বাংলা নিউজ > ময়দান > সৌরভের ভারতের ২১ বছর আগের লজ্জার নজির অবশেষে ভাঙল ফিলিপিন্স
ওমানের বিরুদ্ধে সর্বনিম্ন রানের লজ্জার নজির গড়ল ফিলিপিন্স।

সৌরভের ভারতের ২১ বছর আগের লজ্জার নজির অবশেষে ভাঙল ফিলিপিন্স

  • এর আগে পুরুষদের ক্রিকেটে সর্বনিম্ন স্কোর ছিল ভারতের যেখানে সবাই কোনও না কোনও রান করেছে। শারজাতে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ভারত ৫৪ রানে অল আউট হয়ে গিয়েছিল। সেই লজ্জার নজির ভেঙে দিল ফিলিপিন্স।

৭-৩-২-২-৬-১-২-৬-১-১-১--- এটা কোনও ফোন নম্বর নয়। ফিলিপিন্স টিমের ১১ জন প্লেয়ারের রান। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের যোগ্যতা নির্ণয় পর্বের ম্যাচে ফিলিপিন্সের ১১ জন প্লেয়ারই রান পেলেন, তবু আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বনিম্ন রান করার নজির গড়ল তারা, যেখানে সবাই খাতা খুলেছে। ওমানের বিরুদ্ধে মাত্র ৩৬ রানেই অলআউট হয়ে গেল ফিলিপিন্স।

এর আগে পুরুষদের ক্রিকেটে সর্বনিম্ন স্কোর ছিল ভারতের, যেখানে কেউ শূন্য রানে আউট হয়নি। শারজাতে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ভারত ৫৪ রানে অল আউট হয়ে গিয়েছিল। সেই লজ্জার নজির ভেঙে দিল ফিলিপিন্স। শারজাতে কোকাকোলা কাপের ফাইনালে সেদিন সবাই কমপক্ষে এক রান করলেও সর্বোচ্চ করেন রবিন সিং (১১)। আর কেউ দুই অঙ্কে যাননি। অধিনায়ক সৌরভ মাত্র তিন ও সচিন পাঁচ রানে আউট হন। 

ওমানের বিরুদ্ধে টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিং নিয়েছিল ফিলিপিন্স। স্কোরবোর্ডের দিকে তাকালে মনে হচ্ছিল, পাড়ার ম্যাচে প্রস্তুতি সারছে ওমান। তাও ১৫.২ ওভার পর্যন্ত ফিলিপিন্স খেলা চালিয়ে যায়। তবে সেই অনুপাতে রান যোগ হয়নি। মাত্র ৩৬ রানে অলআউট হয় ফিলিপিন্স। কারও স্কোরই দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছতে পারেনি। ফিলিপিন্সের ক্রিকেটারদের মধ্যে সর্বোচ্চ স্কোর অধিনায়ক ড্যানিয়েল স্মিথের। তিনি করেন ৭ রান। এমন কী ওমানও অতিরিক্ত মাত্র ৪ রান দেয়। সেই সংখ্যাটাও দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছয়নি।

৩৬ রান তাড়া করতে নেমেও ১ উইকেট হারিয়ে বসে ওমান। তবে ১ উইকেট হারালেও ২.৫ ওভারে অর্থাৎ মাত্র ১৭ বলে ৪০ রান করে ফেলে তারা। ৯ উইকেটে ওমান ম্যাচ জিতে যায়।

বন্ধ করুন