বাংলা নিউজ > ময়দান > দলে ১১২ কেজির শার্জিল, ওজন ‘সইতে’ পারছেন না পাক কোচ মিসবাহ, একই অবস্থা বাবরের
শার্জিল খান। (ফাইল ছবি, সৌজন্য টুইটার পাকিস্তান ক্রিকে়ট বোর্ড)
শার্জিল খান। (ফাইল ছবি, সৌজন্য টুইটার পাকিস্তান ক্রিকে়ট বোর্ড)

দলে ১১২ কেজির শার্জিল, ওজন ‘সইতে’ পারছেন না পাক কোচ মিসবাহ, একই অবস্থা বাবরের

  • তাহলে কোচ এবং অধিনায়কের কথায় পাত্তা না দিয়েই দল নির্বাচন?

শুভব্রত মুখার্জি

ক্রিকেট খেলায় এখন ফিটনেসের একটা আলাদাই গুরুত্ব আছে। ব্যাট বা বল হাতে যত প্রতিভাবানই হোন না কেন, ফিটনেস ভালো না হলে বারবার দুর্বলতা প্রকাশ পেয়ে যাবে। সদ্য স্থগিত হয়ে যাওয়া পাকিস্তান সুপার লিগে পাঁচ ম্যাচে ২০০ রান করেছিলেন বাঁ-হাতি ওপেনার শার্জিল খান। স্ট্রাইক রেট ১৭০.৯৪। এবারের পিএসএলের একমাত্র শতরানকারী তিনি। শার্জিল খান ধারাবাহিকভাবে রান করেছেন। আর ব্যাট হাতে তার এই ফর্ম তাঁকে ফের জায়গা করে দিয়েছিল পাকিস্তানের জাতীয় টি-টোয়েন্টি দলে।

কিন্তু তাঁকে নিয়ে বেজায় অখুশি জাতীয় দলের কোচ তথা প্রাক্তন অধিনায়কমিসবা-উল -হক। এর প্রধান কারণ শার্জিল স্থূল। ১১২ কিলোগ্রাম ওজন এই মুহূর্তে তার। তাই শার্জিলের প্রথম একাদশে জায়গা হয়নি। মিসবাহের মত, শার্জিল ক্রিকেট খেলার উপযুক্ত নন। শার্জিলের অত্যধিক ওজনের কারনেই এমন ভাবনা মিসবাহর। এই ইস্যুতে আবার কোচের সঙ্গে এক মেরুতে অবস্থান করছেন অধিনায়ক বাবর আজমও। তবে এই মতের একেবারে বিরোধী প্রধান নির্বাচক মহম্মদ ওয়াসিম। তাঁর বক্তব্য, 'দলে জায়গা পাওয়ার ক্ষেত্রে ফিটনেস এক মাত্র মাপকাঠি নয়। গতবছর শার্জিল ছন্দে ছিল না। কিন্তু এবার ওর ব্যাটে রান এসেছে। কেউ রান করলে তাঁকে কোন যুক্তিতে দলের বাইরে রাখব‌! এটা সম্ভব নয়।'

প্রসঙ্গত, আগেও একাধিক স্থূল ক্রিকেটারদের দেখা গিয়েছে। যাঁরা মোটা হওয়া সত্ত্বেও ভালো পারফরম্যান্স করেছেন। অর্জুন রনতুঙ্গা, ডেভিড বুন, ইনজামাম-উল-হক এরকম একাধিক উদাহরণ রয়েছে। সাম্প্রতিককালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের রাখিম কর্নওয়াল বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টেস্ট ম্যাচে পাঁচ উইকেট নেন। তাঁর ওজন প্রায় ১৪০ কিলো।

বন্ধ করুন