বাংলা নিউজ > ময়দান > ও শাকিব নাকি! মুস্তাফিজুরের টেস্ট না খেলার সিদ্ধান্তে চটে লাল প্রাক্তন অধিনায়ক
বাংলাদেশের টেস্ট জার্সিতে মুস্তাফিজুর রহমান (মাঝে)। ছবি- এএফপি।
বাংলাদেশের টেস্ট জার্সিতে মুস্তাফিজুর রহমান (মাঝে)। ছবি- এএফপি।

ও শাকিব নাকি! মুস্তাফিজুরের টেস্ট না খেলার সিদ্ধান্তে চটে লাল প্রাক্তন অধিনায়ক

  • গত মাসে এক সাক্ষাৎকারে মুস্তাফিজুর টেস্ট খেলার বিষয়ে নিজের অনিচ্ছার কথা প্রকাশ করেন।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বাংলাদেশ তারকা মুস্তাফিজুর রহমান টেস্ট খেলায় নিজের অনিচ্ছার কথা প্রকাশ করেছেন। বদলে সীমিত ওভারের ক্রিকেটেই তিনি মনোনিবেশ করতে চান। মুস্তাফিজুরের এই মন্তব্য একেবারেই ভালভাবে নিচ্ছেন না খালেদ মাহমুদ।

প্রাক্তন বাংলাদেশ অধিনায়ক তথা বাংলাদেশ পুরুষ দলের ডিরেক্টরের মতে বাংলাদেশ সিনিয়র ক্রিকেটারদেরই তাঁরা কোন ফর্ম্যাট খেলতে চান বা চান না তার বিকল্প দেওয়া হয়েছে। ২৬ বছরের মুস্তাফিজুর এখনও সিনিয়র ক্রিকেটারদের মধ্যে পড়েন না। তিনি সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন, ‘পাপন ভাই (নাজমুল হাসান) বলেছিলেন ক্রিকেটাররা কোন ফর্ম্যাট খেলতে চান সেই নিয়ে আলোচনা করতে পারবেন। তবে এটা শুধু সিনিয়র ক্রিকেটারদের জন্য, সকলের জন্য নয়। জয় যদি বলে উঠে যে ও টেস্ট খেলবে না, তাহলে কি ঠিক হবে? মুস্তাফিজুরের বয়স কত? কতদিন ধরে খেলছে ও? ও শাকিব, তামিম, মাশরাফি বা মুশফিকুর নয়। আমি জানি না কেন ও টেস্ট খেলতে চায় না। বোর্ডের উচিক কোন ক্রিকেটার কোন ফর্ম্যাট খেলবে তা বিচার করা।’

মাহমুদ অবশ্য মুস্তাফিজুরকে সব টেস্টে খেলতে বলছেন না। সীমিত সংখ্যক টেস্ট খেলার জন্য তিনি পরামর্শ দিচ্ছেন এবং মুস্তাফিজুরের জৈব বলয়ের ক্লান্তির অজুহাতও মাহমুদ মানতে নারাজ। ‘শাকিব-তামিমের এখন ৩৪-৩৫ বছর বয়স। ওদের বিরতি প্রয়োজন। তবে লিটন দাসের বিরতির দরকার নেই। ও শাকিব, তামিমের জায়গায় পৌঁছলে তখন বলব না হয় ওর বিরতি লাগবে। মুস্তাফিজের টেস্ট খেলা উচিত। এটা ওর সেরা সময়। আমি বলছি ওকে সব ম্যাচ খেলতে হবে, তবে বছরে ছয় থেকে আটটা টেস্ট ওর খেলা উচিত। আমি শুনেছিলাম ও জৈব বলয়ের ক্লান্তির জন্য খেলতে চাইছে না। তবে এখন তো আর সেই সমস্যা নেই। তাসকিন, শরিফুল যদি খেলতে পারে, তাহলে ও খেলতে পারবে।’ দাবি মাহমুদের।

বন্ধ করুন