বাংলা নিউজ > ময়দান > লাগাতার ২৩ ম্যাচ হারার বিশ্বরেকর্ডের পর অবশেষে শাপমুক্তি মিজোরামের
টি-২০ ম্যাচে প্রথম জয় মিজোরামের 
টি-২০ ম্যাচে প্রথম জয় মিজোরামের 

লাগাতার ২৩ ম্যাচ হারার বিশ্বরেকর্ডের পর অবশেষে শাপমুক্তি মিজোরামের

  • চলতি সৈয়দ মুস্তাক আলি টি-২০ ট্রফিতে তো বটেই নিজেদের টি-২০ ইতিহাসে প্রথম জয় তুলে নিল ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্য মিজোরাম। বলা বাহুল্য তাদের কাছে এই জয় নিঃসন্দেহে ঐতিহাসিক।

শুভব্রত মুখার্জি: চলতি সৈয়দ মুস্তাক আলি টি-২০ ট্রফিতে তো বটেই নিজেদের টি-২০ ইতিহাসে প্রথম জয় তুলে নিল ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্য মিজোরাম। বলা বাহুল্য তাদের কাছে এই জয় নিঃসন্দেহে ঐতিহাসিক। ২৩ টি ম্যাচে টানা হারের পরে ২৪ তম ম্যাচে এল সাফল্য। চলতি মুস্তাক আলি ট্রফিতে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের অপর রাজ্য মনিপুরের বিরুদ্ধে সহজ জয় তুলে নিয়ে তারা এই ঐতিহাসিক জয় পেল।

মুলাপাডুতে অনুষ্ঠিত এই ম্যাচে তারা কার্যত সহজ জয় পেল। উল্লেখ্য বিশ্ব ক্রিকেটে মিজোরাম একমাত্র দল যারা নিজেদের প্রথম ২৩ ম্যাচের ২৩ টিতেই হারের মুখ দেখেছিল। তাদের এই 'লজ্জার' নজিরের কাছাকাছি রয়েছে বারমুডা এবং সিকিমের নজির। তারা নিজেদের প্রথম ১২ টি-২০ ম্যাচে হারের মুখ দেখেছিল। প্রসঙ্গত এদিন প্রথমে ব্যাট করতে নামে মনিপুর। মিজোরাম বোলারদের নিখুঁত লাইন লেন্থের সামনে একেবারেই ছন্দহীন ছিল মনিপুরের ইনিংস। তারা তাদের নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১০০ রান করতে সমর্থ হয়‌।

এদিন মনিপুরের হয়ে নীতেশ সেডাই (২০),ল্যাঙ্গলোনিয়াম্বা (৩১) এবং জনসন সিং (২৭) ভাল রান পেলেও যোগ্য সঙ্গতের অভাবে দলকে বেশিদূর এগিয়ে নিয়ে যেতে পারেননি। মিজোরামের হয়ে দুটি করে উইকেট পান রেমরুয়াতডিকা রালতে এবং ববি জোথানসাঙ্গা। জয়ের জন্য রান তাড়া করতে নেমে মাত্র ১৫ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ১০৫ রানে পৌঁছে সহজে ম্যাচটা জিতে যান তারা। উদয় কৌল ৩১ এবং তরুভর কোহলি ৩৮ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন। ইকবাল আবদুল্লা অপরাজিত থাকেন ১৬ রানে।

বন্ধ করুন