বাংলা নিউজ > ময়দান > মায়ের মৃত্যুশোক কাটাতে কোহলির উদাহরণ দিয়েই মেয়েকে অনুপ্রাণিত করেন প্রিয়ার বাবা
বিরাট কোহলির দৃঢ় মানসিকতাই এখন অনুপ্রাণিত করছে প্রিয়াকে।
বিরাট কোহলির দৃঢ় মানসিকতাই এখন অনুপ্রাণিত করছে প্রিয়াকে।

মায়ের মৃত্যুশোক কাটাতে কোহলির উদাহরণ দিয়েই মেয়েকে অনুপ্রাণিত করেন প্রিয়ার বাবা

  • ১৭ মে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান প্রিয়ার মা। আর বুধবারই মানে ১৯ মে ভারতীয় দলের সঙ্গে যোগ দিতে মুম্বই উড়ে যান মহিলা দলের এই ক্রিকেটার।

মায়ের মৃত্যুতে একেবারেই ভেঙে পড়েছিলেন প্রিয়া পুনিয়া। সেই সময়ে তাঁকে অনুপ্রাণিত করতে প্রিয়ার বাবা ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির উদাহরণ টেনে এনেছিলেন। বিরাটও বাবাকে হারানোর যন্ত্রণা বুকে নিয়েই রঞ্জি খেলতে গিয়েছিলেন।

প্রিয়ার বাবা সুরেন্দ্র পুনিয়া জানিয়েছেন, ‘আমি প্রিয়াকে অনুপ্রাণিত করেছি বিরাট কোহলির উদাহরণ টেনে। আমি ওকে বলেছি, বিরাট কোহলিও বাবা মারা যাওয়ার পর রঞ্জি ট্রফি খেলতে গিয়েছিল। এটা আমাদের কাছে খুবই কঠিন সময়। কিন্তু আমাদের মানসিক ভাবে শক্তিশালী হতে হবে। জীবনে এমন অনেক সময় আসবে, যখন নিজেকে লড়াই করে সেই জায়গাটা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। এগিয়ে যেতে হবে। প্রিয়া সেটা বুঝেছে এবং ও আমাকে বলেছে, পাপা ভারতকে প্রতিনিধিত্ব করার জন্য আমি তৈরি।’

২০০৬ সালে প্রথম রঞ্জি ট্রফি খেলেছিলেন বিরাট। তার আগে অবশ্য ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ টিমে জায়গা করে নিয়েছিলেন। সে বারই কর্নাটকের বিরুদ্ধে রঞ্জি ট্রফির ম্যাচ চলার সময়ে হঠাৎ করেই তাঁর বাবা প্রেম কোহলি মারা যান। কর্নাটকের বিরুদ্ধে প্রথম দিন ৪০ রান করে অপরাজিত ছিলেন বিরাট। সে দিন রাতেই তাঁর বাবা মারা যান। কয়েক ঘণ্টা বাদে পর দিন সকালেই ব্যাট করে ৯০ রান করেন বিরাট।

বিরাটের এই ঘটনাই এখন অনুপ্রাণিত করছে প্রিয়াকে। ১৭ মে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান প্রিয়ার মা। আর বুধবারই মানে ১৯ মে ভারতীয় দলের সঙ্গে যোগ দিতে মুম্বই উড়ে যান মহিলা দলের এই ক্রিকেটার। ইংল্যান্ড সফরের দলে রয়েছেন প্রিয়া।

বন্ধ করুন