বাংলা নিউজ > ময়দান > নিজেরাই নিয়ম তৈরি করে, তাই তিতো ওষুধ গিলতে বাধ্য হল MCC, দীপ্তির মানকাডিং নিয়ে নিজেদের রায় জানাল লর্ডস

নিজেরাই নিয়ম তৈরি করে, তাই তিতো ওষুধ গিলতে বাধ্য হল MCC, দীপ্তির মানকাডিং নিয়ে নিজেদের রায় জানাল লর্ডস

মানকাডিং করছেন দীপ্তি শর্মা। (ছবি সৌজন্যে টুইটার)

MCC's Verdict On Deepti Sharma's Mankading: লর্ডসে চার্লি ডিনকে দীপ্তি শর্মার মানকাডিং নিয়ে নিজেদের রায় জানাল মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব, যারা ক্রিকেটের অন্যতম নিয়ামক সংস্থা।

নিজেরাই নিয়ম তৈরি করে। তবে নিজেদের খাস তালুকে এমন ছবি দেখতে হবে, তা বোধহয় আগে থেকে অনুমান করতে পারেনি মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব। তাই চার্লি ডিনকে দীপ্তি শর্মার মানকাডিং নিয়ে জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে ব্রিটিশ প্রাক্তনীদের দাবিকে সমর্থন করতে পারল না এমসিসি।

শনিবার লর্ডসে ইংল্যান্ডের চার্লি ডিনকে নন-স্ট্রাইকার প্রান্তে রান-আউট করেন দীপ্তি শর্মা। দীপ্তির এই মানকাডিংয়ে দীর্ঘদিনের বিতর্কে ঘি পড়ে। আইসিসির নিয়ম ও ক্রিকেটের স্পিরিট নিয়ে টানাপোড়েন শুরু হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

নন-স্টাইকার প্রান্তে রান-আউট বা মানকাডিং যে আইসিসির নিয়মে বৈধ, সেটা জানেন সবাই। তবে নৈতিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন অনেকেই। বিশেষ করে নিজেদের দূর্গে আঘাত লাগার পরে ইংল্যান্ডের প্রাক্তন ক্রিকেটাররা এই নিয়ে সুর চড়াতে শুরু করেন। স্টুয়ার্ট ব্রড, জেমস অ্যান্ডারসন, নাসের হুসেন, স্যাম বিলিংসরা দীপ্তির সমালোচনা করেন। যদিও অ্যালেক্স হেলস, মন্টি পানেসরের মতো ইংল্যান্ডের তারকারা ভিন্নমত পোষণ করেন।

ভারতীয় ক্রিকেটমহল তো বটেই, এমনকি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটমহলের অনেকেই মানকাডিং নিয়ে সমর্থন করেন দীপ্তিকে। ভারতের ক্যাপ্টেন হরমনপ্রীত কউর তো জোর গলায় মাঠেই জানিয়ে দেন যে, তিনি দীপ্তিকে পূর্ণ সমর্থন করছেন। কারণ, নিয়মের বাইরে গিয়ে কোনও কাজ করেননি দীপ্তি।

আরও পড়ুন:- কয়েক মিলিমিটার বেরিয়েছিল পা, দীপ্তির নো-বলের জন্য বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গিয়েছিল ভারত, তাহলে লর্ডসের মানকাডিংয়ে দোষ কোথায়?

নৈতিক নাকি অনৈতিক, এই বিষয়ে টানাপোড়েনের মাঝেই এমসিসি বিজ্ঞপ্তি জারি করে বিষয়টি স্পষ্ট করে দেয়। বলাবাহুল্য, ক্রিকেটের অন্যতম নিয়ামক সংস্থা হিসেবে দীপ্তির কাজকে সমর্থন করে মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব।

এমসিসির বিজ্ঞপ্তিতে জানানে হয়, আইসিসির নিয়মে এটা স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে যে, বোলার বল ছাড়ার আগে পর্যন্ত নন-স্ট্রাইকার ব্যাটার যাতে ক্রিজ না ছাড়েন, সেটা নিশ্চিত করার দায়িত্ব ব্যাটারেরই। আগামী ১ অক্টোবর থেকেই সরকারিভাবে মানকাডিং ‘আনফেয়ার প্লে-র' সারি থেকে রান-আউটের পর্যায়ে উন্নীত হবে।

আরও পড়ুন:- মানকাডিং নিয়ে প্রশ্ন করতেই সপাটে ব্যাট চালালেন হরমনপ্রীত, ব্রিটিশ প্রেজেন্টারকে দিলেন মোক্ষম জবাব: ভিডিয়ো

উল্লেখ্য, আইসিসির নিয়মে মানকাডিং কখনই অবৈধ ছিল না। তবে এই নিয়ে বেড়ে চলা বিতর্কের দিকে তাকিয়েই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা বিষয়টিকে সরাসরি রান-আউট হিসেবে চিহ্নিত করার সিদ্ধান্ত নেয়। যদিও তার পরেও ক্রিকেটের স্পিরিট নিয়ে চর্চায় ইতি পড়েনি।

শনিবার লর্ডসে ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজের তৃতীয় তথা শেষ ওয়ান ডে ম্যাচে ঘটে এমন ঘটনা। দ্বিতীয় ইনিংসের ৪৪তম ওভারে নন-স্ট্রাইকার প্রান্তে চার্লি ডিনকে রান-আউট করেন ভারতের দীপ্তি শর্মা। ওভারের চতুর্থ বল করার জন্য দৌড় শুরু করেন তিনি। তবে ডেলিভারির আগেই ক্রিজ ছেড়ে বাইরে বেরিয়ে যান ইংল্যান্ডের নন-স্ট্রাইকার ব্যাটার চার্লি। বিষয়টি নজর এড়ায়নি ভারতীয় অল-রাউন্ডারের। তিনি তৎক্ষণাৎ স্টাম্পে বল লাগিয়ে বেল ফেলে দেন। ফিল্ড আম্পায়াররা বল ঠেলে দেন তৃতীয় আম্পায়ারের কোর্টে। টেলিভিশন আম্পায়ার রিপ্লে দেখে চার্লি ডিনকে আউট ঘোষণা করেন।

বন্ধ করুন