বাংলা নিউজ > ময়দান > সমস্যায় মাইকেল ভন! ইয়র্কশায়ার বর্ণবাদ বিতর্কে অভিযুক্তের তালিকায় বড় তারকারা
রিক লুইস ও মাইকেল ভন (ছবি-এএফপি) (AFP)

সমস্যায় মাইকেল ভন! ইয়র্কশায়ার বর্ণবাদ বিতর্কে অভিযুক্তের তালিকায় বড় তারকারা

  • আজিম রফিকের করা বর্ণবাদের অভিযোগের ভিত্তিতে ইয়র্কশায়ার ও ক্লাবের সদস্যদের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ এনেছে ইসিবি। ইংল্যান্ড ও ওয়েলশ ক্রিকেট বোর্ড ইয়র্কশায়ার কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ এনেছে। বিভিন্ন রিপোর্টে মাইকেল ভনের নাম উঠে আসছে।

আজিম রফিকের করা বর্ণবাদের অভিযোগের ভিত্তিতে ইয়র্কশায়ার ও ক্লাবের সদস্যদের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ এনেছে ইসিবি। ইংল্যান্ড ও ওয়েলশ ক্রিকেট বোর্ড ইয়র্কশায়ার কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ এনেছে। বিভিন্ন রিপোর্টে মাইকেল ভন সহ বেশ কয়েকজন বিখ্যাত প্রাক্তন ইংল্যান্ড ক্রিকেটারের নাম উঠে আসছে। বর্ণবাদের অভিযোগে গভর্নিং বডি স্পষ্ট করেছে যে তারা কাউন্টির বিরুদ্ধে অভিযোগ আরোপের আগে একটি পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্ত করেছে। ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে, আজিম রফিক ক্লাবের বিরুদ্ধে বর্ণবাদের অভিযোগ এনে বলেছিলেন যে, তিনি আত্মহত্যার কথা ভেবেছিলেন। এখন ক্লাবের বিরুদ্ধে আরোপিত অভিযোগ এই বিষয়টির সঙ্গে সম্পর্কিত।

যাদের অভিযুক্ত করা হয়েছে তাদের নাম প্রকাশ করা হয়নি, তবে বোর্ড তাদের নিষিদ্ধ বা জরিমানা করতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে। রফিকের অভিযোগের পরে এখন পর্যন্ত ১৬ জনের নাম উঠে আসছে। ইংলিশ বোর্ড আশা করছে সেপ্টেম্বর বা অক্টোবরে শুনানি হবে এবং তারপর সে অনুযায়ী মামলার সিদ্ধান্ত সকলের সামনে আনা হবে। আজিম রফিক জানিয়েছিলেন, অশ্বেতাঙ্গ ক্রিকেটারদের ‘ভিন্ন’ নামে ডাকা, এশিয়ান ক্রিকেটারদের টয়লেটের পাশে বসতে বলা, মুখে দাড়ি আছে, এমন কাউকে দেখলে তাঁকে ‘তোমার বাবা কি না’ জিজ্ঞাসা করা হত ইয়র্কশায়ার কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবে। রফিক বলেছিলেন এসব বর্ণবৈষম্যমূলক আচরণের শিকার হয়েছেন তিনি। তাই এর বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন ইয়র্কশায়ার ও ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দলের প্রাক্তন অধিনায়ক আজিম রফিক। ‘ডিজিটাল, কালচার, মিডিয়া ও স্পোর্ট সিলেক্ট’ নামক যুক্তরাজ্যের সাংসদদের এক কমিটির সামনে এসব অভিযোগ তুলেছেন রফিক। নিজের স্থানীয় এক ক্লাবে তাঁকে জোর করে মদ খাওয়ানোর অভিযোগও এনেছিলেন তিনি।

ক্রিকেটের আরও খবর পড়তে ক্লিক করুন এখানে…

ইয়র্কশায়ার কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাব এবং গভর্নিং বডি এই অভিযোগের তদন্তের করে। পরে ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড তরফ থেকে বুধবার একটি বিবৃতি জারি করা হয়েছে। এই বিবৃতিতে ইসিবি জড়িত কারও নাম উল্লেখ করেনি তবে ইংরেজি দৈনিক দ্য মেইলপ্লাস জানিয়েছে, প্রাক্তন ইংলিশ অধিনায়ক মাইকেল ভন, ম্যাথিউ হগার্ড, টিম ব্রেসনান, গ্যারি ব্যালেন্স এবং প্রাক্তন প্রধান কোচ অ্যান্ড্রু গেলের মতো কিছু হাই-প্রোফাইল নাম রয়েছে।

ক্রিকেটের আরও খবর পড়তে ক্লিক করুন এখানে…

আজিম রফিক বোর্ডের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন। রফিক বোর্ডের সর্বশেষ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন এবং তিনি আশাবাদী যে শীঘ্রই শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। ৩১ বছর বয়সী রফিক বিশ্বাস করেন যে অন্য কোনও তরুণ খেলোয়াড়ের এমন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাওয়া উচিত নয় এবং শুনানিটি প্রকাশ্যে আনা উচিত। আজিম রফিক বলেন, ‘আমি ইংলিশ বোর্ডের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই এবং আশা করি আমরা শুনানি নিয়ে এগিয়ে যেতে পারব। এটি একটি প্রয়োজনীয় প্রক্রিয়া। আমার অভিজ্ঞতা জনসমক্ষে শেয়ার করার পর আমার জন্য দীর্ঘ দুই বছর অপেক্ষা করা হয়েছে, কিন্তু এখন আমি আশা করি অন্য কোনো তরুণ খেলোয়াড়কে এমন কষ্ট ও কষ্টের মধ্য দিয়ে যেতে হবে না। আমি চাই এই শুনানিটি সর্বজনীনভাবে অনুষ্ঠিত হোক, কিন্তু আমি আশা করছি যে অন্তত আমরা এমন জায়গায় পৌঁছেছি যেখানে আমার এবং আমার পরিবারের জন্য কিছুটা স্বস্তি হবে।’

বন্ধ করুন