বাংলা নিউজ > ময়দান > ‘এর দাম চোকাতেও তৈরি’, প্রয়োজনে টুর্নামেন্টে খেলবেন না, তবু করোনার টিকা নেবেন না জোকার
নোভক জকোভিচ।

‘এর দাম চোকাতেও তৈরি’, প্রয়োজনে টুর্নামেন্টে খেলবেন না, তবু করোনার টিকা নেবেন না জোকার

  • অস্ট্রেলিয়ান ওপেন থেকে জকোভিচ বিতাড়িত হওয়ার পরেই শোনা গিয়েছিল, করোনার টিকা না নিলে ফ্রেঞ্চ ওপেনেও অংশ নেওয়া যাবে না। ফ্রান্সের সরকারও জকোভিচের জন্য অস্ট্রেলিয়ার সরকারের মতোই কড়া পদক্ষেপ করতে পারে। এ কথা জানার পরেও নিজের সিদ্ধান্তে অবিচল জোকার।

করোনার টিকা না নেওয়ার জন্য তিনি অস্ট্রেলিয়ান ওপেন খেলতে পারেননি। আইনি যুদ্ধে লড়েও তাঁকে ফিরে যেতে হয়েছিল দেশে। তবু কোনও পরিস্থিতিতেই করোনার টিকা নেবেন না নোভক জকোভিচ। তার জন্য তিনি যদি টুর্নামেন্ট না খেলতেও পারেন, তাতেও রাজি সার্বিয়ান তারকা। স্পষ্ট ভাষায় তিনি বলে দিয়েছেন, প্রয়োজনে তিনি এর মূল্য চোকাতেও রাজি। তবু করোনার ভ্যাকসিন নেবেন না জকোভিচ।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেন থেকে জকোভিচ বিতাড়িত হওয়ার পরেই শোনা গিয়েছিল, করোনার টিকা না নিলে ফ্রেঞ্চ ওপেনেও অংশ নেওয়া যাবে না। ফ্রান্সের সরকারও জকোভিচের জন্য অস্ট্রেলিয়ার সরকারের মতোই কড়া পদক্ষেপ করতে পারে। এ কথা জানার পরেও নিজের সিদ্ধান্তে অবিচল জোকার। টিকা না নেওয়ার যদি ফরাসি ওপেন বা উইম্বলডনের মতো গ্রান্ডস্লামেও তিনি অংশ নিতে না পারেন, তাতেও তাঁর কিচ্ছু এসে যায় না। 

জকোভিচের দাবি, ‘আমার শরীর নিয়ে আমি কী সিদ্ধান্ত নেব, সেটা আমার একান্ত ব্যক্তিগত ব্যাপার। কোনও টুর্নামেন্ট, কিংবা যে কোনও ট্রফি জয়ের থেকেও আমার শরীর আমার কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। যতটা ফিট থাকা সম্ভব, ততটাই চেষ্টা করছি। তবে টিকা নেব না। তাতে এর দাম দিতে হলে তাও রাজি।’ 

সঙ্গে এটাও জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি টিকাকরণের বিরোধী নন। তবে টিকা তিনি নেবেন কিনা, সেই সিদ্ধান্ত তাঁর নিজের হবে। জোকার বলেছেন, ‘এটা যে কোনও ব্যক্তির ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত হওয়া উচিত। তবে আমি কখনও-ই টিকার বিরোধী নই। জানি, গোটা বিশ্ব টিকাকরণের মধ্যে দিয়ে মারণ ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই চালাচ্ছে। আশা করি, তাতে শীঘ্রই সাফল্যও আসবে।’ অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, টিকা না নেওয়ার জন্য কি অকালেই থমকে যাবে জকোভিচের কেরিয়ার?

বন্ধ করুন