বাংলা নিউজ > ময়দান > ২৩১ রানেই গুটিয়ে গেল পাকিস্তানের প্রথম ইনিংস, শ্রীলঙ্কা পেল ১৪৭ রানের বড় লিড
শ্রীলঙ্কা পেল ১৪৭ রানের বড় লিড

২৩১ রানেই গুটিয়ে গেল পাকিস্তানের প্রথম ইনিংস, শ্রীলঙ্কা পেল ১৪৭ রানের বড় লিড

  • এই ম্যাচে পাকিস্তান দল প্রথম ইনিংসে ২৩১ রানেই গুটিয়ে যায়। এরফলে দলটি এই ম্যাচে অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে। প্রথমে ব্যাট করে শ্রীলঙ্কার দল স্কোর বোর্ডে ৩৭৮ রান তুলেছিল। জবাবে পাকিস্তান দল ২৩১ রানেই অল আউট হয়ে যায়। এরফলে প্রথম ইনিংসের ভিত্তিতে ১৪৭ রানে পিছিয়ে পড়ে পাকিস্তান।

শ্রীলঙ্কা বনাম পাকিস্তানের দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের দ্বিতীয় খেলাটি গলে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এই ম্যাচে পাকিস্তান দল প্রথম ইনিংসে ২৩১ রানেই গুটিয়ে যায়। এরফলে দলটি এই ম্যাচে অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে। প্রথমে ব্যাট করে শ্রীলঙ্কার দল স্কোর বোর্ডে ৩৭৮ রান তুলেছিল। জবাবে পাকিস্তান দল ২৩১ রানেই অল আউট হয়ে যায়। এরফলে প্রথম ইনিংসের ভিত্তিতে ১৪৭ রানে পিছিয়ে পড়ে পাকিস্তান। 

এখান থেকে ম্যাচে ফিরে আসা পাকিস্তানের জন্য খুবই কঠিন হতে পারে। সিরিজের প্রথম ম্যাচে জয়ী পাকিস্তান দলের জন্য দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পাওয়াটা কঠিন হতে পারে। শ্রীলঙ্কা এখনও ব্যাট করতে পারেনি এবং ম্যাচের তৃতীয় দিনের প্রথম সেশনে খেলা চলছে। শ্রীলঙ্কা দল যদি চার বা পাঁচ সেশন ব্যাট করে, তাহলে তারা সহজেই ৩৫০ রান করতে পারে এবং এভাবে তারা পাকিস্তানের সামনে প্রায় পাঁচশো রানের লক্ষ্য দিতে পারবে। 

আরও পড়ুন… কীভাবে এক অখ্যাত বোলার কোহলি-এবিদের আউট করে হ্যাটট্রিক করেছিলেন?

পাকিস্তান দলের হয়ে এই ম্যাচে সবচেয়ে বড় ইনিংসটি খেলেন আগা সলমন। তিনি করেন ৬২ রান। ইমাম-উল-হক ৩২ রান করেন, অন্য কোনো ব্যাটসম্যান ৩০ রানে করতে পারেননি। অন্যদিকে শ্রীলঙ্কার হয়ে রমেশ মেন্ডিস নেন পাঁচ উইকেট। টেস্ট ক্যারিয়ারে মেন্ডিসের এটি তৃতীয় পাঁচ উইকেট। তিনি ছাড়াও তিনটি উইকেট নেন প্রভাত জয়সুরিয়া, যিনি অভিষেকের পর থেকে প্রতি ইনিংসে অন্তত ৩টি করে উইকেট নিচ্ছেন। 

আরও পড়ুন… কীভাবে এক অখ্যাত বোলার কোহলি-এবিদের আউট করে হ্যাটট্রিক করেছিলেন?

শ্রীলঙ্কা এবং পাকিস্তানের মধ্যে এই দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজটি আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ২০২১-২৩ চক্রের অধীনে খেলা হচ্ছে। এই ম্যাচে শ্রীলঙ্কা দল জিতলে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট টেবিলে বড় পরিবর্তন আসবে। শ্রীলঙ্কার জয় ভারতীয় ক্রিকেট দলকেও উপকৃত করতে পারে, যারা এখনও ফাইনালে ওঠার দৌড়ে রয়েছে।

 

বন্ধ করুন