বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিও অলিম্পিক্স > প্যারালিম্পিয়ানদের শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী, লড়াইয়ের গল্প শোনালেন সোনার ছেলে দেবেন্দ্র
দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ক্রীড়াবিদদের সঙ্গে ভিডিয়ো কনফারেন্সে কথা বলছেন (ছবি:এএনআই)
দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ক্রীড়াবিদদের সঙ্গে ভিডিয়ো কনফারেন্সে কথা বলছেন (ছবি:এএনআই)

প্যারালিম্পিয়ানদের শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী, লড়াইয়ের গল্প শোনালেন সোনার ছেলে দেবেন্দ্র

  • প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিজের জীবন লড়াইয়ের গল্প শোনালেন সোনা জয়ী প্যারালিম্পিয়ান দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া। 

মঙ্গলবার টোকিও গামী ৫৪ জন ভারতীয় প্যারালিম্পিয়ানদের সঙ্গে কথা বললেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এ দিন ক্রীড়াবিদদের শুভেচ্ছা জানালেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়াতে ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে সকল অ্যাথলিটের সঙ্গে মন খুলে কথা বললেন। তবে এ বিষয়ে প্রধনামন্ত্রী আগেই টুইট করে জানিয়েছিলেন। টোকিও প্যারালিম্পিক্স শুরু হচ্ছে ২৪ অগাস্ট থেকে, চলবে ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। ভারতীয় প্যারা-অ্যাথলিটরা ইতিমধ্যেই টোকিও পৌঁছে গিয়েছেন। বৃহস্পতিবার ৫৪ সদস্যের ভারতীয় দল টোকিওর উদ্দেশে রওনা হয়েছে। মঙ্গলবার প্যারা-অ্যাথলিটদের শুভেচ্ছা জানান কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। 

২৪ অগস্ট থেকে টোকিওতে শুরু হবে এ বারের প্যারালিম্পিক্সের আসর। এই প্রতিযোগিতায় ভারত থেকে অংশ নিচ্ছেন ৫৪ জন ক্রীড়াবিদ। ২০০৪ ও ২০১৬ প্যারালিম্পিক্সে জ্যাভলিন থ্রোয়ে সোনা জেতা ভারতের দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া এ বারও প্যারালিম্পিক্সে অংশ নিচ্ছেন। এছাড়া জ্যাভলিন চ্যাম্পিয়ন সন্দীপ চৌধুরী এবং হাইজাম্পার মরিয়াপ্পান থঙ্গাভেলুও এ বার প্যারালিম্পিক্সে যোগ দিচ্ছেন। তাঁদের কাছ থেকে পদকের আশায় রয়েছে দেশ।

২০১৬ সালে রিও প্যারালিম্পিক্সে ভারত দু’টি সোনা, একটি রুপো ও একটি ব্রোঞ্জ জিতেছিল। এ বারে ভারতীয় অ্যাথলিটদের থেকে আরও বেশি পদকের আশা করছে গোটা দেশ। যে ভাবে নীরজ চোপড়ারা টোকিও অলিম্পিক্সে ইতিহাস তৈরি করেছেন, এ বারের টোকিও অলিম্পিক্সে তেমনই কিছু ঐতিহাসিক সাফল্য পাবেন দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়ারা, এমনটাই মনে করেন প্রধানমন্ত্রী। এ দিন প্রত্যেক ক্রীড়াবিদকে আলাদা করে উৎসাহিত করলেন তিনি।   

রিও প্যারালিম্পিক্সে শট পাটে রুপো জেতা দীপা মালিক আশাবাদী, এ বার ভারতের ফল গতবারের চেয়েও ভাল হবে। এ দিন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে নিজের জীবন লড়াইয়ের কথা জানালেন দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়া। নরেন্দ্র মোদীকে তিনি বলেন, ‘স্যার, আপনি সবসময় প্যারা-ক্রীড়াবিদদের উৎসাহিত করেছেন, এবং এখন আমরা টোকিও প্যারালিম্পিক্সে আমাদের সেরাটা দিতে চেষ্টা করব। যখন আমার বয়স নয় বছর ছিল, তখন আমি আমার হাত হারিয়েছিলাম। আমি ফিরে এসে নিজের বাড়ির বাইরে বেরতে পারতাম না। যখন আমি স্কুলে খেলা শুরু করি, যখন আমি জ্যাভলিন থ্রো করতাম, তখন আমাকে অনেক লড়াই করতে হয়েছিল। তবে তখন আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম যে আমি দুর্বল হবো না, জীবনে আমি শিখেছি যে যখন আমাদের সামনে একটি চ্যালেঞ্জ থাকে তখন আপনি সাফল্য অর্জনের কাছাকাছি পৌঁছে যান। আমাকে বলা হয়েছিল যে আমার পড়াশোনা করা উচিত এবং খেলাধুলায় আমার কোন স্থান নেই, কিন্তু আমি এটাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি।’

বন্ধ করুন