বাংলা নিউজ > ময়দান > ভোটের আগে বড় চমক, কলকাতা লিগে এ বার অংশ নিচ্ছে মতুয়াদের দল
কলকাতা লিগে অংশ নেবে মতুয়া ফুটবল দল।
কলকাতা লিগে অংশ নেবে মতুয়া ফুটবল দল।

ভোটের আগে বড় চমক, কলকাতা লিগে এ বার অংশ নিচ্ছে মতুয়াদের দল

  • মিলনবীথির সঙ্গে জোট বেঁধে এ বার প্রথম ডিভিশন লিগে খেলবে মতুয়ারা। পাঁচ বছরের জন্য কলকাতা লিগের প্রথম ডিভিশন এই ক্লাবের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে মতুয়াদের। 

মতুয়াদের লড়াই এ বার অন্য মাত্রা পেতে চলেছে। কলকাতা লিগে অংশ নেবে মতুয়াদের ফুটবল দল। যাঁর কোচ আবার মতুয়া সম্প্রদায়েরই গৌতম ঠাকুর। যিনি এক বছর মোহনবাগানে খেলেছেন। পাশাপাশি মহমেডান জার্সিতেও তাঁকে দেখা গিয়েছে। এ ছাড়াও জর্জ টেলিগ্রাফ, টালিগঞ্জ অগ্রগামী, এরিয়ান্সের মতো ক্লাবে পরিচিত মুখ ছিলেন গৌতম। পাঁচ বছরের জন্য মিলনবিথীর সঙ্গে মতুয়াদের চুক্তি হয়েছে।

কলকাতা লিগের প্রথম ডিভিশনের ক্লাব মিলনবীথি। সম্প্রতি মিলনবীথির কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকও করে ফেলেছেন বিজেপি সাংসদ এবং মতুয়া সম্প্রদায়ের গুরুমা বড় মায়ের নাতি শান্তনু ঠাকুর। মূলত রঘু নন্দী এবং গৌতম ঠাকুরের উদ্যোগেই মতুয়াদের কলকাতা ফুটবলের মূল স্ত্রোতে দেখা যাবে। পিছিয়ে পড়া মতুয়াদের সামনের সারিতেই তুলে আনতেই এই উদ্যোগ। রঘু নন্দী বলছিলেন, ‘যে ভাবে জঙ্গল মহলের সঙ্গে বাংলার ফুটবল পরিচিত হয়েছে, তেমনই কলকাতা লিগের হাত ধরে মতুয়ারাও বাংলার ফুটবলে অন্য মাত্রা এনে দেবে। আমাদের সকলকে ওদের সামনের দিকে এগিয়ে দিতে হবে। আর এটা করার জন্য ফুটবলের থেকে ভাল বিষয় কী হতে পারে!’ ভোটের আগে নিঃসন্দেহে বিজেপি-র শান্তনু ঠাকুরের এটা একটা বড় চমক।

এর আগে কলকাতা লিগ খেলতে চেয়ে মতুয়া ফুটবল ক্লাবের তরফে আইএফএকে চিঠিও দিয়েছিলেন শান্তনু ঠাকুর। কিন্তু ছাড়পত্র পাননি। আইএফএ সচিব জয়দীপ মুখোাপধ্যায় বলছিলেন, ‘গত দু'বছর ধরে আমরা নতুন করে কোনও টিমকে কলকাতা লিগের জন্য ছাড়পত্র দিতে পারছি না। কারণ এই মুহূূর্তে আইএফএ-র সেই পরিকাঠামোই নেই যে নতুন আরও দলকে কলকাতা লিগে খেলার ছাড়পত্র দেব। হয়তো ভবিষ্যতে এই জটিলতা কেটে যাবে। তখন অনেক নতুন দলকেই আবার লিগে খেলতে দেখা যাবে।’

‘মতুয়া ফুটবল ক্লাব’ হিসেবে নামতে না পারার কোনও আফসোস নেই। লিগে খেলাটাই মতুয়াদের কাছে বড় প্রাপ্তি। মিলনবীথির নতুন নাম হল ‘মতুয়া মিলনবিথী ক্লাব’। জার্সিতে দুই দলের অর্থাৎ মতুয়া ফুটবল ক্লাব এবং মিলনবিথীর লোগো থাকবে। জার্সির রঙের ক্ষেত্রেও একই বিষয়। মতুয়াদের জার্সির রং লাল-সাদা। মিলনবীথির জার্সির রং লাল-হলুদ। এই দু'টো জার্সিকেই রেখে দেওয়া হচ্ছে। ফুটবলের পুরো দায়িত্ব মতুয়া ফুটবল ক্লাবকে ছেড়ে দিচ্ছে মিলনবীথি। নিঃসন্দেহে এ বার কলকাতা লিগে মতুয়াদের দল নিয়ে সকলেরই বাড়তি আগ্রহ থাকবে।

বন্ধ করুন