বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিও অলিম্পিক্স > দুরন্ত খেলেও পদক হাতছাড়া অদিতির, গল্ফে স্বপ্নভঙ্গ ভারতের
অদিতি অশোক। ছবি- রয়টার্স (REUTERS)

দুরন্ত খেলেও পদক হাতছাড়া অদিতির, গল্ফে স্বপ্নভঙ্গ ভারতের

  • চার নম্বরে শেষ করে অলিম্পক্সি পদকের দোরগোড়া থেকে ফিরতে হল ভারতের মহিলা গল্ফারকে।

প্রথম রাউন্ডের শেষে যুগ্মভাবে দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন অদিতি অশোক। টোকিও অলিম্পিক্সের গল্ফ থেকে ভারতে পদক জয়ের স্বপ্ন দেখা শুরু সেই থেকেই। দ্বিতীয় রাউন্ডের শেষেও ভারতের ২৩ বছর বয়সী মহিলা গল্ফার ছিলেন যুগ্মভাবে দ্বিতীয় স্থানে।

তৃতীয় রাউন্ডের শেষে এককভাবে দ্বিতীয় স্থান দখল করে দেশকে রুপো জয়ের স্বপ্নে বিভোর করেন অদিতি। তবে শেষ রাউন্ডের লড়াইয়ে স্বপ্নভঙ্গ হয় ভারতীয় তারকার। এমনটা নয় যে, চতুর্থ রাউন্ডে ভালো খেলতে পারেননি অদিতি। বরং, তিনি ধারাবাহিকতা বজায় রাখেন আগাগোড়া। তবে জাপানের মোনে ইনামি ও নিউজিল্যান্ডের লিদিয়া কো অদিতিকে টেক্কা দিয়ে যান শেষ রাউন্ডে।

একেবারে শেষ শট পর্যন্ত লড়াইয়ে টিকে ছিলেন অদিতি। শেষমেশ চার নম্বরে থেকে ইভেন্ট শেষ করেন ভারতীয় তারকা। অল্পের জন্য হাতছাড়া হয় অলিম্পিক্স পদক।

আরও পড়ুন: গল্ফ থেকে ভারতকে প্রথম অলিম্পিক্স পদক এনে দিতে পারেন অদিতি, জেনে নিন খেলাটির প্রাথমিক নিয়ম

টোকিওয় মেয়েদের গল্ফের ব্যক্তিগত স্ট্রোক প্লে ইভেন্টের শেষ রাউন্ডে ১৩টি হোলের পর অদিতি ছিলেন যুগ্মভাবে দ্বিতীয় স্থানে। জাপানের মোনে ইনামি ও নিউজিল্যান্ডের লিদিয়া কো ছিলেন অদিতির সঙ্গে একাসনে। শীর্ষ ছিলেন আমেরিকার নেলি করদা। বাকি ৫টি হোলের খেলার গতিপ্রকৃতিতে চোখ রাখুন-

শেষ রাউন্ডের প্রথম ১৩টি হোলে অদিতির স্কোর: ৪ (পারড), ৪ (পারড), ৪ (পারড), ৩ (পারড), ৪ (বার্ডি), ৩ (বার্ডি), ৩ (পারড), ৪ (বার্ডি), ৫ (বোগি), ৩ (পারড), ৫ (বোগি), ৪ (পারড), ৩ (বার্ডি)।

১৪ নম্বর হোলে অদিতির স্কোর: ৪ (বার্ডি)। তিনি যুগ্মভাবে তৃতীয় স্থানে পিছিয়ে যান। জাপানের মোনে ইনামি এককভাবে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসেন।

১৫ নম্বর হোলে অদিতির স্কোর: ৪ (পারড)। তিনি চতুর্থ স্থানে পিছিয়ে যান। নিউজিল্যান্ডের লিদিয়া কো এককভাবে তিন নম্বরে স্থানে উঠে আসেন।

১৬ নম্বর হোলে অদিতির স্কোর: ৩ (পারড)। তিনি নিউজিল্যান্ডের লিদিয়া কোর সঙ্গে যুগ্মভাবে তৃতীয় স্থানে ছিলেন।

বৃষ্টিতে খেলা সাময়িকভাবে বন্ধ থাকে। ঝড়ের আশঙ্কা ছিল। পরবর্তী আপডেট পাওয়া যায় ভারতীয় সময় অনুযায়ী বেলা ৯টা ৩০ মিনিট নাগাদ। অদিতি তখন যুগ্মভাবে তৃতীয় স্থানে ছিলেন (ব্রোঞ্জ পদকের দাবিদার)।

প্রকৃতির বাধায় চতুর্থ রাউন্ডের খেলা শেষ করা না গেলে ৫৪ হোলেই (তৃতীয় রাউন্ডের শেষে) মেয়েদের গল্ফ ইভেন্ট শেষ করা হতো। যেহেতু অদিতি তৃতীয় রাউন্ডের শেষে এককভাবে দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন, তাই সেই নিরিখে রুপোর পদক জিততেন ভারতীয় তারকা। যদিও আবহাওয়া অনুমতি দিলে রবিবার খেলা শেষ করার রাস্তা খোলা ছিল আয়োজকদের সামনে।

আশার আলো: বৃষ্টি থামার পর খেলা শুরু হয় ভারতীয় সময় অনুয়ায়ী বেলা ৯টা ৪৫ মিনিটে।

১৭ নম্বর হোলে অদিতির স্কোর: ৪ (পারড)। তিনি চার নম্বরে পিছলে যান। বাকি মাত্র ১টি হোলের খেলা। উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, আগের তিনটি রাউন্ডেই ১৭ নম্বর হোলে অদিতির স্কোর ছিল ৩ (বার্ডি)। চাপের মুখে নিজের সেরাটা মেলে ধরতে পারেননি ভারতীয় তারকা।

১৮ নম্বর হোলে অদিতির স্কোর: ৪ (পারড)। চার নম্বরেই থামতে হয় ভারতীয় তারকাকে। অল্পের জন্য অলিম্পিক্স পদক হাতছাড়া করলেন অদিতি। শেষ রাউন্ডে অদিতির স্কোর থ্রি আন্ডার ৬৮। সার্বিকভাবে চার রাউন্ডে তাঁর স্কোর ফিফটিন আন্ডার পার ২৬৯।

অতিদির স্কোর:-
প্রথম রাউন্ড- ফোর আন্ডার ৬৭
দ্বিতীয় রাউন্ড- ফাইভ আন্ডার ৬৬
তৃতীয় রাউন্ড- থ্রি আন্ডার ৬৮
চতুর্থ রাউন্ড- থ্রি আন্ডার ৬৮

মেয়েদের গল্ফের সার্বিক স্কোর:-
১. নেলি কর্ডা (আমেরিকা)- সেভেন্টিন আন্ডার পার ২৬৭
২. মোনে ইনামি (জাপান)- সিক্সটিন আন্ডার পার ২৬৮
৩. লিদিয়া কো (নিউজিল্যান্ড)- সিক্সটিন আন্ডার পার ২৬৮
৪. অদিতি অশোক (ভারত)- ফিফটিন আন্ডার পার ২৬৯
নেলি কর্ডা সোনা জিতলেন ইভেন্টে। যুগ্মভাবে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইনামি ও কো সিলভার মেডেল প্লে-অফে অংশ নেন। প্লে-অফে জিতে রুপোর পদক দখল করেন জাপানি তারকা। প্লে-অফে পরাজিত হয়ে ব্রোঞ্জ পদকেই সন্তুষ্ট থাকতে হয় লিদিয়াকে।

বন্ধ করুন