বাংলা নিউজ > ময়দান > ম্যাচ ফিক্সিং- জীবনের শেষ বেলায় অনুশোচনায় মনকষ্টে ভুগতেন হ্যান্সি, জানালেন জন্টি রোডস
হ্যান্সি ক্রোনিয়ে (ছবি:গেটি ইমেজ)

ম্যাচ ফিক্সিং- জীবনের শেষ বেলায় অনুশোচনায় মনকষ্টে ভুগতেন হ্যান্সি, জানালেন জন্টি রোডস

  • জন্টি রোডস বলেন, ‘প্রথম কয়েক মাস, তিনি ওজন বাড়িয়ে ফেলেছিলেন। নিজেকে বন্ধ করে রেখেছিলেন। তিনি খুব কম সময়ই বাড়ি থেকে বের হতেন। মাঝে মাঝে, তার কিছু ঘনিষ্ঠ বন্ধু তার বাড়িতে তাকে দেখতে আসতেন। কিন্তু তিনি কখনই জনসমক্ষে যেতেন না। কারণ তিনি ভেঙে পড়েছিলেন। তিনি প্রকৃত পক্ষে অনুশোচনায় ভুগছিলেন।’

কুখ্যাত ম্যাচ ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পরে প্রাক্তন অধিনায়ক হ্যান্সি ক্রোনিয়ের জীবনে কী ঘটেছিল তার কিছু উত্তেজনাপূর্ণ বিবরণ শেয়ার করলেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন ব্যাটসম্যান জন্টি রোডস। ২০০০ সালের এপ্রিল মাসে, ক্রোনিয়ে একটি ভারতীয় বুকির সঙ্গে ম্যাচ ফিক্সিং নিয়ে কথোপকথন করেছিলেন বলে প্রকাশ করা হয়েছিল, এবং তাকে আজীবনের জন্য ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। ক্রনিয়ে এই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করলেও তা প্রত্যাখ্যান করা হয়। জন্টি রোডস বলেছেন  যে এই রকম কিছু একটা করার জন্য বিব্রত ছিলেন ক্রোনিয়ে। 

জন্টি রোডস পডকাস্ট 'লেসনস ফ্রম দ্য ওয়ার্ল্ডস বেস্ট'-এ প্যাডি আপটনকে বলেছিলেন, ‘আমাদের সকলের কাছে পুরো ম্যাচ ফিক্সিং বিষয়টা একটা বড় ধাক্কা ছিল। আমরা এর বিস্তারিত কিছুই বুঝতে পারছিলাম না। এটা বোঝাটা সত্যিই কঠিন ছিল। কিন্তু এরমধ্যেও আশ্চর্যজনক বিষয় হল… এর পরে আমি হ্যান্সির সঙ্গে অনেকটা সময় কাটিয়ে ছিলাম। এমনকি যখন তাকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল।’ জন্টি রোডস আরও বলেন, ‘আরও অনেক খেলোয়াড় ছিল যারা ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছিল এবং তারা এমনভাবে জীবন কাটাচ্ছিল যেন কিছুই ঘটেনি। কিন্তু যা ঘটেছিল সেটা নিয়ে হ্যান্সি সত্যিই মনকষ্টে ভুগতেন।’

আরও পড়ুন… গাব্বা টেস্টে আউট হয়ে রেগে গিয়ে চিৎকার করছিলেন শুভমন গিল! কারণ জানালেন ঋষভ পন্ত

জন্টি রোডস আরও বলেন, ‘প্রথম কয়েক মাস, তিনি ওজন বাড়িয়ে ফেলেছিলেন। নিজেকে বন্ধ করে রেখেছিলেন। তিনি খুব কম সময়ই বাড়ি থেকে বের হতেন। মাঝে মাঝে, তার কিছু ঘনিষ্ঠ বন্ধু তার বাড়িতে তাকে দেখতে আসতেন। কিন্তু তিনি কখনই জনসমক্ষে যেতেন না। কারণ তিনি ভেঙে পড়েছিলেন। তিনি প্রকৃত পক্ষে অনুশোচনায় ভুগছিলেন। তিনি যা করেছিলেন তা নিয়ে তিনি মনকষ্টে ভুগতেন। এক বছর ধরে যখন আমি তাকে দেখেছি সে সবচেয়ে অস্বাস্থ্যকর ছিল।’

আরও পড়ুন… গাব্বা টেস্টে আউট হয়ে রেগে গিয়ে চিৎকার করছিলেন শুভমন গিল! কারণ জানালেন ঋষভ পন্ত 

জন্টি আরও বলেন, ‘পরে তিনি একটি নির্মাণ সরঞ্জাম কোম্পানিতে চাকরি পেয়েছিলেন। এটা দেখতে আশ্চর্য লাগত যে, সে কীভাবে নিজের জীবনের ট্র্যাক ফিরে এসেছিলেন। আমি সত্যিই দুঃখিত ছিলাম কারণ আমি বিশ্বাস করেছিলাম যে তিনি তরুণদের জন্য একটি দারুণ উদাহরণ হতে পারতেন, কিন্তু সবটা কেমন বদলে গেল।’

বন্ধ করুন