বাংলা নিউজ > ময়দান > মহিলা হকি বিশ্বকাপ জয়ের হ্যাটট্রিক করে সর্বাধিক শিরোপা জয়ের নজির ডাচ মেয়েদের
জয়ের নজির ডাচ মেয়েদের। ছবি: টুইটার

মহিলা হকি বিশ্বকাপ জয়ের হ্যাটট্রিক করে সর্বাধিক শিরোপা জয়ের নজির ডাচ মেয়েদের

  • ২০১০ সালে আর্জেন্টিনার জিতেছিল ৩-১ গোলে। এবার ২০১০ সালের ফাইনালের প্রতিশোধই নিল নেদারল্যান্ডস। গোটা আসরে অপরাজিত থেকেই শিরোপা জিতলো তারা। স্পেনের তেরেসায় ফাইনাল ম্যাচে প্রথম মিনিটেই দুইটি পেনাল্টি কর্নার আদায় করে নিয়েছিল আর্জেন্টিনা।

শুভব্রত মুখার্জি: মহিলা হকির ইতিহাসে নিঃসন্দেহে সবচেয়ে শক্তিশালী দেশ নেদারল্যান্ডস। বিশ্ব হকির মঞ্চে তারা এককথায় অপ্রতিরোধ্য। শেষ তিন বছরে বিশ্ব মঞ্চে তারা সেই কথাই বারবার প্রতিষ্ঠা করেছে। পরপর তিনবার মহিলা হকি বিশ্বকাপের খেতাব জিতে বলা ভাল হ্যাটট্রিক সহ তাদের ৯বম খেতাব জিতে একেবারে সকলের ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে গেল তারা। বলা ভালো এক নয়া কীর্তি গড়ে দেখাল ডাচ মহিলা হকি দল যা স্পর্শ করতে অন্যান্য দেশগুলোকে অপেক্ষা করতে হতে পারে কয়েক দশক। আসুন একনজরে দেখে নেওয়া যাক মহিলা হকির ইতিহাসে সর্বাধিক শিরোপাজয়ীদের তারকা:

১) নেদারল্যান্ডস: ৯

২) আর্জেন্টিনা: ২

৩) জার্মানি: ২

৪) অস্ট্রেলিয়া: ২

প্রসঙ্গত আর্জেন্টিনার তৃতীয়বার বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন ভেঙে হ্যাটট্রিক করে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে নেদারল্যান্ডস। গোটা আসরে দুর্দান্ত খেলেও বিশ্বকাপ জেতা হল না আর্জেন্টিনা মহিলা হকি দলের। রবিবার রাতে মহিলা হকি বিশ্বকাপের শিরোপা নির্ধারণী ফাইনালে নেদারল্যান্ডসের সামনে কার্যত উড়ে গেল আর্জেন্টিনার মেয়েরা। আর্জেন্টিনাকে ৩-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে টানা তৃতীয় ও সবমিলিয়ে নবম বিশ্বকাপ জিতে নিল ডাচ মেয়েরা।

উল্লেখ্য এর আগে ২০০২ ও ২০১০ সালের আসরে ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল নেদারল্যান্ডস ও আর্জেন্টিনা। দুবারই জিতেছিল আর্জেন্টিনা। ২০০২ সালে ১-১ গোলে ড্র হওয়ার পর টাইব্রেকারে তারা জিতেছিল ৪-৩ ব্যবধানে। আর ২০১০ সালে আর্জেন্টিনার জিতেছিল ৩-১ গোলে। এবার ২০১০ সালের ফাইনালের প্রতিশোধই নিল নেদারল্যান্ডস। গোটা আসরে অপরাজিত থেকেই শিরোপা জিতলো তারা। স্পেনের তেরেসায় ফাইনাল ম্যাচে প্রথম মিনিটেই দুইটি পেনাল্টি কর্নার আদায় করে নিয়েছিল আর্জেন্টিনা। কিন্তু গোল করতে পারেনি তারা।

দ্বিতীয় কোয়ার্টারে ম্যাচের ১৭ মিনিটের মাথায় মারিয়া ভার্সকুরের স্টিক থেকে প্রথম গোলে এগিয়ে যায় ডাচরা। মিনিট সাতেক পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ফ্রেডরিক মাতলা। তৃতীয় কোয়ার্টারে ম্যাচের ৩৬ মিনিটে তৃতীয় গোল করেন ফেলিস আলবার্স। ম্যাচের ৪৬ মিনিটে অগাস্টিনা গোর্জেলানির গোলে ব্যবধান কমায় আর্জেন্টিনা। তবে শেষ রক্ষা হয়নি। তৃতীয় স্থান নির্ধারণী লড়াইয়ে মুখোমুখি হয়েছিল অস্ট্রেলিয়া ও জার্মানি। জার্মানিকে হারিয়ে অস্ট্রেলিয়া দখল করল তৃতীয় স্থান।

বন্ধ করুন