বাংলা নিউজ > ময়দান > সৌরাষ্ট্রের অধিনায়ক হয়ে ফিরছেন, তার মধ্যেই ভবিষ্যতের পরিকল্পনা জাদেজার

সৌরাষ্ট্রের অধিনায়ক হয়ে ফিরছেন, তার মধ্যেই ভবিষ্যতের পরিকল্পনা জাদেজার

রঞ্জিতে খেলতে নামার আগে ফুরফুরে রবীন্দ্র জাদেজা। ছবি: পিটিআই

জাদেজার সামনে চ্যালেঞ্জটি হল, তাঁর ম্যাচ ফিটনেস প্রমাণ করা, যা তাঁকে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলার ছাড়পত্র দেবে। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম দুই টেস্টের জন্য ভারতীয় দলে জাদেজাকে রাখা হয়েছে। তবে খেলার মতো ফিট থাকলেই, তবেই তিনি ছাড়পত্র পাবেন।

চোটের কারণে রবীন্দ্র জাদেজা প্রায় ছয় মাস ধরে ২২ গজের বাইরে ছিলেন। এখন ভারতের তারকা অলরাউন্ডার প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। আর যার জন্য তিনি মঙ্গলবার থেকে চেন্নাইতে শুরু হতে চলা তামিলনাড়ুর বিরুদ্ধে তাদের শেষ রঞ্জি ট্রফির গ্রুপ বি লিগের ম্যাচে সৌরাষ্ট্রকে নেতৃত্ব দেবেন।

জাদেজার সামনে চ্যালেঞ্জটি হল, তাঁর ম্যাচ ফিটনেস প্রমাণ করা, যা তাঁকে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলার ছাড়পত্র দেবে। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম দুই টেস্টের জন্য ভারতীয় দলে জাদেজাকে রাখা হয়েছে। তবে খেলার মতো ফিট থাকলেই, তবেই তিনি ছাড়পত্র পাবেন।

জাদেজা সাংবাদিকদের বলেন, ‘মাঠে ফিরে আসতে পেরে আমি ভালো অনুভব করছি। খুব উত্তেজিত। আশা করি, দল হিসেবে এবং ব্যক্তি হিসেবেও সবটা ভালো হবে।’

আরও পড়ুন: বড় দলের বিরুদ্ধে ভারতের এই বোলিং ধ্যাড়াবে- তীব্র খোঁচা তারকা পাক ক্রিকেটারের

তিনি যোগ করেন, ‘...দেখুন আমার প্রথম অগ্রাধিকার হল, মাঠে নামা এবং ফিট থাকা...১০০ শতাংশ ফিট। একবার আমি ১০০ শতাংশ ফিট হয়ে গেলে, আমি আমার দক্ষতা নিয়ে আরও কাজ করব, তা ব্যাটিং হোক বা বোলিং। এখন, আমার প্রথম অগ্রাধিকার হল ফিটনেস...’

গত বছর অগস্টে ভারতের হয়ে শেষ বার খেলেছিলেন। এশিয়া কাপ চলাকালীন তিনি চোটের কারণে ছিটকে যান। এমন কী জাদেজাকে হাঁটুতে অস্ত্রোপচার করতে হয়েছিল। তিনি বেঙ্গালুরুর জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে (এনসিএ) সময় কাটিয়েছেন। এখন তিনি অজিদের বিরুদ্ধে টেস্টে খেলার জন্য মরিয়া হয়ে রয়েছেন।

জাদেজা বলেছেন, ‘আমি ২০ দিন এনসিএ-তে ছিলাম। আমি ব্যাটিং এবং বোলিং করছিলাম। ম্যাচের প্রেক্ষাপট ভিন্ন। অস্ট্রেলিয়া সিরিজের আগে আমি একটি ম্যাচ খেলতে চেয়েছিলাম, তাই আমি এখানে এসেছি।’

আরও পড়ুন: ধোনি জয়ের চেষ্টা না করায় ক্ষোভে ফেটে পড়েছিল রবি- শ্রীধরের বইতে চাঞ্চল্যকর তথ্য

এখন কোনও অস্বস্তি আছে কিনা জানতে চাইলে, জাদেজা বলেন, ‘পাঁচ মাস পর আমি প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট খেলছি, তাই প্রথম দিকে আত্মবিশ্বাসের কিছুটা ঘাটতি থাকবে। কিন্তু খেলা চালিয়ে যেতে থাকলে, তখন অবশ্যই আরও ভালো পারফরম্যান্স করা সম্ভব। চোট যে কোনও খেলার অংশ। তবে চোট লাগলে, প্রথম থেকে আবার শুরু করতে হয়। ক্রিকেটেও একই কথা। আমি ৫ মাস ধরে খেলার বাইরে ছিলাম। আমাকে আমার ফিটনেস তৈরি করতে হবে। একবার আমি আত্মবিশ্বাস ফিরে পেলে, আমি অবশ্যই আমার দক্ষতা নিয়ে কাজ করব এবং আমি দিনে দিনে আরও ভাল হয়ে যাব।’

তিনি উল্লেখ করেছেন যে, এটি সম্ভবত তার দীর্ঘতম সময় মাঠের খেলার বাইরে থাকা। জাদেজা বলেছেন, ‘আমি তাই মনে করি... সার্জারির কারণে।’ সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘পিক টাইমে কেউ আহত হতে চায় না। তবে এটা খেলার অংশ। এটা মাথায় রাখতেই হবে এবং এর জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। এতে কারও কিছু করার থাকতে পারে না। কেউ জিতবে এমন কোনও নিশ্চয়তা নেই। আমার লিগামেন্ট ছিঁড়েছিল। এখম ভালো আছে। আমি ধীরে ধীরে আত্মবিশ্বাসী হচ্ছি।’

বন্ধ করুন