বাংলা নিউজ > ময়দান > ICC র‍্যাঙ্কিংয়ে বাবররা এগোচ্ছেন, পিছোচ্ছেন কোহলিরা,এর পিছনের কারণগুলি জেনে নিন

ICC র‍্যাঙ্কিংয়ে বাবররা এগোচ্ছেন, পিছোচ্ছেন কোহলিরা,এর পিছনের কারণগুলি জেনে নিন

সাদা বলের ক্রিকেটে আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়ে বাবররা এগোচ্ছেন, পিছোচ্ছেন কোহলিরা।

ওডিআই র‌্যাঙ্কিংয়ে ব্যাটিংয়ে বাবর আজম প্রথম এবং ইমাম-উল-হক দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন। যেখানে বিরাট কোহলি তৃতীয় এবং রোহিত শর্মা চতুর্থ স্থানে রয়েছেন। টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়ে আবার বাবর এক নম্বরে এবং রিজওয়ান রয়েছেন দুই নম্বরে, অন্যদিকে রোহিত শর্মা এবং বিরাট কোহলির নাম শীর্ষ দশ থেকে বাদ পড়েছে।

একটা সময় ছিল যখন পাকিস্তান দলে ভালো ব্যাটিং খুব শক্তিশালী ছিল। পাশাপাশি বোলারাদেরও সাহায্য পেত টিম। তবে দলটি গত এক দশকে অনেক উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে গেছে। তবে এখন ফের সীমিত ওভারের ক্রিকেটে পাকিস্তান দল দাপট দেখাতে শুরু করেছে।

ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ে ভারতের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে পাকিস্তান দল। এমন কী পাকিস্তান দলের দুই ব্যাটসম্যানও ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ে টপ অর্ডারে আধিপত্য বিস্তার করেছেন। অন্যদিকে বিরাট কোহলি এবং রোহিত শর্মার মতো ভারতীয় কিংবদন্তিদের র‌্যাঙ্কিংয়ে পতন ঘটছে। প্রশ্ন হল, সাদা বলের ক্রিকেটে এমন ধারাবাহিক ভাবে কী ভাবে এত ভালো পারফর্ম করছে পাকিস্তান? জেনে নিন কারণগুলো-

হোম কন্ডিশনে খেলা

পাকিস্তান দল কিছু দিন ধরে ঘরের মাঠে বেশি ম্যাচ খেলছে, যেখানে দলটি ব্যাপক ভালো খেলছে। এছাড়া ঘরের কন্ডিশনের সুবিধাও পাচ্ছে পাকিস্তান। ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও আফগানিস্তানের মতো দলকে তারা হারিয়েছে। তবে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তারা শুধু মাত্র ওয়ানডে সিরিজ জিততে পেরেছে। যাই হোক, এই কারণেও সীমিত ওভারের ক্রিকেটে পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানরা র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে যাচ্ছে।

পিসিবি-র নেতৃত্বে পরিবর্তন

পাকিস্তান ক্রিকেটের উন্নতির একটি বড় কারণ পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডে (পিসিবি) নেতৃত্বের পরিবর্তন হয়েছে। প্রাক্তন ক্রিকেটার রমিজ রাজা দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে কম বিতর্ক জড়াচ্ছে পাকিস্তান। দু'-একটি বিতর্ক সামনে এলেও সেগুলি উপেক্ষা করে দলকে স্বাধীনতা দেওয়ার কাজটি করেছেন রমিজ। এ ছাড়া কোচিং পর্যায়েও ভালো কাজ হচ্ছে।

বর্ধিত ফিটনেস স্তর

পাকিস্তান দলের খেলোয়াড়দের ফিটনেস লেভেল বেড়েছে। এর পেছনে কারণও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের কঠোর মনোভাব। অন্য দিকে খেলোয়াড়রাও নিজেদের ফিট রাখার দিকে নজর দিচ্ছেন। বোর্ড ফিটনেস পরীক্ষা নেওয়ার জন্য সময়ে সময়ে ফিটনেস ক্যাম্পেরও আয়োজন করছে। এর পেছনের কারণও হলো পাকিস্তানের খেলোয়াড়রা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বিরাট কোহলির মতো ফিট খেলোয়াড় দেখেছেন, যিনি চোট সমস্যা ছাড়াই এক টানা খেলে চলেছেন, কারণ তাদের ফিটনেস রুটিন ভালো।

আরও পড়ুন: হাল খারাপ! পাকিস্তানের হোটেলে অজি খেলোয়াড়দের বিরক্ত করত ইঁদুর

আরও পড়ুন: ক্রিকেটের ভক্তদের জন্য বড় খবর! বিরাট কোহলি ও বাবর আজম কি এবার একই দলে খেলবেন?

পাকিস্তানে ক্রিকেট নিষেধাজ্ঞা

২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কার টিম বাসে সন্ত্রাসবাদী হামলা হয়েছিল। এর পর থেকে প্রায় এক দশক পাকিস্তানে কোনও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট হয়নি। তবে এই সময়ে পাকিস্তানে ক্রিকেটের উন্নতিতে মন দেওয়া হয়েছিল। তবে এ বারও পাকিস্তানে পৌঁছেও নিউজিল্যান্ড সফর বাতিল করে দেয়। ইংল্যান্ড দলও পাকিস্তান সফরে যায়নি। যাইহোক, বাকি দলগুলি পাকিস্তানে পৌঁছেছিল এবং পাকিস্তানি খেলোয়াড়রা দেখিয়েছিলেন যে, তাঁদের দেশে ভালো এবং প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট খেলা হয়।

একই সময়ে যদি আমরা আইসিসি ওডিআই র‌্যাঙ্কিংয়ের কথা বলি, তবে ব্যাটিংয়ে বাবর আজম প্রথম এবং ইমাম-উল-হক দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন, যেখানে বিরাট কোহলি তৃতীয় এবং রোহিত শর্মা চতুর্থ স্থানে রয়েছেন। টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়ে বাবর আজম এক নম্বরে এবং মহম্মদ রিজওয়ান রয়েছেন দুই নম্বরে, অন্যদিকে রোহিত শর্মা এবং বিরাট কোহলির নাম শীর্ষ দশ থেকে বাদ পড়েছে। তবে টি-টোয়েন্টিতে দলীয় র‌্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বরে রয়েছে ভারতীয় দল।

বন্ধ করুন