ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৪০০ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলার পর লারা। ছবি- টুইটার।
ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৪০০ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলার পর লারা। ছবি- টুইটার।

ফিরে দেখা ১২ এপ্রিল, টেস্টের ইতিহাসে অনন্য কীর্তি স্থাপন করেন লারা

  • ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে এই ম্যাচের মাস ছ'য়েক আগেই লারার টেস্টে সর্বোচ্চ ৩৭৫ রানের বিশ্বরেকর্ড ভেঙেছিলেন ম্যাথিউ হেডেন।

১৬ বছর আগে ঠিক এই দিনটিতেই ব্রায়ান লারা টেস্ট ক্রিকেটে এমন এক কীর্তি স্থাপন করেছিলেন, যা আজ পর্যন্ত ইতিহাসের কোনও ক্রিকেটার ছুঁতে পারেননি। ২০০৪ সালের ১২ এপ্রিল ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তি প্রথম ও এ-যাবৎ একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে টেস্টে ৪০০ রানের ইনিংস খেলেছিলেন।

অ্যান্টিগায় ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজের শেষ টেস্টের তৃতীয় দিনে এমন মাইলস্টোন স্থাপন করেন লারা। প্রায় ১৩ ঘণ্টা ক্রিজে কাটিয়ে কোয়াড্রুপল সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন তিনি। ৫৮২ বলের ইনিংসে লারা ৪৩টি চার ও ৪টি ছক্কা মারেন।

এই ম্যাচের মাস ছ'য়েক আগেই লারার টেস্টে সর্বোচ্চ ৩৭৫ রানের বিশ্বরেকর্ড ভেঙেছিলেন ম্যাথিউ হেডেন। পারথে জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে অজি তারকা ৩৮০ রান করে আউট হন। খুব বেশিদিন হেডেনের দখলে বিশ্বরেকর্ড থাকতে দেননি লারা। শুধু টেস্টে সর্বোচ্চ ইনিংসের রেকর্ড পুনরুদ্ধারই করেননি ক্রিকেটের রাজপুত্র, বরং প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ৪০০ রান করে নতুন বিশ্বরেকর্ড গড়েন।

ম্যাচের প্রথম দিনের শেষ লারা অপরাজিত ছিলেন ৮৬ রানে। দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ হওয়ার সময় তাঁর ব্যক্তিগত স্কোর ছিল ৩১৩। তৃতীয় দিনে লারা ৪০০ রানে পৌছঁনো মাত্রই ওয়েস্ট ইন্ডিজ তাদের প্রথম ইনিংস ডিক্লেয়ার করে দেয় ৫ উইকেটে ৭৫১ রানে। ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংসে ২৮৫ রানে অল-আউট হয়ে যায়। ফলো-অন করে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্রিটিশরা ৫ উইকেটে ৪২২ রান তুললে ম্যাচ ড্র ঘোষিত হয়।

টেস্টে ৪০০ রান করার ঠিক ১০ বছর আগে কাউন্টি ক্রিকেটে ৫০১ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছিলেন লারা। ১৯৯৪ সালে ডারহ্যামের বিরুদ্ধে ওয়ারউইকশায়ারের হয়ে এমন দুরন্ত কীর্তি স্থাপন করেন তিনি।

বন্ধ করুন