বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিও অলিম্পিক্স > Tokyo 2020: সকলকে চমকে দিয়ে ১০০ মিটারে নতুন রাজা ইতালির স্প্রিন্টার
১০০ মিটারে নতুন চ্যাম্পিয়ন ইতালির স্প্রিন্টার মার্সেল জ্যাকবস।
১০০ মিটারে নতুন চ্যাম্পিয়ন ইতালির স্প্রিন্টার মার্সেল জ্যাকবস।

Tokyo 2020: সকলকে চমকে দিয়ে ১০০ মিটারে নতুন রাজা ইতালির স্প্রিন্টার

  • বোল্ট সাম্রাজ্যের নতুন রাজা ইতালির স্প্রিন্টার। ১০০ মিটারে ইতালির স্প্রিন্টার মার্সেল জ্যাকবস সময় নিলেন ৯.৮০ সেকেন্ড। নিজের সেরা পারফরম্যান্স দিলেও বোল্টের রেকর্ড তাঁর ভাঙা হল না।

১০০ মিটারে নতুন রাজা পেল টোকিও। যদিও উসেইন বোল্টের ধারেকাছে পৌঁছতে পারলেন না ইতালির স্প্রিন্টার মার্সেল জ্যাকবস। তিনি সময় নিলেন সময় নিলেন ৯.৮০ সেকেন্ড। সেখানে বোল্টের সময় ছিল ৯.৫৮। তবে ইতালির স্প্রিন্টার ১০০ মিটারে চ্যাম্পিয়ন হয়ে সকলকে কিছুটা চমকেই দিয়েছেন। 

সাধারণত জামাইকা, আমেরিকা বা কানাডা থেকে এই ইভেন্টে পদক এসে থাকে। কিন্তু সেই ধারা ভেঙে, সকলকে বেশ অবাক করেই নিজের সেরা পারফরম্যান্স দিয়ে ১০০ মিটারে সোনা ছিনিয়ে নিয়ে ইতিহাস লিখে ফেলললেন জ্যাকবস। তিনিই ইতালির প্রথম স্প্রিন্টার, যিনি ১০০ মিটারে সোনা জয় করলেন।

দ্বিতীয় হয়েছেন আমেরিকার ফ্রেড কার্লে। তিনি সময় নিয়েছেন ৯.৮৪ সেকেন্ড এবং তিন নম্বর স্থান পেয়েছেন কানাডার আন্দ্রে দে গ্রেস। তাঁর সময় ৯.৮৯ সেকেন্ড। এই তিন স্প্রিন্টারই রবিবার ১০০ মিটারে নিজেদের সেরা সময় দিলেন।

১৯৯২ সালের পর এ বার টোকিও-তে ইউরোপের কোনও দেশের স্প্রিন্টার ১০০ মিটারে সোনা জিতলেন। ব্রিটিশ স্প্রিন্টার লিনফোর্ড সিসেরো ক্রিস্টি ১০০ মিটারে সোনা জিতেছিলেন। তার পর থেকে মূলত আমেরিকা এবং জামাইকার দাপট। ১৯৯৬ অলিম্পিক্সে অবশ্য কানাডার দোনোভান বেইলি ১০০মিটারে সোনা পেয়েছিলেন। তার পর আমেরিকা এবং কানাডার বাইরে কোনও দেশ শুধুমাত্র এই ইভেন্টে কখনও সোনা পায়নি। আর শেষ তিন অলিম্পিক্স অর্থাৎ ২০০৮ বেজিং, ২০১২ লন্ডন এবং ২০১৬ রিও-তে শুধুই উসেইন বোল্টের দাপট ছিল। ২৯ বছর পর অবশেষে ইউরোপের দেশ ১০০ মিটারে সোনা পেল।

বোল্ট পরবর্তী অধ্যায়ে ১০০ মিটারে কে হবেন নতুন রাজা, তা নিয়ে কম জল্পনা ছিল না। ফুটবলে ইউরো কাপ জেতার পর এ বার নতুন চমক দিল ইতালি। কেউ হয়তো ভাবতেই পারেননি, আমেরিকা, কানাডাকে টপকে উসেইন বোল্ট সাম্রাজ্যের দখল নেবেন ইউরোপের কোনও এক দেশের স্প্রিন্টার। তার উপর আবার ইতালির এক স্প্রিন্টারের পারফরম্যান্স দেখে রীতিমতো চমকে গিয়েছে গোটা বিশ্ব। সত্যিই, ইতালির সময়টা খুবই ভাল যাচ্ছে!

রবিবার ১০০ মিটার ফাইনাল শুরুর আগেই গ্রেট ব্রিটেনের জার্নেল হিউজেস ডিসকোয়ালিফাই হয়ে যান। আর নাইজেরিয়ার ইনোচ আদেগোকে দৌড় শেষ করতেই পারেননি। মাঝপথে তাঁর চোট হয়ে যাওয়ার কারণে। এই দু'টি অঘটনও একেবারে ধামাচাপা পড়ে গিয়েছে। ইতালির স্প্রিন্টারের ১০০ মিটারে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার ঘোর এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি গোটা বিশ্ব।

বন্ধ করুন