ফস্কায় কলম্বো। সেই জীবনদানের সুযোগ নিয়ে পঞ্চম বলে চার মেরে গলকে এলপিএলের ফাইনালে তুলে দেন ধনঞ্জয়। ২৩ বলে অপরাজিত ৩১ রান এবং তিন উইকেটের সৌজন্যে তিনিই ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হয়েছেন।

তবে বিতর্ক শুরু হয়েছে ম্যাচ শেষের পরে শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন অধিনায়ক তথা অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের মন্তব্য ঘিরে। গলের ফাইনালে যাওয়ার ঘটনাকে ব্যাখ্যা করতে গিয়ে আইপিএলের উদাহরণও টেনে এনেছেন। বাড়িয়েছেন বিতর্ক। কলকাতা নাইট রাইডার্সের তারকার মতে, 'যখন তুমি গ্রুপ লিগে টেবিলে শীর্ষস্থান দখল করে শেষ কর, তখন তুমি আরও একটা সুযোগ পাওয়ার যোগ্য। ঠিক যেমন আইপিএলের প্লে অফে হয়। কিন্তু এলপিএলে ব্যাপারটা অন্যরকম। এখানে যখন তুমি দেখছ যে তুমি দুটো বা তিনটে ম্যাচে জিতেই সেমিফাইনালে চলে যেতে পারছ।'

বন্ধ করুন