বিরাটকে বড়মাপের প্লেয়ার বললেন আমির (ছবি এপি)
বিরাটকে বড়মাপের প্লেয়ার বললেন আমির (ছবি এপি)

বিরাট কোহলিকে 'গ্রেট প্লেয়ার' বলে সম্বোধন পাক পেসার মহম্মদ আমিরের

  • ২২ গজের লড়াই ভুলে বিরাট কোহলির প্রশংসায় পঞ্চমুখ মহম্মদ আমির। টুইট বার্তায় বিরাটকে মহান ক্রিকেটার বলেও সম্বোধন করলেন পাকিস্তানের এই তারকা ক্রিকেটার।

২০১৯ সালে আইসিসির বিচারে ‘স্পিরিট অফ ক্রিকেট’ পুরস্কার পেয়েছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থার কাছ থেকে এই সম্মান পেয়ে অবাক হয়েছেন কোহলি, প্রকাশ্যে জানিয়েওছেন সে কথা। তবে কোহলির এই স্বীকৃতিতে এতটুকুও হতবাক নন পাক পেসার মহম্মদ আমির। ২২ গজের লড়াই ভুলে বিরাট কোহলির প্রশংসায় পঞ্চমুখ আমির। টুইট বার্তায় বিরাটকে মহান ক্রিকেটার বলেও সম্বোধন করলেন পাকিস্তানের এই তারকা ক্রিকেটার।

আইসিসির তরফে বিরাটের একটি ভিডিও বার্তা টুইট করা হয়। যেখানে কোহলিকে বলতে শোনা গেল সঠিক স্পিরিটের সঙ্গে ক্রিকেট খেলার প্রয়োজনীয়তা কতখানি। সেই টুইট রি-টুইট করে আমির লেখেন, ‘বড়মাপের খেলোয়াড়,দারুণ কথা’।



বিশ্বকাপের সময় অস্ট্রেলিয় ক্রিকেটার স্টিভ স্মিথের বিরুদ্ধে ওঠা স্লোগান বন্ধ করতে মাঠে উপস্থিত দর্শকদের কাছে আপিল করেছিলেন বিরাট কোহলি। সেই ঘটনা জয় করেছিল গোটা ক্রিকেট বিশ্বের মন। পেশাগত লড়াই ভুলে সত্যিকারের স্পোর্টসম্যানের মতো মাঠে স্মিথের পাশে দাঁড়ানোর ঘটনার জন্যই আইসিসির তরফে সম্মানিত হলেন বিরাট।

এই ভিডিও বার্তায় কোহলিকে বলতে শোনা গেল কেন সেদিন তিনি স্মিথের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন। কোহলির কথায়, ‘সেই মুহূর্তটা ছিল একদমই স্তর থেকে একজন ব্যক্তির মানসিক পরিস্থিতি আচঁ করা। আমার মনে হয় ওই ধরণের পরিস্থিতি জয় করে এসেছে,এমন একজনের ফায়দা ওঠানো উচিত নয়। মাঠে জিততে গেলে অনেক সময় স্লেজ করা হয় কিন্তু কাউকে নীচু দেখানোটা আমি সমর্থন করি না, সেটা ক্রিকেটের স্পিরিটের বিপক্ষে’

বল টেম্পারিং বিতর্কের পর এক বছরের নির্বাচন কাটিয়ে মাঠে ফেরার পর ইংল্যান্ডের মাটিতে বারবার গ্ল্যারারি থেকে স্টিভ স্মিথের উদ্দেশে ভেসে এসেছে কটূক্তি।

সাসপেনশন থেকে ফেরা স্মিথকে যেভাবে চিটার বলা হচ্ছিল, সেটা মেনে নিতে পারনেনি ভারতীয় অধিনায়ক। মাঠের দর্শকদের চুপ করতে বলা ছাড়াও স্মিথের কাছে ক্ষমাও চেয়ে নেন তিনি।

প্রসঙ্গত স্পটফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পাঁচ বছর ক্রিকেট মাঠের বাইরে কাটাতে হয়েছে মহম্মদ আমিরকেও। স্বাভাবিকভাবেই কোহলি যেভাবে স্মিথের পাশে দাঁড়িয়েছেন তা ছুঁয়ে গেছে আমিরের মন।



কথায় বলে ক্রিকেট হল জেন্টালম্যানেদের খেলা। এই ঘটনার পর থেকে শুধু ব্যাটসম্যান বা ক্যাপ্তেন হিসাবেই নয় ক্রিকেট বিশ্বের আদর্শ জেন্টালম্যানের উদাহরণ হিসাবেও প্রথমসারিতেই থাকবে বিরাট কোহলির নাম।

বন্ধ করুন