বাড়ি > ময়দান > পাকিস্তান হোম সিরিজ আর নিরপেক্ষ দেশে খেলবে না, জানাল পিসিবি
সাংবাদিক সম্মেলনে পিসিবি চেয়ারম্যান এহসান মানি  (ছবি সৌজন্যে এপি)
সাংবাদিক সম্মেলনে পিসিবি চেয়ারম্যান এহসান মানি (ছবি সৌজন্যে এপি)

পাকিস্তান হোম সিরিজ আর নিরপেক্ষ দেশে খেলবে না, জানাল পিসিবি

  • প্রায় এক দশক পর পাকিস্তানে ফিরল টেস্ট ক্রিকেট। বুধবার রাওয়ালপিণ্ডি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সেই শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হল পাকিস্তান। এমন এক আবহে পিসিবি চেয়ারম্যান এহসান মানি জানিয়ে দিলেন, ভবিষ্যতে পাকিস্তান ক্রিকেট টিম হোম সিরিজ নিজেদের দেশেই খেলবে।

নিরাপত্তার অভাববোধ করে দীর্ঘদিন পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে রাজি হয়নি বিশ্বের প্রথমশ্রেনির ক্রিকেটখেলিয়ে দেশগুলি। তবে এবার পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড সাফ জানিয়ে দিল, পাকিস্তান এভাবে আর দীর্ঘ সময় ধরে নিজেদের হোম সিরিজের আন্তর্জাতিক ম্যাচ নিরপেক্ষ ভেন্যুতে খেলবে না।

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে তাদেরই মাটিতে এখন বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের অন্তর্গত দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে করাচিতে হাজির হয়েছেন অ্যাঞ্জালো ম্যাথিউজরা। আজ চলছে প্রথম ম্যাচ। সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচ শুরু হবে ১৯ ডিসেম্বর। শেষ পর্যন্ত পাক-ভূমে টেস্ট ক্রিকেট খেলতে রাজি হওয়ায় লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডকে ধন্যবাদ জানালেন পিসিবি চেয়ারম্যান এহসান মানি।

এক প্রতিক্রিয়ায় এহসান মানি বলেন, ‘অন্যান্য দলগুলিকে আমি বলতে চায়, কেন তারা পাকিস্তানে এসে খেলতে পারে না?’ একটু থেমে তিনি আরও বলেন, ‘আমরা এটা পরিস্কার করে জানাতে চায়, ক্রিকেট খেলার জন্য পাকিস্তান এখন পুরোপুরি নিরাপদ। এবার থেকে আমাদের সঙ্গে ক্রিকেট খেলতে হলে, অন্য ক্রিকেটখেলিয়ে দেশগুলিকে পাকিস্তানে আসতে হবে।’ এতে অবশ্য পিসিবি চেয়ারম্যান পরোক্ষভাবে বুঝিয়ে দিলেন, হোম সিরিজ তারা আর কোনও নিরপেক্ষ দেশে খেলবেন না।

২০০৯ সালে পাকিস্তানে গদ্দাফি স্টেডিয়ামের বাইরে শ্রীলঙ্কার টিম বাসের ওপর জঙ্গি হামলা হয়। তাতে লঙ্কান দলের একাধিক ক্রিকেটার আহত হন। তারপর থেকেই পাকিস্তানে নিষিদ্ধ হয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। এর ফলে মাঝের দশ বছরে পাকিস্তানের সব হোম সিরিজ অনুষ্ঠিত হয় শারজা ও আবু ধাবিতে। যদিও সেই প্রথা ভেঙে পাকিস্তানে গিয়ে সবার প্রথমে ওয়ানডে, পরে ও টি-২০, আর এবার টেস্ট খেলতে উপস্থিত হলেন সিংহলীরা।

দীর্ঘ দশ বছর পর পাকিস্তানের মাটিতে টেস্ট আসর বসায় খুশি পাক ক্রিকেট প্রেমীরা। পিসিবি চেয়ারম্যান এহসান মানির বিশ্বাস, শ্রীলঙ্কা সবাইকে যে পথ দেখিয়েছে, ভবিষ্যতে সেই পথে হেঁটে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশ নিশ্চিতভাবে ২০২১ ও ২০২২ সালে পাকিস্তানে ক্রিকেট সিরিজ খেলতে হাজির হবে।

বন্ধ করুন