বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিও অলিম্পিক্স > মাটিতে বসেই পাত পেড়ে খেলেন 'ঘরের মেয়ে' মীরাবাঈ চানু
মাটিতে বসেই খাচ্ছেন মীরাবাঈ চানু
মাটিতে বসেই খাচ্ছেন মীরাবাঈ চানু

মাটিতে বসেই পাত পেড়ে খেলেন 'ঘরের মেয়ে' মীরাবাঈ চানু

  • ঘরে ফিরলেন টোকিওতে ভারতের প্রথম পদকজয়ী মীরাবাঈ চানু,মাটিতে বসেই পাত পেড়ে খাবার খেলেন 'ঘরের মেয়ে'।

শুভব্রত মুখার্জি: বয়স মাত্র ২৬ বছর। আর এই বয়সেই তিনি হয়ে উঠেছেন গোটা ১৩০ কোটির দেশের নয়নের মণি। তিনি মণিপুরের তরুণী ভারোত্তলোক ভারতের মীরাবাঈ চানু। তার হাত ধরেই চলতি গেমসে ভারতের প্রথম এবং এখন পর্যন্ত একমাত্র পদক জিতেছে ভারত। মহিলাদের ৪৯ কেজি বিভাগে ক্লিন অ্যান্ড জার্ক এবং স্ন্যাচ মিলিয়ে মোট ২০২ কেজি ওজন তুলে রুপো দেশকে বিশ্ব মঞ্চে গর্বিত করেছিলেন তিনি।

এরপর টোকিও থেকে দিল্লি হয়ে তার শহর ইম্ফলে ফিরেছেন মীরাবাঈ চানু। দেশের প্রধানমন্ত্রী থেকে আমজনতার সকলের শুভেচ্ছাতে ভেসেছেন। বিভিন্ন মহল থেকে তাকে পুরস্কৃত করা হয়েছে। মণিপুর সরকার তাকে চাকরীতে পদোন্নতি দেওয়ার পাশাপাশি ১ কোটি টাকার পুরস্কারও দিয়েছেন। তবে এতকিছু সত্বেও ঘরের মেয়ে চানু কিন্তু একটু বদলায়নি। তার বাবা -মা'র কাছে ফিরেই হয়ে গিয়েছেন সেই ছোট্ট চানু। পরিবারের লোকজনের সাথে মন খুলে কাটাচ্ছেন সময়। চলছে দেদার পারিবারিক আড্ডা। শুধু তাই নয় ঘরের মেঝেতে বাবা ও আত্মীয়ের সাথে টি-শার্ট ও শুট প্যান্ট এবং স্লিপার্স পায়ে মাটিতে বসে এক সাদা প্লেটে পাত পেড়ে শাক,ডাল,সব্জি দিয়ে ভাত খেতে পর্যন্ত দেখা গিয়েছে তাঁকে। তার এই ঘরের মেয়ে 'ইমেজ'কে কুর্নিশ জানিয়ে সোশাল মিডিয়াও।

দিনের শেষে চানু নিজের অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেল থেকে সকলের উদ্দেশ্যে বার্তা দেওয়ার পাশাপাশি বাবা-মা'র আত্মত্যাগকে ও কুর্নিশ জানাতে ভোলেননি। তিনি লিখেছেন '২ বছর পরে পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে পাওয়ার সুযোগকে ভাষায় বর্ণনা করা সম্ভব নয়। আমি আপনাদের সবার কাছে কৃতজ্ঞ যারা আমার উপর ভরসা রেখেছেন এবং আমাকে সমর্থন করেছেন। ধন্যবাদ এমা (মণিপুরী ভাষায় 'মা') এবং বাবা আমার কারণে এতটা আত্মত্যাগ করার জন্য। তোমাদের আত্মত্যাগ আজ আমাকে এই জায়গায় পৌছে দিয়েছে।'

বন্ধ করুন