বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিও অলিম্পিক্স > শ্রীজেশদের কোচ গ্রাহাম রিডের শেষ মিনিটের টোটকা মনে করিয়েছিল কবীর খানকে
কোচ গ্রাহাম রিডের সামনে ভারতীয় হকি দল (ছবি:অলিম্পিক্স)
কোচ গ্রাহাম রিডের সামনে ভারতীয় হকি দল (ছবি:অলিম্পিক্স)

শ্রীজেশদের কোচ গ্রাহাম রিডের শেষ মিনিটের টোটকা মনে করিয়েছিল কবীর খানকে

  • তাহলে কি ভারতীয় হকি দলের কোচ গ্রাহাম রিডকে দ্রোণাচার্য পুরস্কার দেওয়া হবে। কারণ গোটা দেশের মুখে যে খুশির হাসিটা উঠেছে তার প্রধান কারিগর তো অস্ট্রেলিয়ার ৫৭ বছরের এই মানুষটাই।

৪১ বছর পরে অলিম্পিক্সে ফের পদক। খুশিতে বাঁধ ভেঙেছে ভারতের। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও টোকিওতে সারপ্রাইজ ফোন কল করে ফেললেন। খেলোয়াড় থেকে কোচ সকলের সঙ্গে কথা বললেন, সকলকে জানালেন ১৫ই অগস্ট দেখা হচ্ছে। এমন দিনে ভারতের হকি দলের প্রধান কোচকে নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েগেল। তাহলে কি ভারতীয় হকি দলের কোচ গ্রাহাম রিডকে দ্রোণাচার্য পুরস্কার দেওয়া হবে। কারণ গোটা দেশের মুখে যে খুশির হাসিটা উঠেছে তার প্রধান কারিগর তো অস্ট্রেলিয়ার ৫৭ বছরের এই মানুষটাই। 

(টোকিয়ো অলিম্পিক্স ২০২০-এর যাবতীয় খবর, আপডেটের জন্য চোখ রাখুন -- এখানে)

গ্রাহাম রিডের হাত ধরেই টোকিও অলিম্পিক্সে পদকের স্বপ্ন দেখার শুরু করেছিল শ্রীজেশরা। খুব বেশি দিন হয়নি গ্রাহাম ভারতের জাতীয় দলের দায়িত্ব নিয়েছেন। ২০১৯ সালে শ্রীজেশদের দায়িত্ব নেওয়ার পর নিজের কাজটা শুরু করে দিয়েছিলেন তিনি। দলের দুর্বলতা খুঁজেছিলেন। সব চ্যালেঞ্জকে অতিক্রম করে সফল হয়েছেন তিনি। ভারতের কোচ গ্রাহাম রিড এমনিতেই কম কথার বলেন। তবে আজ তার ছেলেরা ইতিহাস তৈরি করার পর আবেগপ্রবণ হয়ে যান।

ম্যাচের পরে গ্রাহাম জানান দল সেমিফাইনালে হারের পরে ছেলেদের কী বলে তিনি তাতিয়েছিলেন। তিনি জানান আমি তাদের বলেছিলাম যে ১৯৮৮ সালে যখন আমি অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলছি তখনও আমরা চতুর্থ হয়েছিলাম। তবে সেদিন আমরা চেষ্টা করলে হয়তো পদক জিততে পারতাম, কিন্তু সেটা করতে ব্যর্থ হয়েছিলাম। সেদিন আমি বুঝেছিলাম আমরা খেলার ফল বদলাতে পারবনা কিন্তু নিজের খেলা দিয়ে ভবিষ্যতটা বদলাতে পারি। এছাড়াও ভারতের কোচ বলেন, ম্যাচের আগে তিনি দলকে ব্রোঞ্জের একটি ছবি দেখিয়েছিলাম। তিনি শ্রীজেশদের বুঝিয়েছিলেন এই পদক পেতে হলে কী করতে হবে। এই সাফল্যের পরেই ভারতীয় হকি দলের কোচ গ্রাহাম রিডকে দ্রোণাচার্য পুরস্কার দেওয়ার দাবি উঠেছে।

বন্ধ করুন