বাংলা নিউজ > ময়দান > বাবর বা রিজওয়ানের মতো ক্রিকেটার দলে না থাকার জন্য আক্ষেপ করবে ভারত, দাবি লতিফের
বাবর আজম এবং মহম্মদ রিজওয়ান।
বাবর আজম এবং মহম্মদ রিজওয়ান।

বাবর বা রিজওয়ানের মতো ক্রিকেটার দলে না থাকার জন্য আক্ষেপ করবে ভারত, দাবি লতিফের

  • বাবর এবং রিজওয়ান জুটি এই বছর টি-টোয়েন্টিতে একাধিক নজির গড়ে ফেলেছে। রিজওয়ান এই বছর টি-টোয়েন্টিতে ২০০০-এর উপর রানের রেকর্ড করে ফেলেছেন। এবং এই ফর্ম্য়াটে এক বছরে ১০০০ রান করেছেন তিনি। বাবর ২০২১ সালে টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ রানের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন। এই ফরম্যাটে তাঁর মোট সংগ্রহ ১৭৭৯ রান।

এই বছর টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তান দুরন্ত ছন্দে রয়েছে। তারা ২৯টি ম্যাচের মধ্যে ২০টিতেই জিতেছে। দলের ভালো পারফরম্যান্সের পাশাপাশি পাক ওপেনার জুটিও অসাধারণ ফর্মে রয়েছে। বাবর আজম এবং মহম্মদ রিজওয়ান জুটি এই বছর টি-টোয়েন্টিতে একাধিক নজিরও গড়ে ফেলেছে। রিজওয়ান এই বছর টি-টোয়েন্টিতে ২০০০-এর উপর রানের রেকর্ড করে ফেলেছেন। এবং এই ফর্ম্য়াটে এক বছরে ১০০০ রান করে ফেলেছেন রিজওয়ান। প্রাক্তন পাক অধিনায়ক রশিদ লতিফ একটি সংবাদমাধ্যমে দাবি করেছেন, এ বার ভারতও বলবে, আমাদের দলে একজন মহম্মদ রিজওয়ান বা বাবর আজম নেই। যেমন পাকিস্তান আগে বলতো, আমাদের, দলে একজন বিরাট কোহলি বা রোহিত শর্মার মতো ক্রিকেটার নেই।

লতিফ বলেছেন, ‘প্রায় এক বছর আগে, আমরা বলতাম যে পাকিস্তানে বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা বা কেএল রাহুলের মতো খেলোয়াড় নেই, বিশেষ করে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে। তবে আমি মনে করি, কিছু সময় পরে, ভারতীয়রাও বলবে যে আমাদের দলে রিজওয়ান এবং বাবরের মতো খেলোয়াড় নেই।’

বাবর আজম ২০২১ সালে টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ রানের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন। খেলার সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটে তিনি ১৭৭৯ রান করেছেন। ২০২১ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে তিনি ৬ ম্যাচে ৬০.৬০ গড়ে এবং ১২৬.২৫ স্ট্রাইক রেটে ৩০৩ রান করেছিলেন। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের অভিষেকে সবচেয়ে বেশি রান করার রেকর্ড করেছেন বাবর আজম। 

লতিফ এবং ইনজামাম-উল-হকের মতো প্রাক্তন অধিনায়করা এই বছরেই একটা সময়ে বাবর এবং রিজওয়ানদের স্লো স্ট্রাইক-রেটের জন্য সমালোচনা করেছিলেন। আর সেই সমালোচনার জবাবই ব্যাট হাতে দেন বাবর এবং রিজওয়ান। স্বাভাবিক ভাবে তাঁদের সমালোচকরাই এখন তাঁদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ।

যে কারণে লতিফ বলেছেন, ‘আগে, ওদের স্কোরিং রেট নিয়েও আমাদের কিছু রিজার্ভেশন ছিল। কিন্তু ওরা সেই ফাঁকটা পূরণ করে দিয়েছে।’

বন্ধ করুন