বাংলা নিউজ > ময়দান > আমার পরিবার পাশে ছিল, তাই জাতীয় দলে প্রত্যাবর্তন করতে পেরেছি- আবেগপ্রবণ রাহানে

আমার পরিবার পাশে ছিল, তাই জাতীয় দলে প্রত্যাবর্তন করতে পেরেছি- আবেগপ্রবণ রাহানে

স্ত্রী এবং মেয়ের সঙ্গে অজিঙ্কা রাহানে।

আসন্ন বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের দলে সুযোগ পাওয়ার পরে ভারতীয় দলে তাঁর প্রত্যাবর্তন সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে ভারতের অভিজ্ঞ ব্যাটার অজিঙ্কা রাহানে কিছুটা আবেগপ্রবণ হয়ে বলেছেন, সেই মুহূর্তটি তাঁর কাছে তো বটেই, তাঁর পরিবারের কাছেও হয়ে উঠেছিল বিশেষ।

১৮ মাস পর জাতীয় দলে প্রত্যাবর্তন করেছেন অজিঙ্কার রাহানে। আইপিএল এবং ঘরোয়া ক্রিকেটে ভাল খেলার সুবাদে তিনি ফের হারানো জায়গা ফিরে পেয়েছেন। এখন আর রাহানে পিছন ফিরে তাকাতে চান না। নিজেকে প্রমাণ করাই তাঁর এখন আসল লক্ষ্য। নতুন করে যে সুযোগ পেয়েছেন রাহানে, সেটাই তিনি পুরোপুরি কাজে লাগাতে মুখিয়ে রয়েছে।

আসন্ন বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ (ডব্লিউটিসি) ফাইনালের দলে সুযোগ পাওয়ার পরে ভারতীয় দলে তাঁর প্রত্যাবর্তন সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে ভারতের অভিজ্ঞ ব্যাটার অজিঙ্কা রাহানে কিছুটা আবেগপ্রবণ হয়ে বলেছেন, সেই মুহূর্তটি তাঁর কাছে তো বটেই, তাঁর পরিবারের কাছেও হয়ে উঠেছিল বিশেষ। রাহানের কথায়, ‘মুহূর্তটি আমার এবং আমার পরিবারের জন্য সত্যিই আবেগে ভরা ছিল। আমার পরিবার আমাকে অনেক সমর্থন করেছে। আমার খারাপ সময়ে পাশে দাঁড়িয়েছে। আমি সম্ভবত ১৮-১৯ মাস পর ভারতীয় দলে ফিরতে পেরেছি ওদের জন্যই। আমি সত্যিই খুব খুশি।’

আরও পড়ুন: ইশান নাকি ভরত- WTC Final-এ কে খেলবেন? ভারতের একাদশ বাছলেন সুনীল গাভাসকর

এখন ইংল্যান্ডের মাটিতে জোরদার অনুশীলনে ব্যস্ত রাহানে। সেখান থেকেই বোর্ডের পোস্ট করা একটি ভিডিয়োয় তাঁকে বলতে শোনা গিয়েছে, ‘ভাল, খারাপ যা-ই হয়েছে তা নিয়ে আর ভাবতে চাই না। নতুন করে সব শুরু করতে চাই। সিএসকে-র হয়ে খেলা খুবই উপভোগ করেছি। আইপিএলের আগেও ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো খেলেছি। তাই এই প্রত্যাবর্তন আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ।’

রাহানে আরও বলেছেন, ‘আইপিএল এবং রঞ্জি ট্রফিতে যে মানসিকতা নিয়ে খেলেছি, সেই একই মানসিকতা নিয়ে ফাইনালেও ব্যাট করতে চাই। টি-টোয়েন্টি না টেস্ট খেলছি সেই ফরম্যাট নিয়ে ভাবতে চাই না। এখন যে ভাবে ব্যাট করছি সেটাই ভালো। সব কিছু জটিল করে লাভ নেই। যত সহজ থাকবে তত ভাল।’

আরও পড়ুন: আফ্রিদির ইয়র্কারে চোখ ধাঁধিয়ে গেল বাটলারের, বল বোঝার আগেই উড়ে গেল স্টাম্প- ভিডিয়ো

ন’বছর আগে লর্ডসের মাঠে শতরান রয়েছে রাহানের। তবু তাঁর মতে, ইংল্যান্ডে খেলা বেশ কঠিন। বলেছেন, ‘সঠিক মানসিকতা এবং পরিস্থিতিকে বুঝতে পারাই আসল। প্রতিটা সেশন ধরে ধরে খেলতে হবে। ইংল্যান্ডে শুধু পিচ নয়, আবহাওয়ার দিকেও খেয়াল রাখতে হবে।’

খারাপ ছন্দের কারণে টেস্ট দল থেকে বাদ পড়েছিলেন। ১৮ মাস পরে ফিরে কোনও আক্ষেপ নেই রাহানের। বরং তিনি বলেছেন, ‘ভারতের হয়ে খেলা আমার কাছে বরাবরই স্বপ্ন। তাই দলের ফেরার জন্যে আগে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলতে গিয়েছিলাম। রঞ্জি হোক বা সৈয়দ মুস্তাক আলি, সব সময় সতীর্থদের থেকে কিছু না কিছু শিখেছি। নিজের ফিটনেসের উপরে জোর দিয়েছি। প্রতিটা মুহূর্ত উপভোগ করেছি। ভারতের হয়ে ফেরাটাই আসল লক্ষ্য ছিল। বাদ পড়ার জন্যে কোনও আক্ষেপ নেই।’