বাংলা নিউজ > ময়দান > স্পিরিট অফ ক্রিকেট নিয়ে চিন্তা নয়, ফের মানকাডিং মহিলাদের ঘরোয়া ক্রিকেটে
নন স্ট্রাইকার এন্ডে মেঘনার আউট হওয়ার মুহূর্ত। ছবি- টুইটার।
নন স্ট্রাইকার এন্ডে মেঘনার আউট হওয়ার মুহূর্ত। ছবি- টুইটার।

স্পিরিট অফ ক্রিকেট নিয়ে চিন্তা নয়, ফের মানকাডিং মহিলাদের ঘরোয়া ক্রিকেটে

  • সিনিয়র উইমেন্স ট্রফির কোয়ার্টার ফাইনালে ওড়িশা, রেলওয়েজের ম্য়াচে তিন দিনে দ্বিতীয়বার ঘটল এই ঘটনা।

সাম্প্রতিক সময়ে রবিচন্দ্রন অশ্বিন, ইয়ন মর্গ্যান, ডেভিড ওয়ার্নারদের ঘিরে ক্রিকেটীয় ‘স্পিরিট’ নিয়ে গোটা বিশ্বে হইচই বেধেছে। অশ্বিনের মানকাডিং বা হাত লাগার পরেও রান নেওয়া হোক বা ওয়ার্নারের দুই ড্রপের বলে ছক্কা হাকানো, ক্রিকেটীয় ভাবমূর্তি নষ্টের জন্য সমালোচিত হয়েছেন সকলেই।

তবে শুধুমাত্র পুরুষদের শীর্ষস্তরের ক্রিকেট নয়, এবার ঘরোয়া ক্রিকেটে মহিলাদের ওয়ান ডে টুর্নামেন্টেও দেদার দেখা মিলছে মানকাডিংয়ের। মাত্র দুই দিন আগেই কণিকা আহুজা নন স্ট্রাইকারে দাঁড়িয়ে থাকা গোয়ার ইনফর্ম ব্যাটার সঞ্জুলা নায়েককে মানকাডিংয়ের মাধ্যমে আউট করেন। এরপর রেলওয়েজ এবং ওড়িশার ম্যাচেও একই ঘটনা ঘটতে দেখা যায়। রেলওয়েজের এস মেঘনা কিছুক্ষণ আগেই স্টাম্পিংয়ের হাত থেকে রেহাই পেলেও তাঁকে নন স্ট্রাইকার এন্ডে প্রিয়াঙ্কা মানকাড আউট করেন।

পুরো জিনিসটাই নিয়মের মধ্যেই পড়লেও সচরাচর অন্তত আন্তর্জাতিক স্তরে এমনটা খুব বেশি দেথা যায়না। তবে আইপিএলের ম্যাচে জোস বাটলারকে একই ভঙ্গিমায় আউট করার পর বিস্তর বিতর্কের সামনেও অশ্বিন স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিলেন তিনি সুযোগ পেলে আবারও একই কাজ করবেন। মহিলাদের ক্রিকেটে সেটাই হচ্ছে। গোটা বিষয়টা কতটা সঠিক বা ভুল এবং স্পষ্টভাবে এই নিয়ে কোনো নিয়মের প্রয়োজন আছে কিনা, এই ঘটনাগুলি ফের একবার সেই প্রশ্নগুলিকেই সামনে এনে দিল।

বন্ধ করুন