বাংলা নিউজ > ময়দান > Ranji Trophy: রঞ্জির কোয়ার্টার ফাইনালে পেস আক্রমণেই আস্থা রাখছে বাংলা, ইঙ্গিত দিলেন অরুণ লাল
অনুশীলনে বাংলা দল। ছবি- সিএবি।

Ranji Trophy: রঞ্জির কোয়ার্টার ফাইনালে পেস আক্রমণেই আস্থা রাখছে বাংলা, ইঙ্গিত দিলেন অরুণ লাল

  • ঝাড়খণ্ডের বিরুদ্ধে রঞ্জি ট্রফির কোয়ার্টার ফাইনালে মনোজ তিওয়ারিদের সম্ভাব্য কম্বিনেশন কেমন হতে পারে, ইঙ্গিত দিলেন বাংলা কোচ।

লিগের ম্যাচগুলি একরকম পিচে খেলতে হয়েছে। কলকাতায় অনুশীলন সারতে হয়েছে আলদা চরিত্রের পিচে। এবার বাংলাকে বেঙ্গালুরুতে রঞ্জির কোয়ার্টার ফাইনাল খেলতে হবে সম্পূর্ণ ভিন্ন চরিত্রের বাইশগজে। নক-আউটের দিন দশেক আগে বাংলা দলের বেঙ্গালুরু উড়ে যাওয়ার আসল উদ্দেশ্য ছিল পিচের সম্ভাব্য আচরণের সঙ্গে সড়গড় হয়ে ওঠা। ঝাড়খণ্ডের বিরুদ্ধে শেষ আটের লড়াইয়ের আগে বাংলা দলের প্রস্তুতি নিয়ে সন্তুষ্ট শোনাল কোচ অরুণ লালকে।

বাংলা কোচ ইঙ্গিত দিলেন যে, জাস্ট ক্রিকেট অ্যাকাডেমি গ্রাউন্ডের পিচে যথেষ্ট বাউন্স রয়েছে। পিচে ঘাসও রয়েছে। তবে ম্যাচের ঠিক আগে বাইশগজের ছবিটা কেমন হবে, সে সম্পর্কে এখনও স্পষ্ট ধারণা নেই তাঁদের। তাই শেষ মুহূর্তে পিচ দেখে তবেই কোয়ার্টার ফাইনালের কম্বিনেশন স্থির করা হবে বলে জানান তিনি।

তবে অরুণ লাল এটা স্পষ্ট করে দেন যে, তিন পেসারে দল সাজাবেন নিশ্চিত। চতুর্থ পেসারের প্রয়োজন হবে, নাকি একজন বাড়তি স্পিনার খেলানো হবে, সেবিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে পিচ দেখে।

আরও পড়ুন:- Ranji Trophy: কোয়ার্টার থেকে ফাইনাল, রঞ্জি ট্রফির নক-আউটের বদলে যাওয়া সূচিতে চোখ রাখুন, কোন চ্যানেলে দেখা যাবে ম্যাচ?

বাংলা কোচ বলেন, ‘আমরা কঠোর পরিশ্রম করছি। যথাযথ প্রস্তুতি নিয়েছি এবং নিজেদের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব। আমি নিশ্চিত, আমাদের খেলোয়াড়রা নিজেদের সেরাটা মেলে ধরবে। লাল বলের ক্রিকেটের সঙ্গে সড়গড় হতে এবং এখানকার পিচের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার জন্য আমরা প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছি। একারণেই আমরা দশ দিন আগে এখানে এসেছি। শুরুর দিকে নিজেদের চূড়ান্ত অপ্রস্তুত মনে হচ্ছিল, কারণ এখানের পিচ একেবারে ভিন্ন রকমের। পিচে ঘাস রয়েছে। বাউন্সও রয়েছে। সিমে বল পড়ে নড়াচড়া করে।’

আরও পড়ুন:- গুজরাটকে IPL চ্যাম্পিয়ন করিয়ে এবার পঞ্জাবের হয়ে মাঠে নামতে চলেছেন শুভমন গিল

অরুণ লাল আরও বলেন, ‘ম্যাচের দিন মাঠে গিয়ে পিচ দেখে প্রথম একাদশ চূড়ান্ত করা হবে। অনেকটা দূরে বলেই আজ মাঠে গিয়ে অনুশীলন করিনি। যেহেতু প্রতিদিন টানা খেলেছি, তাই ডে অফের মতোই অপশনাল প্র্যাক্টিস রেখেছিলাম। আমরা অবশ্যই তিন পেসারে দল সাজাব। ম্যাচের আগে সিদ্ধান্ত নিতে হবে চতুর্থ পেসার খেলানো হবে নাকি একজন স্পিনার।’

বন্ধ করুন