বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিও অলিম্পিক্স > হাঁটুর অসহ্য যন্ত্রণাকে সঙ্গী করেই টোকিও-তে ব্রোঞ্জ জয় বজরং পুনিয়ার

হাঁটুর অসহ্য যন্ত্রণাকে সঙ্গী করেই টোকিও-তে ব্রোঞ্জ জয় বজরং পুনিয়ার

বজরং পুনিয়া। ছবি; পিটিআই

বজরং পুনিয়ার হাঁটুতে এতটাই যন্ত্রণা ছিল যে, পা ঠিক করে ফেলতেই পারছিলেন না বজরং পুনিয়া। তিনি জানান, তাঁকে তাঁর ফিজিও ব্রোঞ্জ মেডেল ম্যাচের আগে হাঁটুতে 'নি ব্রেস' লাগিয়ে ম্যাটে নামার পরামর্শ দিয়েছিলেন। কিন্তু বজরং তা পরে নামেননি।

শুভব্রত মুখার্জি : পুরুষদের কুস্তিতে ৬৫ কেজি ফ্রিস্টাইল বিভাগে ভারতকে সোনা এনে দেবেন বজরং পুনিয়া, এমনটাই আশা ছিল তাবড় তাবড় বিশেষজ্ঞদেরও। সোনা জয় সম্ভব না হলেও বজরং ব্রোঞ্জ জিতেছেন। কাজাকিস্তানের প্রতিযোগী দৌলত নিয়াজবেকভের বিরুদ্ধে ৮-০ জিতে ব্রোঞ্জ পদক পান বজরং। উল্লেখ্য আজারবাইজানের হাজি আলিয়েভের বিরুদ্ধে সেমিফাইনালে ৫-১২ ফলে বজরং পুনিয়া হেরে গিয়েছিলেন। ফলে তাকে ব্রোঞ্জ পদকের জন্য লড়তে হয়। তবে বজরং পুনিয়ার পদক জয়ের নেপথ্য কাহিনী অনেকেই জানেন না। অসহ্য হাঁটুর যন্ত্রণাকে সহ্য করেই পদক জয় নিশ্চিত করেছিলেন বজরং।

হাঁটুতে এতটাই যন্ত্রণা ছিল যে, পা ঠিক করে ফেলতেই পারছিলেন না বজরং পুনিয়া। তিনি জানান, তাঁকে তাঁর ফিজিও ব্রোঞ্জ মেডেল ম্যাচের আগে হাঁটুতে 'নি ব্রেস' লাগিয়ে ম্যাটে নামার পরামর্শ দিয়েছিলেন। কিন্তু বজরং তা পরে নামেননি। তিনি ফিজিওকে বোঝাতে সক্ষম হয়েছিলেন হাঁটুতে ব্রেস পড়লে তাঁর মনে হবে, হাঁটুটা যেন কেউ বেঁধে দিয়েছে। ফলে তিনি স্বাভাবিক ভাবে নড়াচড়া করতে পারবেন না। তার থেকে তিনি এই ঝুঁকিটা নেবেন। তার পরে যা হয় সেটা তিনি ও তাঁর কোচেরা মিলে বাউটের পরে সিদ্ধান্ত নেবেন।

বজরং আর ও জানান, তিনি এই চোটের কারণে সঠিক ভাবে অনুশীলনও করতে পারেননি। দৌড়তে পারছিলেন না। উল্লেখ্য তিনি আলি আলইয়েভের প্রতিযোগিতার সেমিফাইনালে তার হাঁটুতে চোট পেয়েছিলেন। বজরং আর ও জানাতে ভোলেননি সেমিফাইনালে হারের পরে তিনি অন্য সব অ্যাথলিটের মতন মুষড়ে পড়েছিলেন। কারও সাথে তাঁর কথা পর্যন্ত বলতে ভাল লাগছিল না।

বন্ধ করুন