বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিও অলিম্পিক্স > ছয় বলে ৬ ছক্কা খেয়েছিলেন অলিম্পিক্সে ভারত-বেলজিয়াম ম্যাচের আম্পায়ারের ভাই!

ছয় বলে ৬ ছক্কা খেয়েছিলেন অলিম্পিক্সে ভারত-বেলজিয়াম ম্যাচের আম্পায়ারের ভাই!

কোয়েন ভ্যান বাঞ্জ এবং ড্যান ভ্যান বাঞ্জ। (ছবি সৌজন্য, টুইটার @DrShivasis)

২০০৭ সালে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপে খবরের শিরোনামে এসেছিলেন ভারত-বেলজিয়াম ম্যাচের আম্পায়ারের ভাই।

ভারতীয হকি দলের সেমিফাইনালে তাঁর রেফারিং নিযে তুমুল বিতর্ক হয়েছে। তারইমধ্যে নেদারল্যান্ডসের সেই আম্পায়ার কোয়েন ভ্যান বাঞ্জের নয়া পরিচয় খুঁজে পাওয়া গেল।মঙ্গলবার অলিম্পিক্সে ভারত-বেলজিয়াম ম্যাচের আম্পায়ারের ভাই আবার ক্রিকেট খেলতেন। যিনি হার্শেল গিবসের কাছে এক ওভারে ছ'টি ছক্কা খেয়েছিলেন।

(টোকিও অলিম্পিক্স ২০২০-এর যাবতীয় খবর, আপডেটের জন্য চোখ রাখুন -- এখানে)

মঙ্গলবার টোকিও অলিম্পিক্সের সেমিফাইনাল ম্যাচে বেলজিয়াম আম্পায়ারের বদন্যতা পেয়েছে বলে দাবি করেন নেটিজেনরা। তাঁদের দাবি, কমপক্ষে দুটি গোল বেলজিয়ামকে ‘উপহার’ দিয়েছেন আম্পায়ার। তা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগরে দিতে থাকেন নেটিজেনরা। আম্পায়ারের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তোলা হতে থাকে। তারইমধ্যে একটি তথ্যে কিছুটা ক্ষোভ প্রশমিত হয়েছে নেটিজেনদের।

টোকিও অলিম্পিক্সে ভারত-বেলজিয়াম ম্যাচের আম্পায়ার কোয়েন আদতে নেদারল্যান্ডসের প্রাক্তন ক্রিকেটার ড্যান ভ্যান বাঞ্জের দাদা। যে ড্যান ২০০৭ সালে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপে খবরের শিরোনামে এসেছিলেন। আন্তর্জাতিক ম্যাচে প্রথম বোলার হিসেবে এক এভারে ছ'টি ছক্কা খেয়েছিলেন। সেই বেদম মার হজম করতে হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন তারকা গিবসের হাতে। দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংসের ৩০ তম ওভারে ৩৬ রান তুলেছিলেন গিবস। ড্যানের প্রায় ১১ বছরের ক্রিকেট কেরিয়ারে সেটাই সবথেকে বড় পরিচিত হয়ে উঠেছিল।

শুধু তাই নয়, খোদ ভারত-বেলজিয়াম ম্যাচের আম্পায়ার কোয়েন নিজেও ক্রিকেট খেলেছিলেন। ইএসপিএন ক্রিকইনফোর তথ্য অনুযায়ী, ডান হাতে ব্যাট করতেন। করতেন বাঁ-হাতি মিডিয়াম পেস বোলিং। অলরাউন্ডার হিসেবে খেলতেন। ১৯৯৬ সালে ইংল্যান্ড লোমবার্ড অনূর্ধ্ব-১৫ বিশ্বকাপে নেদারল্যান্ডসের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন। পরের বছর হল্যান্ডের অনূর্ধ্ব-১৭ দলের সঙ্গে ইংল্যান্ড সফরে গিয়েছিলেন। কুইক হ্যাগ, ভুরবার্গ সিসির মতো দলের হয়েও খেলেছিলেন।

বন্ধ করুন