চিত্র সাংবাদিক রণজয় রায়। ছবি- ফেসবুক
চিত্র সাংবাদিক রণজয় রায়। ছবি- ফেসবুক

প্রয়াত চিত্র সাংবাদিক রণজয় রায়, শোকের ছায়া কলকাতা ময়দানে

  • ময়দানের প্রিয় 'রনি দা'র মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

অকালেই চলে গেলেন কলকাতা ময়দানের জনপ্রিয় চিত্র সাংবাদিক রণজয় রায়, সাংবাদিক তথা ক্রীড়ামহলে যিনি রনি নামেই পরিচিত ছিলেন। গত কয়েকদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন তিনি। শুক্রবার দুপুরে শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি হলে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় প্রখ্যাত চিত্র সাংবাদিককে। বিকালেই তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন ডাক্তাররা। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর।

গত তিন দশক ধরে চিত্র সংবাদিকতার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন ময়দানের প্রিয় রনি দা। আজকাল পত্রিকার সঙ্গেই তাঁর সম্পর্কে আড়াই দশকের। শুরুর দিকে বিনোদন জগতের ছবি তুলতেন। পরে পা দেন ক্রীড়াজগতে। শুধু কলকাতা ময়দানই নয়, দেশের ক্রীড়ামহলেও তিনি ছিলেন পরিচিত মুখ।

অভিজ্ঞ চিত্র সাংবাদিক হওয়া সত্ত্বেও বাকিদের সঙ্গে রণজয়কে যে বিষয়টা আলাদা করেছিল সেটা হল ছোট-বড় সবার সঙ্গে অনায়াসে মিশে যাওয়া। নিজের ব্যক্তিত্ব বজায় রেখেও নতুন সাংবাদিকদের কার্যত হাত ধরে ময়দানে প্রতিষ্ঠা দেওয়ার কাজ তিনি হাসি মুখে করে গিয়েছেন আজীবন। স্বাভাবিকভাবেই তরুণ ক্রীড়া সাংবাদিকমহল রনি দা'র অকাল মৃত্যুতে অভিভাবকহীন হল সন্দেহ নেই। তাঁর প্রয়াণে শোকের ছায়া কলকাতা ময়দান তথা বাংলার সংবাদমহলে।

রণজয় রায়ের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শোকবার্তায় তিনি বলেন, 'বিশিষ্ট চিত্র সাংবাদিক রণজয় রায় (রনি)-র মৃত্যুতে আমি গভীর শোক প্রকাশ করছি। আজ কলকাতায় তাঁর মৃত্যু হয়েছে। বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর। তিনি আজকাল পত্রিকার ক্রীড়া বিভাগের সঙ্গে প্রায় ২৫ বছর যুক্ত ছিলেন। তাঁর আগে কাজ করেছেন ভারতকথা পত্রিকায়। তাঁর মৃত্যুতে চিত্র সাংবাদিকতার জগতে বিশেষ শূন্যতার সৃষ্টি হল। আমি রণজয় রায়ের পরি

বন্ধ করুন