বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিও অলিম্পিক্স > ‘মানসিক স্বাস্থ্য’ নিয়ে বাইলস, ওসাকার পাশে দাঁড়িয়ে সরব বিরাট কোহলিদের কোচ
সিমোনে বাইলস এবং নাওমি ওসাকা।

‘মানসিক স্বাস্থ্য’ নিয়ে বাইলস, ওসাকার পাশে দাঁড়িয়ে সরব বিরাট কোহলিদের কোচ

  • ‘মানসিক স্বাস্থ্য’ নিয়েই বাইলস, ওসাকারা রীতিমতো বিপর্যস্ত। তাঁদের পাশে দাঁড়িয়ে উদ্বুদ্ধ করলেন রবি শাস্ত্রী।

‘মানসিক স্বাস্থ্যে’র সমস্যার কারণেই এ বার টোকিও-তে প্রথমে দলগত ইভেন্টের ফাইনাল থেকে সরে গিয়েছিলেন। এর পর মহিলাদের অল-অ্যারাউন্ড ফাইনাল থেকেও নাম তুলে নেন বিশ্বের অন্যতম সেরা জিমন্যাস্ট সিমোনে বাইলস। ‘মানসিক স্বাস্থ্যে’ নজর দেওয়ার কারণেই নাকি ২৪ বছরের তারকা এই কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

তবে অলিম্পিক্সের মঞ্চ থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্তটা সহজ ছিল না। এর জন্য়ও মনের জোর প্রয়োজন। তবে এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য সিমোনে বাইলসের ভক্তদের মতোই তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছেন বিরাট কোহলিদের কোচ রবি শাস্ত্রী। শুধু সিমোনে বাইলস নয়, তিনি নাওমি ওসাকার পাশে দাঁড়িয়ে, তাঁকেও উদ্বুদ্ধ করেছেন। একটি টুইটে রবি শাস্ত্রী লিখেছেন, ‘তুমি তোমার সময় নাও সিমোনে বাইলস। অনেক কম বয়সে তুমি বহু সাফল্যই পেয়েছো। ৪৮ ঘণ্টা হোক বা ৪৮ দিন, তুমি সময় নাও। কিন্তু করে দেখাও চ্যাম্পিয়ন। আর কাউকে কোনও ব্যাখ্যা দেওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই তোমার। নাওমি ওসাকাকেও একই কথা বলব। গড ব্লেস ইউ গার্লস।’

প্রসঙ্গত, টোকিয়ো অলিম্পিক্সে মহিলাদের সিঙ্গলসের তৃতীয় রাউন্ডে চেক প্রজাতন্ত্রের মার্কেতা ভন্ড্রোসোভার কাছে হেরে যান বিশ্বের দুই নম্বরে থাকা জাপানি তারকা নাওমি ওসাকা। ওসাকা এই বছর অস্ট্রেলিয়ান ওপেন চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন। তার পরে ফ্রেঞ্চ ওপেনে সাংবাদিক সম্মেলন না করতে চাওয়া নিয়ে ঝামেলা এত দূর গড়ায়, নাওমি অপমানে নাম তুলে নেন। সেই সময়ে নাওমি নিজের ‘মানসিক স্বাস্থ্যে’র কথাই বলেছিলেন। তাঁর সমস্যা হচ্ছিল বলেই তিনি  সাংবাদিক সম্মেলন করতে চাননি। আর একই কারণে নাওমি উইম্বলডন থেকেও নাম তুলে নিয়েছিলেন। এই সব নিয়ে বহু বিতর্কও হয়েছিল। তার পরেই অলিম্পিক্সের ব্যর্থ হন নাওমি। সব মিলিয়েই বাইলসের মতো নাওমিকেও উদ্বুদ্ধ করারই চেষ্টা করেছেন রবি শাস্ত্রী।

বন্ধ করুন