বাংলা নিউজ > ময়দান > জো রুট, বেন স্টোকসদের বিরুদ্ধে তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ মাইকেল হোল্ডিংয়ের
মাইকেল হোল্ডিং। ছবি- রয়টার্স।
মাইকেল হোল্ডিং। ছবি- রয়টার্স।

জো রুট, বেন স্টোকসদের বিরুদ্ধে তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ মাইকেল হোল্ডিংয়ের

  • অবসর নেওয়ার পর হোল্ডিং এখন ইংল্যান্ডেই বসবাস করেন।

বর্ণবৈষম্যের বিরুদ্ধে আমেরিকার ঘটনায় গত বছর থেকেই বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে প্রতিবাদ চলছে। প্রতিবাদের প্রতীকস্বরূপ হাঁটু মুড়ে বসার চল এখন সর্বত্র। ইংল্যান্ডে বিশেষত ফুটবল ম্যাচের আগে সব দলের ফুটবলাররাই প্রতিবাদ জানানোর জন্য হাঁটু মুড়ে বসে থাকেন।

তবে দেখনদারীই সব। বর্ণবৈষম্য রুখতে ইউনাইটেড কিংডম সরকারের ভূমিকায় একেবারেই খুশি নন ওয়েস্ট ইন্ডিজের কিংবদন্তি ক্রিকেটার ও বর্তমানে ইংল্যান্ডনিবাসী মাইকেল হোল্ডিং। গত বছরের পর ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের হাঁটু মুড়ে বসার চল বন্ধ করাও নিয়েও ক্ষুব্ধ হোল্ডিং।

স্কাই স্পোটর্সের দ্য ক্রিকেট শোতে হোল্ডিং বলেন, ‘আমার মনে হয় বিশ্বের সকলেই জানে যে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ মুভমেন্টের প্রতীক হিসাবেই হাঁটু মুড়ে বসার চল। আমি জানি না এটা করা এমন কী কঠিন কাজ। আপনার নিজে থেকে এ বিষয়ে চেতনা আসা দরকার, নিজে থেকে আপনাকে বুঝতে হবে যে কোথাও কিছু ভুল হচ্ছে এবং সেই ভুলের প্রতিবাদ হিসাবেই এই প্রতীক ব্যবহার করা হচ্ছে। বর্ণবৈষম্য রুখতে যদি না আমরা যথেষ্ট পদক্ষেপ নিয়ে থাকি এবং সবকিছু আস্তে আস্তে ঠিক হওয়ার দিকে এগোয়, তাঁর আগে এইটুকু করতে সমস্যা কোথায়? বিশেষত যখন বিশ্বের সকলেই জানে হাঁটু মুড়ে বসার মধ্যে দিয়ে আপনি বর্ণবৈষম্যের প্রতিবাদ জানাচ্ছেন।’

কটাক্ষের সুরে সরকারকেও বিঁধতে ছা়ড়েননি হোল্ডিং। তাঁর দাবি তিনি এখনও খেলা চালিয়ে গেলে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ মুভমেন্টের প্রতীক হিসাবে হাঁটু মুড়ে বসতে থাকলে আমৃত্যু অবধি তাঁর হাঁটুতে ক্ষত হতে থাকবে। দেশের বিভিন্ন সংস্থাকেও এই সমস্যার প্রতিবাদে সর্বসমক্ষে পদক্ষেপ নিতে দেখতে চান বলে জানিয়েছেন এই প্রাক্তন ক্যারিবিয়ান ফাস্ট বোলার।

বন্ধ করুন