বাড়ি > ময়দান > তারকা সমৃদ্ধ দল নিয়ে প্রাক-মরশুম প্রস্তুতি শুরু মহামেডানের
অনুশীলনে মহামেডান ফুটবলাররা। ছবি- মহামেডান স্পোর্টিং।
অনুশীলনে মহামেডান ফুটবলাররা। ছবি- মহামেডান স্পোর্টিং।

তারকা সমৃদ্ধ দল নিয়ে প্রাক-মরশুম প্রস্তুতি শুরু মহামেডানের

  • ঘরের মাঠে প্রথম দিনের অনুশীলনের পর কল্যাণীতে সরকারি নির্দেশিকা মেনে আবাসিক শিবির সাদা-কালো ব্রিগেডের।

অবশেষে ফুটবলারদের পায়ের ছোঁয়া পেল কলকাতা ময়দান। মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গল নয়, সদলবলে প্রস্তুতিতে নেমে পড়ল মহামেডান স্পোর্টিং। লকডাউনের পর প্রথম কোনও ভারতীয় ফুটবল ক্লাব প্রস্তুতির জন্য মাঠে নামল এতদিনে।

কলকাতা লিগের ভবিষ্যৎ এখনও নিশ্চিত নয়। তবে আই লিগ এবং আইএসএলের আগে শুরু হবে দ্বিতীয় ডিভিশন আই লিগ কোয়ালিফায়ার। সেক্ষেত্রে ইস্টবেঙ্গল ও এটিকে-মোহনবাগানের আগেই মাঠে নামতে হবে মহামেডান স্পোর্টিংকে। আই লিগের আঙিনায় ফিরে আসতে মরিয়া সাদা-কালো ব্রিগেড এবরা সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপাতে চাইছে দ্বিতীয় ডিভিশনে। সেই লক্ষ্যে তারা তারকা সমৃদ্ধ দল গড়েছে এবার।

নতুন কোচ ইয়ান ল'র তত্ত্বাবধানে সোমবার নিজেদের মাঠেই অনুশীলেন শুরু করে দেয় মহামেডান। সঙ্গে ছিলেন ক্লাবের ফুটবল সচিব তথা টেকনিক্যাল ডিরেক্টর দীপেন্দু বিশ্বাস। পুরোদস্তুর প্রাক-মরশুম প্রস্তুতি শিবিরের জন্য মহামেডান কল্যাণীতে শুরু করছে আবাসিক শিবির।

রাজ্য সরকার ও ফেডারেশনের করোনা সংক্রান্ত নির্দেশিকা মেনেই আবাসিক শিবিরে অনুশীলন সারবে মহামেডান। সেই সঙ্গে ক্লাবের নিজেদের কিছু বিধি-নিষেধও মেনে চলতে হবে ফুটবলারদের।

দলের সঙ্গে একজন ডাক্তার থাকবেন সারাক্ষণ। করোনা টেস্ট ছাড়াও সপ্তাহে তিন-চারবার ফুটবলারদের রুটিন মেডিক্যাল টেস্টও করা হবে। ফুটবল সচিব দীপেন্দুকে স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে অত্যন্ত সজাগ দেখাচ্ছে। 

কার্যত একটা বায়ো-বাবলের মধ্যেই রাখা হবে ফুটবলার ও কোচিং স্টাফদের। মাঠ ও হোটেলের বাইরে ঘোরাফেরার অনুমতি দেওয়া হবে না কাউকে। স্বাভাবিকভাবেই অনুশীলন হবে রুদ্ধদ্বার স্টেডিয়ামে। ক্লাবের তরফে শিবিরের আগেই ফুটবলারদের কার্যত হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে যে, নিয়ম ভাঙলে শাস্তি হতে পারে। সোমবারই মহামেডান দ্বিতীয় ডিভিশন আই লিগের জন্য দল ঘোষণা করে।

গোলকিপার:- প্রিয়ান্ত সিং, জাফর মণ্ডল, শুভম রায়, মিরাজ আলি।

ডিফেন্ডার:- শফিউল রহমান, শৌভিক ঘোষ, হীরা মণ্ডল, সুজিত সাধু, অরিজিৎ সিং, এজে কিংসলে, আনোয়ার আলি, বলবিন্দর সিং, নবি হুসেন খান।

মিডফিল্ডার:- অভিষেক রিজাল, সত্যম শর্মা, ফিরোজ আলি, তীর্থঙ্কর সরকার, সূরজ রাওয়াত, ভানলালবিয়া ছাঙতে, সেনা ফানাই, সঞ্জীব ঘোষ, লালরিনজুয়ালা, আদিত্য সাহা, মঈনুদ্দিন খান, শেখ ফৈয়জ, স্যামুয়েল শাদাপ, সোহেল খাত্রি।

ফরোয়ার্ড:- উইলিস প্লাজা, জসকরনপ্রীত সিং, এমএস দাংলিয়ানা, শামসদ আলি, হিমাংশু জাংরা, প্রীতম সরকার।

বন্ধ করুন