বাংলা নিউজ > ময়দান > সার্জিও আগুয়েরোর অভাব কীভাবে মিটবে? উত্তর দিলেন ম্যান সিটির কর্তা
সার্জিও আগুয়েরো। ছবি- রয়টার্স। (Pool via REUTERS)
সার্জিও আগুয়েরো। ছবি- রয়টার্স। (Pool via REUTERS)

সার্জিও আগুয়েরোর অভাব কীভাবে মিটবে? উত্তর দিলেন ম্যান সিটির কর্তা

এক দশক ও ২৬০ গোলের পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালের খেলেই ম্যান সিটিকে বিদায় জানাতে চলেছেন আগুয়েরো।

এভার্টনের বিরুদ্ধে জোড়া গোল করে চিরাচরিত ভঙ্গিমায় ম্যাঞ্চেস্টার সিটির হয়ে নিজের প্রিমিয়ার লিগ কেরিয়ারের অবসান ঘটান সার্জিও কুন আগুয়েরো। মরশুম শেষে চুক্তি শেষ হয়ে যাওয়ায় এক দশক পরে নিজের প্রিয় ক্লাবকে বিদায় জানাবেন কুন। কিংবদন্তি স্ট্রাইকারের পরিবর্তে দলে কাকে নেওয়া হবে সেই নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে।

আগের মরশুমে অধিনায়ক ভিনসেন্ট কম্পানি দল ছাড়ার পর তাঁর পরিবর্ত না নেওয়ায় দলকে ডুবতে হয়েছিল। আরও এক তারকার বিদায়ে তাই দলে কাকে নেওয়া হবে সেই বিষয়ে একটু বেশিই উদ্বেগ সমর্থকদের মনে। তবে অতীত চিত্রেরই পুনরাবৃত্তি ঘটতে পারে বলে আগে থেকেই ইঙ্গিত দিয়ে রাখলেন সিটির প্রধান ফুটবল অপারেশন অফিসার ওমার বেরাদা।

তিনি এক অনলাইন কথোপকথনে জানান, ‘খুব খুব মুশকিল (আগুয়েরোর পরিবর্ত পাওয়া), প্রায় অসম্ভব। তবে সৌভাগ্যক্রমে আমরা এমন জায়গায় আছি যেখানে নতুন খেলোয়াড় কেনা আমাদের জন্য আবশ্যক নয়। শুধুমাত্র সেই ফুটবলারকেই আমাদের দলে সামিল করব, যাঁরা আমাদের সিস্টেমে খাপ খেয়ে যাবেন। গোটা মরশুম জুড়েই পেপ দেখিয়ে দিয়েছেন যে উনি বিভিন্ন পরিস্থিতির সঙ্গে ভিন্ন ভিন্ন পরিকল্পনার মাধ্যমে খাপ খাইয়ে নিতে পারদর্শী। তাই সঠিক সুযোগ পেলে আমরা অবশ্যই নতুন ফুটবলারের জন্য ঝাঁপাব, কিন্তু পরিস্থিতি সবদিক থেকে ঠিক না থাকলে নতুন খেলোয়াড় আমাদের দলে জরুরি নয়।’

করোনা পরিস্থিতিতে বিশ্বের প্রায় সব দলই কম বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। সিটি কর্মকর্তা মনে করছেন বর্তমান পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আবার আগের মতো স্বচ্ছল হতে ক্লাবগুলির এখনও বছরখানেক লাগবে। তবে টিভি স্বত্ব থেকে বিপুল অর্থের সুবাদে প্রিমিয়র লিগের দলগুলির ক্ষতির পরিমাণ তুলানামূলক কম। গত বছরও সিটি চড়া দামে রুবেন ডিয়াজকে কিনেছিল। এ বছর হ্যারি কেন, লিওনেল মেসিসহ একাধিক তারকা ফুটবলারের সঙ্গে সিটিজিনদের নাম জড়িয়েছে। পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে প্রিমিয়র লিগ চ্যাম্পিয়নরা কী সিদ্ধান্ত নেন এখন সেটাই দেখার।

বন্ধ করুন