বাংলা নিউজ > ময়দান > বিরাট নেতৃত্ব ছাড়ায় আবেগপ্রবণ পাক ক্রিকেটার, দিলেন মন ছুঁয়ে যাওয়া বার্তা

বিরাট নেতৃত্ব ছাড়ায় আবেগপ্রবণ পাক ক্রিকেটার, দিলেন মন ছুঁয়ে যাওয়া বার্তা

বিরাট কোহলি।

শনিবার সকলকে কিছুটা চমকে দিয়েই ভারতের টেস্ট দলের নেতৃত্ব ছাড়ার কথা ঘোষণা করেন কোহলি। মাঝে অবশ্য তাঁকে ওডিআই-এর নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দিয়েছিল বিসিসিআই। তার আগে কোহলি নিজেই টি-টোয়ন্টির নেতৃত্ব থেকেও সরে দাঁড়িয়েছিলেন।

১৬ সেপ্টেম্বর হঠাৎ করে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা ঘোষণা করেছিলেন বিরাট কোহলি। শনিবার আবার সকলকে কিছুটা চমকে দিয়েই ভারতের টেস্ট দলের নেতৃত্ব ছাড়ার কথা ঘোষণা করেন কোহলি। মাঝে অবশ্য তাঁকে ওডিআই-এর নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দিয়েছিল বিসিসিআই। যাই হোক কোহলি নেতৃত্ব ছাড়ার পর টুইটারে পাকিস্তানের আহমেদ শেহজাদ আগেব প্রবণ হয়ে পড়লেন।

পাক ব্যাটসম্যান লিখেছেন, ‘আপনি যে আবেগের সাথে আপনার দলকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন, সেটা আপনার অধিনায়কত্বে স্পষ্ট ভাবে ধরা পড়ত। ৭ বছর ধরে নির্ভীক ভাবে নেতৃত্ব দিয়েছেন, উন্নত মানের ক্রিকেট উপহার দিয়েছেন এবং এই খেলার একজন অ্যাম্বাসেডর হয়ে উঠেছেন। আগামীর জন্য শুভ কামনা রইল ব্রো বিরাট কোহলি। কিপ রকিং।’

নেতৃত্ব সেই জল্পনা আরও বাড়িয়ে দিয়েছেন কোহলি। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে আইসিসি-র কোন খেতাব তিনি জেতেননি বলে, তাঁকে কম খোঁচা দেওয়া হয় না। তবে টেস্টে কিন্তু পরিসংখ্যানগত দিক থেকে বিরাটের আশেপাশেও অন্য কোনও ভারতীয় অধিনায়ক আসেন না। ৬৮টি টেস্টে ভারতকে নেতৃত্ব দিয়ে ৪০টি ম্যাচে জয় (ঘরের মাঠে ২৪টি ও বাইরের মাঠে ১৬টি) এনে দিয়েছেেন। ১১টি টেস্ট তাঁর নেতৃত্বে ড্র করেছে ভারত। এবং ১৭টি ম্যাচ হেরেছে বিরাটের নেতৃত্বাধীন ভারতীয় দল।

ভারত অধিনায়ক হিসেবে টেস্ট ম্যাচ জয়ের নিরিখে বিরাটের থেকে অনেক পিছনে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে রয়েছেন যথাক্রমে মহেন্দ্র সিং ধোনি (২৭টি জয়) এবং সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (২১টি জয়)। তবে শুধু ভারতীয় হিসেবে নয়, বরং টেস্ট ইতিহাসে গোটা বিশ্বের সর্বকালের অন্যতম সেরা অধিনায়ক বিরাটই। একমাত্র রিকি পন্টিং (৪৮) ও গ্রেম স্মিথই (৫৩) অধিনায়ক বিরাটের থেকে অধিক টেস্ট ম্যাচ জিতেছেন। প্রসঙ্গত, কোহলিই প্রথম এশিয়ান অধিনায়ক, যিনি অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টেস্ট সিরিজ জিতেছেন।

বন্ধ করুন