রবিবার মোহনবাগান - ট্রাউ ম্যাচের একটি দৃশ্য
রবিবার মোহনবাগান - ট্রাউ ম্যাচের একটি দৃশ্য

ট্রাউকে ৩-১-এ হারিয়ে আই লিগ খেতাবের আরও কাছে মোহনবাগান

এদিন খেলা শুরুর ২২ মিনিটের মধ্যেই ৩ গোল দাগেন মোহনবাগানের খেলোয়াড়রা। ১৩ মিনিটে প্রথম গোল করেন গোঞ্জালেজ।

দিন যত যাচ্ছে ততই যেন গতি বাড়ছে মোহনবাগানের। আর সেই গতিতেই এবার উড়ে গেল ট্রাউ এফসি। রবিবার বিকেলে তাদের ৩-১ গোলে হারাল সবুজ মেরুন। সব ক’টি গোলই হয়েছে প্রথমার্ধে। মোহনবাগানের হয়ে এদিন গোল করেন গোঞ্জালেজ, বেইতিয়া ও বাবা দিওয়ারা। এই জয়ের ফলে নিশ্চিত আই লিগ জয়ের দিকে আরেক ধাপ এগিয়ে গেল গঙ্গাপারের ক্লাব। যার ফলে আসন্ন ডার্বির প্রাসঙ্গিকতা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করল ময়দানে।

এদিন খেলা শুরুর ২২ মিনিটের মধ্যেই ৩ গোল দাগেন মোহনবাগানের খেলোয়াড়রা। ১৩ মিনিটে প্রথম গোল করেন গোঞ্জালেজ। পেনাল্টি থেকে গোল করেন তিনি। শেখ সুরাহের পাস থেকে গোলটি করে বেইতিয়া। ২২ মিনিটে বাবা দিওয়ারার গোলে ৩-০ গোলে এগিয়ে যায় মোহনবাগান।

৩২ মিনিটের মাথায় জোয়েল সানডে একটি গোল শোধ করেন। গোটা খেলায় আর কোনও গোল হয়নি। দ্বিতীয়ার্ধে অতিরিক্ত আগ্রাসী ফুটবল ফেলতে গিয়ে লালকার্ড দেখেন মোহনবাগানের তুরসুনভ। যার জেরে শেষের প্রায় ২০ মিনিট ১০ জনে খেলতে হয় মোহনবাগানকে। তবে তাতেও গোলের দরজা খুলতে পারেনি পাহাড়ের দলটি।

এদিনের জয়ের ফলে ১৪ ম্যাচে ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে গেল মোহনবাগান। ২২ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে পঞ্জাব। ২০ পয়েন্টে তৃতীয় চার্চিল ব্রাদার্স।

মোহনবাগানের এদিনের জয়ে ১৫ মার্চের ডার্বির আগেই লিগের ফয়সলা হয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন অনেকে। বলে রাখি, এই ডার্বিই আই লিগের ইতিহাসে শেষ ডার্বি। এর পর আই লিগে আর খেলবে না মোহনবাগান। আগামী মরশুম থেকে ISL-এ দেখা যাবে তাদের।



বন্ধ করুন