বাংলা নিউজ > ময়দান > আফ্রিদিকে ভয় পাওয়ার দরকার নেই, এশিয়া কাপে রোহিতদের জন্য পাক প্রাক্তনীর বার্তা

আফ্রিদিকে ভয় পাওয়ার দরকার নেই, এশিয়া কাপে রোহিতদের জন্য পাক প্রাক্তনীর বার্তা

শাহিন আফ্রিদির সঙ্গে বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মারা (ছবি-গেটি ইমেজ) (Getty)

ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের মূল স্থপতিদের একজন ছিলেন শাহিন আফ্রিদি। যিনি ভারতের টপ অর্ডার ব্যাটার রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি, কেএল রাহুলকে আউট করেছিলেন। কিন্তু এশিয়া কাপের আগে, একজন প্রাক্তন পাকিস্তানি ক্রিকেটার জানিয়েছেন যে এই ত্রয়ী কীভাবে আফ্রিদির মোকাবেলা করতে পারে।

২০২২ এশিয়া কাপ-এ ভারতের প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট হল দুবাই-এর আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বদলা নেওয়া। যেখানে রোহিত শর্মাদের সামনে বাবর আজমের দলের বিরুদ্ধে ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বদলা নেওয়া সুযোগ থাকবে। ২০২১ সালের টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে গ্রুপ-পর্যায়ে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ১০ উইকেটে হেরেছিল টিম ইন্ডিয়া। সেই ম্যাচে ঐতিহাসিক জয়ের স্ক্রিপ্ট লিখেছিলেন শাহিন আফ্রিদি-রিজওয়ান-বাবর আজমরা। 

বিশ্বকাপের যে কোনও সাক্ষাতে (ওডিআই এবং টি-টোয়েন্টি) ভারতের বিরুদ্ধে এটাই ছিল পাকিস্তানের প্রথম জয়। সেই জয়ের অন্যতম স্থপতি ছিলেন শাহিন শাহ আফ্রিদি। যিনি ভারতের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি , কেএল রাহুলকে আউট করেছিলেন। কিন্তু এশিয়া কাপের সাক্ষাতের আগে, পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার দানিশ কানেরিয়া প্রকাশ করেছেন যে এই ত্রয়ী কীভাবে নতুন বলে আফ্রিদির বিরুদ্ধে মোকাবেলা করতে পারেন।

আফ্রিদি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে নতুন বলের সেরা বোলারদের একজন। তাঁর আধিপত্যের পিছনে একটি প্রধান কারণ পাওয়ারপ্লেতে নতুন বলের সঙ্গে ডেলিভারি। ভারত বনাম পাকিস্তানের শেষ সাক্ষাতে আফ্রিদি নিজের প্রথম দুই ওভারে রোহিত এবং রাহুল উভয়কেই আউট করেছিলেন। ফলে সেই ম্যাচে ২.১ ওভারে মাত্র ৬ রানে ভারতের দুই উইকেটের পতন হয়েছিল।

এছাড়াও পড়ুন: কথা রাখলেন ফেডেরার, পাঁচ বছর আগে দেওয়া প্রতিশ্রুতি পালন করতে ফের নামলেন কোর্টে

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে কথা বলার সময়, কানেরিয়া প্রকাশ করেছেন কীভাবে কোহলি এবং রোহিত আফ্রিদির পূর্ণ ডেলিভারিতে প্রহার করতে পারে। প্রাক্তন লেগ-স্পিনার সূর্যকুমার যাদবের উদাহরণ দিয়েছেন, যার খুব ভালো ফ্লিক শট আছে, যা বাঁহাতি সিমারদের বিরুদ্ধে কাজে আসতে পারে।

দানিশ কানেরিয়া বলেছেন, ‘শাহিন আফ্রিদিকে ভয় পাওয়ার দরকার নেই। কারণ রোহিত শর্মা এবং বিরাট কোহলি বিশ্বমানের ব্যাটার। তাদের শুধু সচেতন থাকতে হবে। শাহিন ফুলার বোলিং করতে পারে এবং বল সুইং করতে পারে। তাই তাদের এর জন্য প্রস্তুত থাকা উচিত।’ এছাড়াও তিনি বলেন, ‘স্কোয়ার লেগে সূর্যকুমার যাদবের ফ্লিক শট শাহিনের বোলিংয়ের বিরুদ্ধেও গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠবে।’

বাঁহাতি পেসাররা ঐতিহাসিকভাবে ভারতীয় টপ-অর্ডারের সামনে অনেক সমস্যা সৃষ্টি করেছে। রোহিত, রাহুল এবং কোহলিকে বারবার ট্রেন্ট বোল্ট এবং শাহিন আফ্রিদির মতো বোলাররা পরীক্ষার মুখে ফেলেছেন। তাদের বিরুদ্ধে রোহিতদের লড়াই করতে হয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে, ইংল্যান্ডের রিস টপলি এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওবেদ ম্যাকয়েও ভারতীয় ডানহাতিদের কঠিন পরীক্ষা নিয়েছেন। তবে দানিশ কানেরিয়া মনে করেন এশিয়া কাপে ছবিটা আলাদা হবে। 

বন্ধ করুন