বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিও অলিম্পিক্স > করোনাও হার মানাতে পারল না, দু’বার আক্রান্ত হওয়ার পরেও টোকিওতে সোনা জয় ডিনের
টোকিওতে সোনা জয়ী টম ডিন (ছবি:রয়টার্স) (REUTERS)
টোকিওতে সোনা জয়ী টম ডিন (ছবি:রয়টার্স) (REUTERS)

করোনাও হার মানাতে পারল না, দু’বার আক্রান্ত হওয়ার পরেও টোকিওতে সোনা জয় ডিনের

  • সাঁতারের পুল থেকে জেতা টম ডিনের স্বর্ণপদকটার মাহাত্ম্য যে অন্যান্য সব জয়ের থেকে আলাদা তা বলাই যায়।

শুভব্রত মুখার্জি: করোনাও তার স্পিরিটকে ভাঙতে পারেনি।বলা ভাল করোনাকে একবার নয় দু-দুবার জয় করা অ্যাথলিট টোকিওতে সোনা জিতে কার্যত গোটা বিশ্বের কাছে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন। লড়াইয়ের এই দৃষ্টান্ত চিরকাল মনে রাখবেন ক্রীড়াপ্রেমী সমর্থকরা। সাঁতারের পুল থেকে জেতা টম ডিনের স্বর্ণপদকটার মাহাত্ম্য যে তাই অন্যান্য সব জয়ের থেকে আলাদা তা বলাই বাহুল্য।

(টোকিয়ো অলিম্পিক্স ২০২০-এর যাবতীয় খবর, আপডেটের জন্য চোখ রাখুন -- এখানে)

আজ নিজের ইভেন্ট ২০০ মিটার ফ্রিস্টাইল সাতারের ফাইনাল শেষ করে যখন তিনি স্কোরের দিকে তাকালেন তখন হয়তো তিনি নিজেও নিজেকে বিশ্বাস করতে পারেননি । তার নিজের চোখকেই তার হয়তো আর বিশ্বাস হচ্ছিল না। আসলে পুরুষদের ২০০ মিটার ফ্রিস্টাইল সাঁতারে টম ডিন সোনার পদক জিতে গেমসের ইতিহাসে লড়াইয়ের এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন।

ডিন একটা সময় গেমসে অংশ নিতে পারবেন কিনা সেই ব্যাপারেই সন্দিহান ছিলেন। গেমসের প্রস্তুতি নেওয়ার সময় দু'বার করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন এই ব্রিটিশ সাঁতারু। ফলে তার প্রস্তুতিতেও ঘাটতি ছিল। আইসোলেশনে থাকার কারণে অনুশীলন ঠিক করে হয়নি, ফিট রাখতে শরীরচর্চাও করতে পারেননি তিনি। সেই কারণেই ২১ বছর বয়সী ডিনের এই সোনা খুব স্পেশাল। তিনি সতীর্থ ডানকান স্কটের চেয়ে ০.০৪ সেকেন্ড কম সময় নিয়ে সোনা জয় নিশ্চিত করেন। ১৯০৮ সালের পর অলিম্পিক্সে প্রথমবারের মতো সাঁতারের কোনো ইভেন্টে একই সঙ্গে সোনা ও রুপা জয়ের কীর্তি গড়ল গ্রেট ব্রিটেন। অ্যাডাম পিটির ১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে সোনাজয়ের পরে এবারের অলিম্পিক্সে এটি সাঁতারে গ্রেট ব্রিটেনের ছেলেদের দ্বিতীয় সোনা জয়।

বন্ধ করুন