বাংলা নিউজ > ময়দান > বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগে ধারাভাষ্য থেকে সরানো হয়েছে, নেটমাধ্যমে হতাশা প্রকাশ ভনের
মাইকেল ভন।
মাইকেল ভন।

বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগে ধারাভাষ্য থেকে সরানো হয়েছে, নেটমাধ্যমে হতাশা প্রকাশ ভনের

  • ইয়র্কশায়ার ক্রিকেটে যে বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগ উঠেছে, সেখানেই জড়িয়ে গিয়েছে ভনের নাম। ইয়র্কশায়ারের ক্রিকেটার আজিম রফিক অভিযোগ করেন ভনের বিরুদ্ধে। এর পরেই মাইকেল ভনকে ধারাভাষ্যের দায়িত্ব সরিয়ে দেয়ে নেয় বিবিসি।

বিবিসি-র হয়ে অ্যাশেজে ধারাভাষ্য দেওয়ার কথা ছিল মাইকেল ভনের। পাশাপাশি ক্রিকেট বিশ্লেশক হিসেবেও বিবিসি-তে যুক্ত ছিলেন তিনি। কিন্তু বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগের জেরে মাইকেল ভনকে সেই দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়েছে বিবিসি। আর এতেই একেবারে হতাশ ইংল্যান্ডের প্রাক্তন অধিনায়ক। তিনি পরিষ্কার বলে দিয়েছেন, তাঁর কাছে এই বিষয়টি রীতিমতো হতাশার।

ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্টে মাইকেল ভন লিখেছেন, ‘অ্যাশেজে টিএমসি-এর জন্য ধারাভাষ্য না করতে পারায় খুবই হতাশ এবং অসাধারণ সব সহকর্মী ও বন্ধুদের খুবই মিস করব। তবে অস্ট্রেলিয়ার ফক্স ক্রিকেট-এর জন্য মাইকের পিছনে থেকে কাজ করার জন্য উন্মুখ হয়ে রয়েছি। ক্রিকেটের সমস্যাগুলি যে কোনও ব্যক্তিগত ক্ষেত্রের চেয়ে বড় এবং আমি সেটা সমাধানের চেষ্টা করতে চাই। শুনতে চাই, নিজেকে শিক্ষিত করতে চাই।’

ইয়র্কশায়ার ক্রিকেটে যে বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগ উঠেছে, সেখানেই জড়িয়ে গিয়েছে ভনের নামও। ইয়র্কশায়ারের ক্রিকেটার আজিম রফিক অভিযোগ করেন ভনের বিরুদ্ধে। এর পরেই এমন সিদ্ধান্ত নেয় বিবিসি। রফিকের অভিযোগ অনুযায়ী, ভন নাকি বলেছিলেন, ‘দলে খুব বেশি তোমাদের মতো লোক হয়ে যাচ্ছে, এটা নিয়ে কিছু একটা করতে হবে।’ ২০০৯ সালের সেই ঘটনা যদিও অস্বীকার করেছিলেন ভন। তবু শেষ রক্ষা হল না। বিবিসি-র তরফে বলা হয়েছে, ‘ক্রিকেটের এমন কিছু ঘটনার সঙ্গে ভনের নাম জড়িয়ে গিয়েছে যে এই মুহূর্তে তাঁকে অ্যাশেজের সঙ্গে যুক্ত করা ঠিক হবে না।’

বন্ধ করুন