বাংলা নিউজ > ময়দান > Matthew Hayden on Rishabh Pant: ‘আমি নির্বাচক হলে প্রতিটি দলে পন্ত থাকত’, গাব্বার কষ্ট চাপলেন প্রাক্তন অজি তারকা
ঋষভ পন্ত। (ফাইল ছবি, সৌজন্যে এএনআই)

Matthew Hayden on Rishabh Pant: ‘আমি নির্বাচক হলে প্রতিটি দলে পন্ত থাকত’, গাব্বার কষ্ট চাপলেন প্রাক্তন অজি তারকা

  • টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম একাদশে পন্ত নাকি কার্তিক থাকবেন, তা নিয়ে নানা মুনি নানারকম মত দিচ্ছেন। কারও মতে, পর্যাপ্ত সুযোগ পেয়েও টি-টোয়েন্টিতে নিজের প্রতিভার প্রতি সুবিচার করতে পারছেন না পন্ত। যদিও ম্যাথু হেডেনের বক্তব্য, নির্বাচক হলে পন্তকে নিশ্চিতভাবে দলে রাখতেন।

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচের ভারতীয় দলে ছিলেন না ঋষভ পন্ত। ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের সেই সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন তুললেন ধারাভাষ্যকার ম্যাথু হেডেন। অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন ক্রিকেটারের বক্তব্য, তিনি নির্বাচক হলে প্রতিটি দলেই পন্তকে রাখতেন।  

মঙ্গলবার মোহালিতে ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়ার প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচের শুরুতে সরকারি সম্প্রচারকারী সংস্থা স্টার স্পোর্টসে হেডেন বলেন, ‘আমি নির্বাচক হলে প্রতিটি দলেই ঋষভ পন্তকে নিতাম। ও ভবিষ্যতের তারকা। ওকে সমর্থন জোগাতে হবে। ওর সময় দরকার। আমার মতে, ও যদি ফর্মে না থাকে বা রান না করে, তাহলেও ওকে দলে রাখা উচিত। প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রে ও অন্যদের থেকে ভালো খেলোয়াড়। ’

ঋষভ পন্ত নাকি দীনেশ কার্তিক?

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম একাদশে পন্ত নাকি কার্তিক থাকবেন, তা নিয়ে নানা মুনি নানারকম মত দিচ্ছেন। কারও মতে, পর্যাপ্ত সুযোগ পেয়েও টি-টোয়েন্টিতে নিজের প্রতিভার প্রতি সুবিচার করতে পারছেন না পন্ত। একাধিক গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে তাঁকে সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তাতে ব্যর্থ হয়েছেন। শেষ তিনটি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে (এশিয়া কাপে) রান পাননি। বিশেষত যে কায়দায় আউট হয়েছেন, তা নিয়ে তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েছেন। এশিয়া কাপের আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে অবশ্য খারাপ ছন্দে ছিলেন না। তার আগে ঘরের মাঠে দক্ষিণ আফ্রিকা এবং দেশের বাইরে ইংল্যান্ডে ব্যর্থ হয়েছেন। টেস্টে পন্ত যে দৃষ্টান্ত তৈরি করেছেন বা বছরছয়েক আগেও আইপিএলে যেরকম ছন্দে ছিলেন, সেই তুলনায় স্ট্রাইক রেটও অনেকটা কম। 

আরও পড়ুন: ব্যাটিং সেশন ছেড়ে কিপিং অনুশীলনে পন্ত! ক্রিকেটারের পরিশ্রমকে শ্রীধরের কুর্নিশ

সেই পরিস্থিতিতে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের একাংশ ‘নবজাগরণ’ হওয়া কার্তিককে প্রথম একাদশে রাখার পক্ষে সওয়াল করেছেন। তাঁদের বক্তব্য, ভারতীয় দলে ফের সুযোগ পেয়ে নিজেকে দারুণভাবে প্রমাণ করেছেন কার্তিক। চলতি বছর ১৯ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ১৫০ রান করেছেন। গড় ২০-র নীচে থাকলেও স্ট্রাইক রেট ১৩২.৬৬। যা পন্তের থেকে সামান্য বেশি। বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, কার্তিকের ক্ষেত্রে সবথেকে বড় সুবিধা হল যে তিনি ম্যাচ শেষ করতে আসেন। অর্থাৎ ‘ফিনিশার’-র দায়িত্ব পালন করেন। সেই কাজটায় তিনি স্পেশালিস্ট। তাই সাম্প্রতিক ফর্ম এবং নয়া ভারতের খেলার ধরণের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে কার্তিককে দলে রাখা উচিত।

আরও পড়ুন: ‘ঝুঁকি না নিলে জিতবেন কীভাবে?’ পন্ত না কার্তিক বিতর্কের সমাধান করলেন গাভাসকর

যদিও ‘ফিনিশার’ তত্ত্বেই ভিন্ন মত পোষণ করেছেন বিশেষজ্ঞদের একাংশ। তাঁদের বক্তব্য, পন্তকে ওপেনিংয়েও নামানো যেতে পারে। কিন্তু কার্তিক এখন শুধুমাত্র ‘ফিনিশার’ হিসেবে ১০-১৫ বলের জন্য খেলছেন। সেরকম খেলোয়াড় থাকলে আদৌও কি কোনও লাভ হবে ভারতের?

বন্ধ করুন