বাংলা নিউজ > ময়দান > বাবর-রিজওয়ান নয়, টি টোয়েন্টির আসল ‘কিং’ হলেন কোহলি! এই সত্য মেনে নিলেন মিয়াঁদাদ
বিরাট কোহলি ও জাভেদ মিয়াঁদাদ (ছবি- পিটিআই/এএফপি)

বাবর-রিজওয়ান নয়, টি টোয়েন্টির আসল ‘কিং’ হলেন কোহলি! এই সত্য মেনে নিলেন মিয়াঁদাদ

  • এশিয়া কাপে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে কোহলির অপরাজিত সেঞ্চুরি দেখে খুব খুশি হয়েছিলেন মিয়াঁদাদ। দীর্ঘদিন ফর্ম হারানো ভারতীয় তারকা যে টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে ফর্মে ফিরেছেন সেটা দেখে বেশ আনন্দিত জাভেদ মিয়াঁদাদ। পাকিস্তানের কিংবদন্তি বলেন এবার বিরাট কোহলিকে আটকানো মুশকিল।

বিরাট কোহলির সঙ্গে নিজের মিল খুঁজে পাচ্ছেন পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার জাভেদ মিয়াঁদাদ। এশিয়া কাপে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে কোহলির অপরাজিত সেঞ্চুরি দেখে খুব খুশি হয়েছিলেন মিয়াঁদাদ। দীর্ঘদিন ফর্ম হারানো ভারতীয় তারকা যে টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে ফর্মে ফিরেছেন সেটা দেখে বেশ আনন্দিত জাভেদ মিয়াঁদাদ। পাকিস্তানের কিংবদন্তি বলেন এবার বিরাট কোহলিকে আটকানো মুশকিল।

এই কারণেই বাবর আজম বা মহম্মদ রিজওয়ান নয়, বিরাট কোহলির উপরেই নিজের ভরসা রাখছেন মিয়াঁদাদ। আসলে বাবর আজম এবং মহম্মদ রিজওয়ান ওপেনিং পার্টনারশিপে যথেষ্ট ভালো করলেও, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া মাটিতে এই জুটির টানা পারফর্ম করে যাওয়া অসম্ভব বলেই মনে করেন জাভেদ মিয়াঁদাদ। নিজের অভিজ্ঞতা থেকে প্রাক্তন পাক তারকা বলছেন বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি রান করার সম্ভাবনা রয়েছে বিরাট কোহলির। কারণ টি-টোয়েন্টিতে একটা ইনিংস কী ভাবে গড়তে হয় সেটা বিরাটের থেকে ভালো আর কেউ জানে না।

আরও পড়ুন… আসন্ন T20 WC-এ কত নম্বরে ব্যাট করতে চান সূর্যকুমার? নিজের মনের কথা জানালেন ‘SKY’

ক্লাস ক্রিকেটারদের ছন্দে ফিরতে লাগে শুধু একটা ইনিংস। তারপর ক্রমশ ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠেন তাঁরা। আসন্ন বিশ্বকাপে বিরাট কোহলির সেই কারণেই ভয়ংকর হয়ে ওঠার সম্ভাবনা দেখছেন পাক কিংবদন্তি। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ১১ হাজার রানের থেকে মাত্র ৯৮ রান দূরে রয়েছেন বিরাট কোহলি। আসন্ন সিরিজে তিনি এই রান করতে পারলে, প্রথম ভারতীয় হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে ১১ হাজার রান তিনি পূরণ করবেন।

মিয়াঁদাদের মতে, বাবর এবং রিজওয়ান ভালো ব্যাটসম্যান হলেও ১৫ ওভার টিকে থেকে রান করার ব্যাপারে এগিয়ে থাকবেন বিরাট কোহলি। এমনকি রোহিত শর্মার থেকেও এই জায়গায় বেশি পয়েন্ট পাবেন বিরাট কোহলি। মিয়াঁদাদ মনে করেন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে শুধুমাত্র বড় বড় ছক্কা হাঁকানো নয়, দলকে শক্ত ভিতের ওপর দাঁড় করানোর উপায় কী সেটা শিখতে হয় কোহলির কাছ থেকে।

আরও পড়ুন… ১৭ বছরের সম্পর্কে ইতি, দলকে চ্যাম্পিয়ন করে বিদায় নিলেন ৪৬-এর তারকা 

এদিকে পাকিস্তান ক্রিকেট কেন মিয়াঁদাদকে কাজে লাগায় না এই নিয়ে বারবার প্রকাশ্যে দুঃখ প্রকাশ করেছেন জাভেদ মিয়াঁদাদ। কিংবদন্তি পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান মনে করেন তাঁর মত মানুষ বাড়িতে বসে বসে টিভিতে খেলা দেখছেন, অথচ পাকিস্তান ড্রেসিংরুম চালাচ্ছে সাকলিন, ইউসুফ - এটা তাঁর কাছে অপমানের। এ জন্য তিনি পিসিবি-র সিদ্ধান্তকেই দায়ী করছেন। মিয়াঁদাদ মনে করেন পাকিস্তান প্রাক্তন ক্রিকেটারদের কী ভাবে কাজে লাগাতে হয় জানে না। অতীতে পাকিস্তানের কোচ হিসেবে মিয়াঁদাদের রেকর্ড খারাপ নয়। জাভেদ মিয়াঁদাদ বিশ্বাস করেন পাকিস্তান ড্রেসিংরুমে তিনি থাকলে বাবর-রিজওয়ানরা আরও অনেক বেশি লড়াকু হয়ে মাঠে নামতে পারত। 

বন্ধ করুন