বাংলা নিউজ > ময়দান > বায়ো বাবল ভাঙলেন কামরান আকমাল সহ নয় পাক ক্রিকেটার
পিসিবি
পিসিবি

বায়ো বাবল ভাঙলেন কামরান আকমাল সহ নয় পাক ক্রিকেটার

  • এবার জন্য তাদের সতর্কতা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। 

করোনা পরবর্তীতে ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরছে খেলার জগৎ‌ । একাধিক বিধি নিষেধ মেনে বিভিন্ন স্টেডিয়ামে দর্শকশূন্যভাবে আয়োজন করা হচ্ছে ম্যাচগুলি। যে কোন ট্যুর বা টুর্নামেন্টের শুরুর আগে বায়ো বাবল অর্থাৎ জৈব সুরক্ষা বলয়ে প্রবেশ করে কঠোর কোভিড প্রোটোকল মেনে করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এলে তবেই খেলতে নামতে পারছেন ক্রিকেটাররা। তাই বায়ো বাবলের গুরুত্ব অপরিসীম।

করোনার মধ্যে পাকিস্তানে ঘরোয়া ন্যাশনাল টি-২০ কাপে নয়জন খেলোয়াড় ও তিনজন কর্মকর্তারা জৈব সুরক্ষা বলয়ের নিয়ম ভাঙেন। তাদের বিপক্ষে ওঠা অভিযোগের সত্যতা যাচাই করেছে বোর্ড। আপাতত সকলকে মৌখিকভাবে সতর্ক করেছে পিসিবি। ভবিষ্যতে পুনরায় এমন ঘটনা ঘটলে আর ছাড় পাবেন না তারা।

প্রসঙ্গত রাওয়াপিন্ডিতে টিম হোটেল ও স্টেডিয়ামে জৈব-সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে শুরু হয় টুর্নামেন্ট। সেই নিয়ম ভঙ্গ করেন ক্রিকেটার ও কর্মকর্তারা। পিসিবির হাই পারফরম্যান্স সেন্টারের পরিচালক নাদিম খান জানান 'এবার কেবল সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে এরকমের ঘটনা ঘটলে কাউকে রেয়াত করা হবে না। পিসিবি হতাশ যে, সিনিয়র ক্রিকেটার ও কর্মকর্তারা জৈব-সুরক্ষা বলয় ভঙ্গ করেছেন। তাঁরা সকলের স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা ঝুঁকিতে ফেলেছেন।'

জৈব সুরক্ষা বলয়ের নিয়ম ভঙ্গকারী ক্রিকেটার ও কর্মকর্তারদের নাম আনুষ্ঠানিকভাবে পিসিবি ঘোষণা না করলেও সূত্রে খবর অনুযায়ী ∆ ক্রিকেটাররা হলেন-

মহম্মদ হাফিজ,

ইয়াসির শাহ,

খুররম মঞ্জুর,

কামরান আকমল,

সোহেল খান,

ফখর জামান,

ইমাম-উল-হক,

আনোয়ার আলি ও

উসমান খান শিনওয়ারি।

∆ তিন কর্মকর্তা হলেন-

প্রাক্তন ক্রিকেটার

বাসিত আলী,

আব্দুল রাজ্জাক

ও রশিদ খান।

বন্ধ করুন