বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিও অলিম্পিক্স > অবিশ্বাস্য নজির! ছেলেদের ৪০০ মিটার হার্ডলসে সোনা ও রুপো জয়ী দুই অ্যাথলিট টপকে গেলেন আগের বিশ্বরেকর্ড
অবিশ্বাস্য কীর্তি ছেলেদের ৪০০ মিটার হার্ডলসে। ছবি- পিটিআই।

অবিশ্বাস্য নজির! ছেলেদের ৪০০ মিটার হার্ডলসে সোনা ও রুপো জয়ী দুই অ্যাথলিট টপকে গেলেন আগের বিশ্বরেকর্ড

  • প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানাধিকারী তিন অ্যাথলিটই পিছনে ফেললেন পুরনো অলিম্পিক্স রেকর্ড।

একই ইভেন্টের প্রথম ও দ্বিতীয় স্থানাধিকারী, দুই অ্যাথলিটই অলিম্পিক্সের আসরে পুরনো বিশ্বরেকর্ডকে টপকে গিয়েছেন, এমনটা সচরাচর দেখা যায় না। টোকিওয় ঠিক সেটাই হল ছেলেদের ৪০০ মিটার হার্ডলসে। এক্ষেত্রে একজন নতুন বিশ্বরেকর্ড গড়লেন এবং অপরজন আগের বিশ্বরেকর্ডের থেকেও কম সময়ে ইভেন্ট শেষ করেন।

নরওয়ের কার্স্টেন ওয়ারহলম ৪০০ মিটার হার্ডলসে বিশ্বরেকর্ড গড়ে সোনা জিতলেন। তিনি নিজের গড়া পুরনো রেকর্ডকেই ভেঙে দেন। টোকিওয় কার্স্টেন ইভেন্ট শেষ করেন ৪৫.৯৪ সেকেন্ডে। গত মাসেই তিনি ৪৬.৭০ সেকেন্ডে রেস শেষ করে বিশ্বরেকর্ড গড়েছিলেন নরওয়ের ওসলোতে।

এবার টোকিওয় দ্বিতীয় স্থানে থেকে রুপো জেতা আমেরিকার রাই বেঞ্জামিন ইভেন্ট শেষ করেন ৪৬.১৭ সেকেন্ডে। সুতরাং, তিনিও টপকে যান আগের বিশ্বরেকর্ড।

উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, তৃতীয় স্থানে থেকে ব্রোঞ্জ জেতা ব্রাজিলের অ্যালিসন স্যান্টোস ৪৬.৭২ সেকেন্ডে ইভেন্ট শেষ করেছেন। সুতরাং, অল্পের জন্য আগের বিশ্বরেকর্ড টপকে যেতে পারেননি তিনি। তবে একমাস আগে হলে, এটিই বিশ্বরেকর্ডের মর্যাদা পেতে পারত।

আগের অলিম্পিক্স রেকর্ড ছিল আমেরিকার কেভিন ইয়ংয়ের নামে। তিনি ১৯৯২ সালে ৪৬.৭৮ সেকেন্ডে ইভেন্ট শেষ করেছিলেন। সুতরাং, টোকিওয় সোনা, রুপো ও ব্রোঞ্জ জেতা তিন তারকাই আগের অলিম্পিক্স রেকর্ড টপকে গেলেন। যার অর্থ, অলিম্পিক্সে সর্বকালের সেরা সময়ে এবার তিন অ্যাথলিট ৪০০ মিটার হার্ডলসে পদক জিতলেন। সন্দেহ নেই অলিম্পিক্সের ইতিহাসে অত্যন্ত বিরল নজির স্থাপন করল এই ইভেন্টে। এবার থেকে ছেলেদের ৪০০ মিটার হার্ডলসে বিশ্বরেকর্ড ও অলিম্পিক্স রেকর্ড দুইই লেখা থাকবে কার্স্টেনের নামে।

আগের বিশ্বরেকর্ড ছিল: কার্স্টেন ওয়ারহলম (৪৬.৭০)
আগের অলিম্পিক্স রেকর্ড ছিল: কেভিন ইয়ং (৪৬.৭৮)
এবার সোনা জিতলেন: কার্স্টেন ওয়ারহলম (৪৫.৯৪)
এবার রুপো জিতলেন: রাই বেঞ্জামিন (৪৬.১৭)
এবার ব্রোঞ্জ জিতলেন: অ্যালিসন স্যান্টোস (৪৬.৭২)

বন্ধ করুন