বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিও অলিম্পিক্স > অলিম্পিক্সের প্রস্তুতি নিয়ে SAI আর AFI-এর উপর ক্ষোভ প্রকাশ জ্যাভলিন কোচের
নীরজ চোপড়ার সঙ্গে উয়ে হন।
নীরজ চোপড়ার সঙ্গে উয়ে হন।

অলিম্পিক্সের প্রস্তুতি নিয়ে SAI আর AFI-এর উপর ক্ষোভ প্রকাশ জ্যাভলিন কোচের

  • অলিম্পিক্সের আগেই তিনি স্পোর্টস অথারিটি অফ ইন্ডিয়া এবং ভারতের অ্যাথলেটিক ফেডারেশনের উপর রীতিমতো তোপ দেগেছিলেন উয়ে হন। প্রসঙ্গত জার্মানির উয়ে হনই একমাত্র জ্যাভলার যিনি ১০০ মিটারের বেশি বর্শা ছুড়ে রেকর্ড করেছেন। এখনও পর্যন্ত তাঁকে কেউ স্পর্শ করতে পারেননি।

নীরজ চোপড়ার সোনার পদক জয় নিয়ে যখন ভারত উচ্ছ্বসিত, তখনই ভারতের জ্যাভলিন কোচ উয়ে হনের ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকার আবার প্রকাশ্যে এসেছে। যেখানে নিজের ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন জার্মান কোচ।  

অলিম্পিক্সের আগেই তিনি স্পোর্টস অথারিটি অফ ইন্ডিয়া (সাই) এবং ভারতের অ্যাথলেটিক ফেডারেশনের (এএফআই) উপর রীতিমতো তোপ দেগেছিলেন উয়ে হন। প্রসঙ্গত জার্মানির উয়ে হনই একমাত্র জ্যাভলার যিনি ১০০ মিটারের বেশি বর্শা ছুড়ে রেকর্ড করেছেন। এখনও পর্যন্ত তাঁকে কেউ স্পর্শ করতে পারেননি।

অলিম্পিক্সের আগে প্রস্তুতি নিয়েই রীতিমতো বিরক্তি প্রকাশ করেছেন জ্যাভলিন কোচ উয়ে হন। তাঁর দাবি, ভারতীয় অ্যাথলিটরা কোনও ভাবেই আন্তর্জাতিকমানের প্রশিক্ষণ পান না। সাই বা এএফআই নিজেরা দাবি করে থাকে, পাতিয়ালায় আন্তর্জাতিক মানের ট্রেনিং-এর ব্যবস্থা রয়েছে। কিন্তু সেটা আন্তর্জাতিক মানের ব্যবস্থার ধারেকাছেও যায় না।

 তিনি বলেওছেন, ‘পাতিয়ালার ট্রেনিং কন্ডিশন আন্তর্জাতিক মানের ধারেকাছেও যায় না। অথচ সাই বা এএফআই দাবি করে, বিশ্বের সেরা প্রস্তুতির ব্য়বস্থা রয়েছে এখানে।’ তিনি আরও বলেছেন, ‘অনেক কিছু বদলে দেওয়ার স্বপ্ন নিয়ে এ দেশে এসেছিলাম। কিন্তু সাই বা এএফআই-এর কর্মীরা থাকলে সেটা করা কোনও ভাবেই সম্ভব নয়। সত্যি বুঝতে পারি না, ওরা কাজটা জানে না, নাকি করতেই চায় না। খেলোয়াড়দের পুষ্টির জন্য যে ধরনের খাবার প্রয়োজন, সেটাও দেওয়া হয় না।’

নীরজের সাফল্যের জন্য কিন্তু একটি বড় অবদান রয়েছে উয়ে হনের। তাঁর হাত ধরেই কিন্তু নিজেকে বদলে ফেলেন নীরজ চোপড়া। যদি অলিম্পিক্সের আগে তিনি বিদেশে গিয়েছিলেন নিজের প্রস্তুতি সারতে।

বন্ধ করুন