বাংলা নিউজ > ময়দান > PAK vs AFG: লড়াই করেও হার, মানতে পারছেন না, মাঠেই কান্নায় ভেঙে পড়লেন আফগানরা- ভিডিয়ো
ম্যাচ হারের পর কান্নায় ভেঙে পড়েন আফগানরা।

PAK vs AFG: লড়াই করেও হার, মানতে পারছেন না, মাঠেই কান্নায় ভেঙে পড়লেন আফগানরা- ভিডিয়ো

  • পাকিস্তানকে ম্যাচ জেতাতে নাসিম শাহ (৪ বলে অপরাজিত ১৪) ২০তম ওভারের প্রথম ২ বলে ফজলহক ফারুকিকে ব্যাক-টু-ব্যাক ছক্কা মারেন। এবং ৪ বল বাকি থাকতেই ম্যাচের রোমাঞ্চকর সমাপ্তি করেন নাসিম শাহ। ফাইনালে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে পাকিস্তান। তবে ম্যাচ হেরে হতাশ আফগান ক্রিকেটাররা মাঠের মধ্যেই কান্নায় ভেঙে পড়েন।

বুধবার শারজাতে ২০২২ এশিয়া কাপের সুপার ফোর পর্বের এনকাউন্টারে এক উইকেটে পাকিস্তানের কাছে হেরে বিদায় নিয়েছে আফগানিস্তান। ১৩০ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে পাকিস্তান ১৯.২ ওভারে নয় উইকেটে ১৩১ রান করে ফেলে। পাকিস্তানকে ম্যাচ জেতাতে নাসিম শাহ (৪ বলে অপরাজিত ১৪) ২০তম ওভারের প্রথম ২ বলে ফজলহক ফারুকিকে ব্যাক-টু-ব্যাক ছক্কা মারেন। এবং ৪ বল বাকি থাকতেই ম্যাচের রোমাঞ্চকর সমাপ্তি করেন নাসিম শাহ। ফাইনালে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে পাকিস্তান। তবে ম্যাচ হেরে হতাশ আফগান ক্রিকেটাররা মাঠের মধ্যেই কান্নায় ভেঙে পড়েন।

আরও পড়ুন: মিয়াঁদাদের সেই বিখ্যাত ছক্কার কথা মনে পড়ছে- নাসিমকে নিয়ে ঘোরে বাবর

ভিডিয়োটি সোশ্যাল মিডিয়ায় হুহু করে ভাইরাল হয়েছে। আফগান ভক্তরা তাঁদের প্রিয় ক্রিকেটারদের যন্ত্রণার শরিক হয়েছেন।

ফারুকি এবং ফরিদ আহমেদ কিন্তু ভালো বল করেছিলেন। পাকিস্তানকে তাঁরা চাপে ফেলে দিয়েছিলেন। দুই আফগান তারকাই তিনটি করে উইকেট নিয়েছেন। এ দিকে রশিদ খানও দুই উইকেট তুলে নিয়েছিলেন। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি।

টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করে ইব্রাহিম জাদরানের ৩৭ বলে বলে ৩৫ রানের হাত ধরে আফগানিস্তান ২০ ওভারে ছয় উইকেটে ১২৯ রান করে। হরিশ রউফ পাকিস্তানের হয়ে দু'টি উইকেট নেন।

আরও পড়ুন: পরপর ২টি ছয় মেরে জেতালেন নাসিম, ফাইনালে পাকিস্তান, আশা শেষ ভারতের

ম্যাচের পর, আফগানিস্তানের অধিনায়ক মহম্মদ নবি, যিনি গোল্ডেন ডাক করে আউট হয়েছিলেন, তিনি দাবি করেন যে, তাঁর দল ‘স্নায়ু ধরে রাখতে পারেনি।’ তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ বোলিং এবং ফিল্ডিং দুর্দান্ত ছিল, কিন্তু আমরা ভালো ভাবে শেষ করতে পারিনি এবং আমরা আমাদের স্নায়ু ধরে রাখতে পারিনি। আমরা কোনও পর্যায়েই খেলা ছেড়ে যাইনি। ছেলেরা প্রতিটি বলে লড়াই করেছিল।’

তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘শেষ দু'টি ডেলিভারির পরিকল্পনা ছিল ধীরগতির বাউন্সার বা ইয়র্কার বল করা, কিন্তু ও (ফারুকি) ওর পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারেনি। আমরা শেষ ম্যাচটি একই শক্তি নিয়ে খেলার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করব।’

বন্ধ করুন