বাংলা নিউজ > ময়দান > কোনও শর্তই বদলানো হবে না, ইস্টবেঙ্গল সই না করলে সরে যাবে বিনিয়োগকারীরা
ইস্টবেঙ্গল ক্লাব।
ইস্টবেঙ্গল ক্লাব।

কোনও শর্তই বদলানো হবে না, ইস্টবেঙ্গল সই না করলে সরে যাবে বিনিয়োগকারীরা

  • শ্রী সিমেন্টের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, যে কোনও মূল্যে ওই চুক্তিপত্রেই ইস্টবেঙ্গলকে সই করতে হবে। এর কোনও অন্যথা হবে না। যদি ইস্টবেঙ্গল সই না করে, সে ক্ষেত্রে শ্রী সিমেন্ট সরে যাবে।

ইস্টবেঙ্গল আর বিনিয়োগকারী সংস্থার ডামাডোল থামছেই না। লাল-হলুদের ভাগ্য এখনও সরু সুতোর উপরেই ঝুলে রয়েছে। শুক্রবার শেষ যে খবর পাওয়া গিয়েছে, তাতে শ্রী সিমেন্টের কর্ণধার হরিমোহন বাঙুর পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন, তারা কোনও ভাবেই চুক্তিপত্রের কোনও শর্ত বদলাবেন না।

মোহনবাগানের তুলনা টেনে, ইস্টবেঙ্গবেঙ্গল কর্তারা নাকি দাবি করেছেন, শ্রী সিমেন্ট যে চুক্তিপত্র লাল-হলুদ কর্তাদের সই করার জন্য দিয়েছে, সেটা যদি হুবুহু এটিকে এবং মোগহনবাগানের মধ্যে যে চুক্তিপত্র হয়েছে, সেটার মতো হয়, তবে তাঁরা বিনা দ্বিধায় সই করে দেবে। কিন্তু হরিমোহন বাঙুরের দাবি, মোহনবাগানের আর এটিকে মার্জ করেছে। কিন্তু শ্রী সিমেন্ট ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে মার্জ করছে না, তাদের টেক ওভার করছে। সে রকম ভাবেই নাকি ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে শুরু থেকে সব কথা হয়েছিল। প্রথমিক চুক্তিও হয়েছিল। স্বভাবতই মোহনবাগান-এটিকে-র চুক্তির সঙ্গে এর কোনও তুলনা চলে না।

শ্রী সিমেন্টের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, যে কোনও মূল্যে ওই চুক্তিপত্রেই ইস্টবেঙ্গলকে সই করতে হবে। এর কোনও অন্যথা হবে না। যদি ইস্টবেঙ্গল সই না করে, সে ক্ষেত্রে শ্রী সিমেন্ট সরে যাবে। বিনিয়োগ করবে না। আর এত তাড়াতাড়ি ইস্টবেঙ্গলের পক্ষে বিনিয়োগকারী খোঁজা বেশ কঠিন। সে ক্ষেত্রে এ বার আর ইস্টবেঙ্গলের আইএসএল খেলা হবে না।

এর পাশাপাশি বিনিয়োগকারীদের তরফে পরিষ্কার করে বলে দেওয়া হয়েছে, এই চুক্তির জন্য ইস্টবেঙ্গলের সদস্য সমর্থকদের কোনও সমস্যা হবে না। ক্লাবের বাকি সব কিছু একই রকম ভাবে চলবে। তবে ইস্টবেঙ্গল কর্তারা এই চুক্তিপত্র সই করতে নারাজ। তারা পুরো ক্লাবের স্বত্ত্ব শ্রী সিমেন্টের হাতে তুলে দিতে রাজি নয়। দেখার, এই জল কত দূর গড়ায়।

বন্ধ করুন