বাংলা নিউজ > ময়দান > PSL 2023: ব্যর্থ হল আকমলের চোখ ধাঁধানো ইনিংস, গ্ল্যাডিয়েটর্সকে চোখে সর্ষেফুল দেখালেন ফজলহক

PSL 2023: ব্যর্থ হল আকমলের চোখ ধাঁধানো ইনিংস, গ্ল্যাডিয়েটর্সকে চোখে সর্ষেফুল দেখালেন ফজলহক

দাপুটে বোলিং ফারুকির। ছবি- এএফপি।

Pakistan Super League: ইসলামাবাদের হয়ে ঝোড়ো হাফ-সেঞ্চুরি করেন কলিন মুনরো, জলে যায় নওয়াজ-নাজিবউল্লাহর জোড়া অর্ধশতরান।

টপ অর্ডার ব্যর্থ হলে মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের কীভাবে ইনিংসের হাল ধরতে হয়, পাকিস্তান সুপার লিগে তার আদর্শ উদাহরণ পেশ করে কোয়েট্টা গ্ল্যাডিয়েটর্স। যদিও তার পরেও তাদের ম্যাচ হারতে হয় ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের কাছে।

রাওয়ালপিন্ডিতে লিগের ২১তম ম্যাচে সম্মুখসমরে নামে কোয়েট্টা ও ইসলামাবাদ। টস জিতে ইসলামাবাদ শুরুতে ব্যাট করতে পাঠায় কোয়েট্টাকে। ইনিংসের একেবারে শুরুতেই পরপর উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় গ্ল্যাডিয়েটর্স।

কোয়াট্টা একসময় মাত্র ১৭ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়ে। পরপর সাজঘরে ফেরেন উইল স্মিড (০), ইয়াসির খান (৫), সরফরাজ আহমেদ (৩) ও ইফতিকার আহমেদ (২)। সেখান থেকে দলের হাল ধরেন মহম্মদ নওয়াজ ও নাজিবউল্লাহ জাদরান। পঞ্চম উইকেটের জুটিতে দু'জনে যোগ করেন ১০৪ রান। ব্যক্তিগত হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন উভয় ব্যাটসম্যান। শেষে নওয়াজ ৪৪ বলে ৫২ রান করে আউট হন। তিনি ৬টি চার মারেন। নাজিবউল্লাহ মাঠ ছাড়েন ৩৪ বলে ৫৯ রান করেন। আগ্রাসী ইনিংসে তিনি ৫টি চার ও ৩টি ছক্কা মারেন।

আরও পড়ুন:- WPL 2023: টিভিতে খেলা দেখার সুযোগ নেই, ছোট্ট মোবাইল স্ক্রিনেই মেয়ের ব্যাটিং তাণ্ডব দেখলেন কিরণের বাবা-মা

শেষবেলায় ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন উমর আকমল। তিনি মাত্র ১৪ বলে ৪৩ রান করে অপরাজিত থাকেন। মারকাটারি ইনিংসে আকমল ২টি চার ও ৫টি ছক্কা মারেন। ৪ রান করে নট-আউট থাকেন ওডিন স্মিথ। কোয়েট্টা নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটের বিনিময়ে ১৭৯ রান তোলে।

ইসলামাবাদের হয়ে ৪ ওভারে ২৫ রানের বিনিময়ে ৩টি উইকেট নেন আফগান পেসার ফজলহক ফারুকি, যাঁকে ক'দিন পরেই সানরাইজার্স হায়দরাবাদের জার্সিতে আইপিএলে মাঠে নামতে দেখা যাবে। এছাড়া ২৯ রানে ২টি উইকেট নেন ফহিম আশরাফ।

আরও পড়ুন:- PSL 2023: মাঠের মাঝেই সঞ্চালিকাকে কোলে তুলে নিলেন ড্যানি মরিসন, ইনি আবার তারকা ক্রিকেটারের বউ- ভিডিয়ো

পালটা ব্যাট করতে নেমে ইসলামাবাদ ১৯.৩ ওভারে ৮ উইকেটের বিনিময়ে ১৮৩ রান তুলে ম্যাচ জিতে যায়। কলিন মুনরো ২৯ বলে ৬৩ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেন। তিনি ৫টি চার ও ৪টি ছক্কা মারেন। এছাড়া আজম খান ৩৫ ও ফহিম আশরাফ অপরাজিত ৩৯ রান করেন। অ্যালেক্স হেলস ১২ রানের সংক্ষিপ্ত যোগদান রাখেন। খাতা খুলতে পারেননি রহমানউল্লাহ গুরবাজ। ক্যাপ্টেন শাহব খান আউট হন ৮ রান করে।

উমেদ আসিফ ৩৭ রানে ৩টি উইকেট দখল করেন। ১৭ রানে ২টি উইকেট নেন মহম্মদ নওয়াজ। নাসিম শাহ, নবীন উল হক ও ইফতিকার আহমেদ নিয়েছেন ১টি করে উইকেট। দুরন্ত বোলিংয়ের সুবাদে ম্যাচের সেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার জেতেন ফজলহক ফারুকি।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন