বাংলা নিউজ > ময়দান > বিশ্বকাপ না জেতার আক্ষেপ নিয়ে ক্রিকেটকে বিদায়, ঝুলনকে বিশেষ সম্মান হরমনদের- ভিডিয়ো
ঝুলন গোস্বামী।

বিশ্বকাপ না জেতার আক্ষেপ নিয়ে ক্রিকেটকে বিদায়, ঝুলনকে বিশেষ সম্মান হরমনদের- ভিডিয়ো

  • ঝুলনের আফসোস একটাই, বিশ্বকাপ জিততে না পারার যন্ত্রণাটা তাঁকে খোঁচা দিতে থাকে। অবসরের ম্যাচের আগে শুক্রবার ঝুলন বলেছেন, ‘আমি দু'টি বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলেছি। কিন্তু ট্রফি জিততে পারিনি। এটা আমার একমাত্র আফসোস রয়ে গিয়েছে।’

ভারতীয় ক্রিকেটে একটি যুগের সমাপ্তি হতে চলেছে শনিবার। আবেগে ভাসছে ভারতীয় ক্রিকেট। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ ঝুলন গোস্বামী খেলতে চলেছেন লর্ডসে। তাঁকে নিয়ে স্বাভাবিক ভাবেই আবেগপ্রবণ বাংলা তথা ভারতীয় ক্রিকেট মহল। মাস কয়েক আগে ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন মিতালি রাজ ৷ এ বার তাঁরই সতীর্থ ঝুলন গোস্বামীও অবসরের পথে ৷

নদিয়ার চাকদা থেকে শুরু হওয়া ঝুলনের লড়াই আন্তর্জাতিক স্তরে ভারতকে অনেক সাফল্য এনে দিয়েছে ৷ তাঁর ঝুলিতেও রয়েছে ৩৫২টি উইকেট ৷ মহিলা ক্রিকেটে বিশ্বের এক নম্বর ক্রিকেটারও হয়েছেন তিনি ৷ ডায়না এডুলজির পর দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে পদ্ম সম্মানে ভূষিত হয়েছেন ৷ কালক্রমে তিনি হয়ে উঠেছেন চাকদা এক্সপ্রেস ৷

আরও পড়ুন: ঝুলনের অবসরের ম্যাচ দেখতে বিশেষ স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা CAB-র, জানুন কোথায় দেখবেন?

এ ছাড়া ঝুলন ২০৩টি ওয়ানডে-তে ২৫৩টি উইকেট নিয়েছেন - যা বিশ্ব রেকর্ড। চলতি ওয়ানডে সিরিজেও তিনি খুবই কম রান দিয়েছেন। যদিও ঝুলনের অবসর নিয়ে বিসিসিআই-এর তরফে এখনও কোনও আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করা হয়নি। তবে শেষ ম্যাচের আগে তাঁকে বিশেষ সম্মান জানানো হয়ে সম্প্রচারকারী সংস্থার তরফে।

এই ভিডিয়োতে ঝুলনকে বলতে শোনা গিয়েছে, ‘যখন মাঠে নামি, তখন নিজের সেরাটা দেওয়ার এবং প্রতিটা মুহূর্তে পজিটিভ থাকার চেষ্টা করি। সিনিয়র প্লেয়ার হিসেবে এটা আমার দায়িত্ব। এবং সেটাই আমি করি।’ ভারতীয় দলের অধিনায়ক হরমনপ্রীত কাউর আবার বলেছেন, ‘ও (ঝুলন) থাকা মানেই দল উজ্জীবিত থাকে। এই সিরিজ (ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওডিআই সিরিজ) আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ।’

আরও পড়ুন: লর্ডস ম্যাচ স্পেশ্যাল হতে চলেছে- দুরন্ত শতরানের পরেও ঝুলন নিয়ে নস্ট্যালজিক হরমন

এর সঙ্গেই তিনি যোগ করেছেন, ‘আমরা ওকে মিস করব। ও যে ভাবে গোটা কেরিয়ারে বল করেছে এবং যে সাফল্য ভারতকে দিয়েছে, সেটা অসাধারণ। দল ওর থেকে অনেক কিছু শিখেছে। আমরা সত্যিই খুশি যে, ওর সঙ্গে খেলার সুযোগ পেয়েছি। লর্ডসের ম্যাচ (তৃতীয় ওডিআই) আমাদের কাছে খুব স্পেশ্যাল হতে চলেছে। কারণ সেই ম্যাচে ঝুলন অবসর নেবে। যে কোনও ক্রিকেটারের কাছে লর্ডসে খেলাটা বড় বিষয়। আর ও ওর শেষ ম্যাচ লর্ডসে খেলতে চলেছে।’

তবে ঝুলনের আফসোস একটাই, বিশ্বকাপ জিততে না পারার যন্ত্রণাটা তাঁকে খোঁচা দিতে থাকে। আবসরের ম্যাচের আগে শুক্রবার সাংবাদিক সম্মেলনে ঝুলন বলেওছেন, ‘আমি দু'টি বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলেছি। কিন্তু ট্রফি জিততে পারিনি। এটা আমার একমাত্র আফসোস রয়ে গিয়েছে। কারণ আপনি চার বছর ধরে বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুতি নিতাম। অনেক পরিশ্রম করতাম। প্রতিটি ক্রিকেটারের জন্য বিশ্বকাপ জয় একটি বড় স্বপ্ন থাকে।’

বন্ধ করুন