বাংলা নিউজ > ময়দান > Modi meets Athletes: দেখতে সাদাসিধে, তবে ওর আগ্রাসনে রথী মহারথীও ভয় পায়, মহিলা ক্রিকেটারকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর মস্করা
কমনওয়েলথ গেমসে অংশ নেওয়া ভারতীয় অ্যাথলিটদের অভিনন্দন জানাচ্ছেন মোদী। ছবি- টুইটার।

Modi meets Athletes: দেখতে সাদাসিধে, তবে ওর আগ্রাসনে রথী মহারথীও ভয় পায়, মহিলা ক্রিকেটারকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর মস্করা

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কমনওয়েলথ গেমসে অংশ নেওয়া ভারতীয় অ্যাথলিটদের সঙ্গে দেখা করেন এবং সফল অভিযানের জন্য শুভেচ্ছা জানান সকলকে।

অলিম্পিক্সের ব্যর্থতার পরে রীতিমতো হতাশায় ভেঙে পড়েছিলেন ভিনেশ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী মনে করিয়ে দিলেন, খারাপ সময়ে ভিনেশকে কীভাবে উদ্বুদ্ধ করেছিলেন তিনি। যার ফল পাওয়া গিয়েছে কমনওয়েলথ গেমসে। ঘুরে দাঁড়িয়ে কমনওয়েলথের সোনা নিয়ে দেশে ফিরেছেন ফোগট। ঠিক একইভাবে তিনি গর্ব প্রকাশ করেন পূজা গেহলটের ব্রোঞ্জ পদক নিয়ে।

আসলে কমনওয়েলথ গেমসে ব্রোঞ্জ জেতার পরে দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন পূজা। প্রধানমন্ত্রী সেই সময়েই প্রতিক্রিয়া দিয়েছিলেন এই বলে যে, দেশবাসী পূজাকে নিয়ে গর্বিত। তাই তাঁর ক্ষমা চাওয়ার দরকার নেই।

শনিবার প্রধানমন্ত্রী নিজের বাসভবনে দেখা করেন কমনওয়েলথ গেমস অংশ নেওয়া অ্যাথলিটদের সঙ্গে। সেখানেই তিনি সফল কমনওয়েলথ অভিযানের জন্য অভিনন্দন জানান সকলকে। সেই সঙ্গে অভিনন্দন জানিয়েছেন চেস অলিম্পিয়াডে ভারতের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করা দাবাড়ুদেরও।

আরও পড়ুন:- ভিডিয়ো: বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জ্যাভেলিন থ্রোয়ারকে বেধড়ক মার দুষ্কৃতিদের, ছুঁড়ে ফেলা হল সমুদ্রে

তবে নিজের ভাষণে মোদী আলাদা করে উল্লেখ করেন মহিলা অ্যাথলিটদের কথা। তাতেই উঠে আসে পূজা-ভিনেশ-হরমনপ্রীত-রেনুকার প্রসঙ্গ। নিছক হালকা চালে প্রধানমন্ত্রী তুলে ধরেন নীতু ও রেনুকার কথা।

নরেন্দ্র মোদী বলেন, ‘আমাদের মেয়েদের পারফর্ম্যান্সে তো সারা দেশ গদগদ। পূজার সঙ্গে যখন কথা বলছিলাম, উল্লেখও করেছি। পূজারা ওই আবেগপ্রবণ ভিডিয়ো দেখে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে বলেওছিলাম যে, তোমার ক্ষমা চাওয়ার দরকার নেই। তুমি দেশের কাছে বিজয়ী। শুধু নিজের নিষ্ঠা ও পরিশ্রমে কখনও খামতি রেখো না। অলিম্পিক্সের পরে ভিনেশকেও আমি এটাই বলেছিলাম। আমি খুশি যে, ও নিরাশাকে পিছনে ফেলে শ্রেষ্ট পারফর্ম্যান্স মেলে ধেরেছে।’

আরও পড়ুন:- 'ওর থেকে অনেক ভালো বোলার আছে', Asia Cup-এ শামির সুযোগ না পাওয়া নিয়ে ঠোঁটকাটা মন্তব্য বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়কের

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বক্সিং হোক, জুডো হোক, কুস্তি হোক, যেভাবে মেয়েরা আধিপত্য দেখিয়েছে, এককথায় অদ্ভুত। নিতু তো প্রতিদ্বন্দ্বীকে ময়দান ছেড়ে পালাতে বাধ্য করেছে। হরমনপ্রীতের নেতৃত্বে প্রথমবারেই ক্রিকেটে অসাধারণ পারফর্ম্যান্স উপহার দিয়েছে দল। সব খেলোয়াড়ের পারফর্ম্যান্স দুর্দান্ত ছিল। তবে রেনুকার সুইয়ের জবাব এখনও কারও কাছে নেই। দিগ্গজদের সঙ্গে লড়ে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী হওয়া, কম কৃতিত্বের নয়। ওর চেহারায় শিমলার শান্তি দেখা যেতে পারে, পাহাড়ের সাদাসিধে হাসি থাকতে পারে, তবে ওর আগ্রাসান বড়বড় ব্যাটারের আত্মবিশ্বাস দুমড়ে দেয়। এই পারফর্ম্যান্স নিশ্চিতভাবে দূর দূরান্তের মেয়েদের উদ্দীপ্ত করবে।'