বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিও অলিম্পিক্স > Tokyo 2020: অসহ যন্ত্রণা সহ্য করে জয়, ম্যাচ চলাকালীন রবি কুমারের হাতে কামড় বসিয়ে প্রবল সমালোচনার মুখে কাজাখ কুস্তিগীর
কাজাখ প্রতিপক্ষকে ধরাশায়ী করে জয়ের পর রবি কুমার দাহিয়া। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)
কাজাখ প্রতিপক্ষকে ধরাশায়ী করে জয়ের পর রবি কুমার দাহিয়া। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)

Tokyo 2020: অসহ যন্ত্রণা সহ্য করে জয়, ম্যাচ চলাকালীন রবি কুমারের হাতে কামড় বসিয়ে প্রবল সমালোচনার মুখে কাজাখ কুস্তিগীর

  • নুরিস্ল্যাম সানায়েভকে পরাস্ত করে ফাইনালে নিজের জায়গা পাকা করেন রবি কুমার।

ছেলেদের ফ্রি-স্টাইল কুস্তির ৫৭ কেজি বিভাগের সেমিফাইনাল ম্যাচে কাজাখাস্তানের নুরিস্ল্যাম সানায়েভকে পরাজিত করে ফাইনালে নিজের জায়গা পাকা করেন রবি কুমার দাহিয়া। পিছিয়ে থেকেও সেমিফাইনাল দুরন্তভাবে ম্যাচ জিতে নেন ভারতীয় তারকা।

ম্যাচ জয়ের জন্য় শুধুই দক্ষতা নয়, রবি কুমারকে সহ্য করতে হয়েছে অসহ্য যন্ত্রণাও। রবি তাঁকে টেকডাউন করার পর কিছুতেই, সেই বন্ধন ছাড়িয়ে বেরোতে পারছিলেন কাজাখ কুস্তিগীর। এর ফলেই ভারতীয় তারকার কবল থেকে নিজেকে মুক্ত করতে অকল্পনীয়ভাবে তাঁকে কামড়ে দেন সানায়েভ।

তবে ম্যাচের শেষ মুহূর্তে কাজাখ তারকার কামড়ও লক্ষ্য থেকে টলাতে পারেনি রবি কুমারকে। নিজের হোল্ড কোনভাবেই ছাড়েননি তিনি। এহেন অখেলোয়াড়সুলভ আচরণের বিরুদ্ধে এখনও অবধি ভারতীয় কুস্তি দল কোনরকম নালিশ জানায়নি। কিন্তু এই বিতর্ক এখানেই থামার নয়। কীভাবে এই ঘটনা রেফারির নজর এড়িয়ে গেল, তা নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন।

(টোকিও অলিম্পিক্স ২০২০-র যাবতীয় খবর, আপডেটের জন্য চোখ রাখুন হিন্দুস্তান টাইমস বাংলায়)

অবশ্য় কামড়ের ঘটনা এবারের অলম্পিক্সে এই প্রথম নয়। এর আগেও হেভিওয়েট বক্সিং বিভাগে প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে পরাজয়ের মুখে দাঁড়িয়ে থাকা মরক্কোর ইউনেস বাল্লা, তাঁর প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ডের ডেভিড নায়কাকে কামড়ে দেন। ঘটনাটি রেফারির চোখ এড়িয়ে যাওয়ায় বাল্লার সেইসময় কোন শাস্তিই হয়নি। সামায়েভের বিরুদ্ধে কোন ব্যাবস্থা নেওয়া হয় কিনা, এখন সেটাই দেখার।

বন্ধ করুন